বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ইয়াবা ব্যবসা করে কোটিপতি পুলিশের হাতে আটক ডিবির এএসআই নাছির উদ্দিন !

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
এপ্রিল ২৬, ২০১৮
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশ ঘেঁষেই চান্দিনা উপজেলার কেরনখাল ইউনিয়নের দোতলা গ্রামে ৫ তলা ফাউন্ডেশনের বাড়ি । সীমানা প্রাচীর ঘেরা বাড়ি। দৃষ্টিনন্দন প্রধান ফটকের দরজাটিও । বাড়ির উঠোনে ৪টি গাড়ি । ১০ কক্ষ বিশিষ্ট দুই ইউনিটের বিশাল বাড়ি। এক ইউনিটের কাজ শেষে হলেও অপর ইউনিটে এখনও নির্মাণ কাজ চলছে। এই সাজসজ্জা ও বিলাসবহুল বাড়িটি ২৫ এপ্রিল ভোররাতে চান্দিনা পুলিশের হাতে ৪ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক ডিবি পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই ) নাছির উদ্দিনের। এই বাড়িতে পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারের বসবাস। নাছির উদ্দিনের মধ্যম আয়ের পরিবার এখন কোটিপতি। স্থানীয় সূত্র তাই জানিয়েছে।

মহাসড়ক থেকে মাত্র ১০ গজ দূরত্বে এএসআই নাছিরের পৈত্রিক নিবাস। বাড়িতে গিয়ে কথা হয় তার পিতা নূরু মিয়ার সঙ্গে। তিনি জানান, তার তিন ছেলে এবং তিন মেয়ের আছে। নিজের অটো ও টেম্পো চালিয়ে সংসার চালাতে তিনি। বড় ছেলে নাছির উদ্দিন ২০০৬ সালে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন। আর মেঝ ছেলে রিয়াজ দুবাই থাকেন এবং ছোট ছেলে মামুন এবার এসএসসি পরীক্ষা দেয়।

নূরু মিয়া বলেন, ছেলে পুলিশে চাকরি করে দ্রুত প্রমোশন পাওয়ার বিষয়টি জানলেও জানেন না ছেলের ইয়াবা পাচারের সাথে জড়িত থাকার কথা।

স্থানীয়রা জানায়, কুমিল্লা সদরের বিয়ে করেন এএসআই  নাছির উদ্দিন। ২০০৬ সালে পুলিশ কনস্টেবল পদে যোগদান করে ২০১৪ সালে পদোন্নতি পেয়ে এএসআই  হন। পুলিশের মাত্র একজন এএসআই  পদে চাকরি করে এতো সহায় সম্পদের মালিক বনে যাওয়ার বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয়দের। এএসআই নাছির উদ্দিনের উত্থান নিয়ে গ্রামবাসীর মুখে নানা সমালোচনাও শোনা যায়।

জানা যায়, বর্তমানে এএসআই  নাছিরের তিনটি মাইক্রোবাস ও একটি লেগুনার সঙ্গে ঢাকা-নবাবপুর রুটে চলছে বাসও। এছাড়া ইতোমধ্যে কুমিল্লা শহরে শ্বশুর বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় একটি বাড়িও কিনেছেন। বেশ কিছু জমিও কিনেছেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য,গত মঙ্গলবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনা উপজেলার কাঠেরপুল এলাকা থেকে চার হাজার পিস ইয়াবাসহ মো. নাছির উদ্দিন ও তার সহযোগী মো. কাউসারকে (২৮) আটক করা হয়।তাদের বিষয়ে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে কুমিল্লা ডিবি পুলিশ।

আর পড়তে পারেন