রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

এবার মালদ্বীপে ৩৫ বাংলাদেশিসহ নতুন ১২৮ করোনা রোগীর সন্ধান মিলেছে

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
আগস্ট ১৬, ২০২০
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

মালদ্বীপে বৃহস্পতিবার ৩৫ জন বাংলাদেশি সহ ১২৮ জন নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মিলেছে। দেশটির স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংস্থা (এইচপিএ) এই ঘোষণা দিয়েছে।

সংস্থাটি বলছে, আক্রান্তদের মধ্যে ৮৩ জন মালদ্বীপের নাগরিক। বাকি ৩৫ জন বাংলাদেশি, ৪ জন করে ভারতীয় ও শ্রীলংকান ও ২ জন নেপালি নাগরিক। বৃহত্তর মালে অঞ্চলেই পাওয়া গেছে ১২৭ জন রোগী। আরেকটি দ্বীপে পাওয়া গেছে ১ জন।

এ খবর দিয়েছে মালদ্বীপ টাইমস। এইচপিএ জানিয়েছে, পর্যটন রাষ্ট্রটির ৮টি রিসোর্টে এই মুহূর্তে সক্রিয় করোনা রোগী রয়েছে।

ছয় জন পর্যটক ও রিসোর্টের ১২ জন কর্মী আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন।

এই নিয়ে মালদ্বীপে আক্রান্তদের মোট সংখ্যা দাঁড়াল ৫৪৯৪ জনে। এদের মধ্যে ২৫৫৩ জন এই মুহূর্তে আক্রান্ত। বাকিদের ২৯২০ জন সুস্থ হয়েছেন। ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

৬ই আগস্ট মালদ্বীপে যতজন করোনা আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে, তা মাথাপিছু হারের দিক থেকে বিশ্বে সর্বোচ্চ। মে ও জুনে খুবই অল্পসংখ্যক রোগী থাকলেও এই মাসে দেশটিতে রোগীর সংখ্যা অত্যাধিক বেড়ে গেছে। এতে করে আগে যেখানে সুস্থ হওয়া রোগীর হার ছিল ৮৬ শতাংশ, এখন তা ৫৩.১ শতাংশে নেমে এসেছে।
খবরে বলা হয়, মালদ্বীপে কভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে সরকার দেশকে ‘স্বাভাবিক’ অবস্থার দিকে নেওয়ার প্রচেষ্টা গ্রহণের পর থেকে। ওই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে বৃহত্তর মালে অঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে লকডাউনের বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়। বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতি শহরগুলোর একটি হিসেবে মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে এখনও ব্যাপক সংখ্যাক করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছেন।

ফের লকডাউন আরোপ করার নেতিবাচক অর্থনৈতিক প্রভাবের বিষয়টি উল্লেখ করে কর্তৃপক্ষ সকলকে এইচপিএ’র গাইডলাইন অনুসরণ করার অনুরোধ জানিয়েছে।

২১ই মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কভিড-১৯ রোগকে বৈশ্বিক মহামারি হিসেবে চিহ্নিত করে। এখন পর্যন্ত নভেল করোনাভাইরাসের এই নয়া প্রকরণ বিশ্বব্যাপী ২ কোটি ৭ লাখ মানুষকে আক্রান্ত করেছে। মারা গেছেন প্রায় ৭ লাখ সাড়ে ৫১ হাজার মানুষ। তবে আক্রান্তদের মধ্যে প্রায় ১ কোটি ৩৬ লাখ ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

আর পড়তে পারেন