বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কাঁচা তরকারির চড়া দাম নিয়ে হতাশ চাঁদপুরের সাধারণ মানুষ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
অক্টোবর ২৩, ২০২৩
news-image

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ

সবজির দাম বৃদ্ধি হওয়ায় হতাশ ক্রেতা সাধারণ। গত ১৫ দিনে সব ধরনের সবজির দামও কেজিতে বেড়েছে ২০ থেকে ৩৫ টাকা। সাধ্যের মধ্যে সবজি কিনতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নিম্নআয়ের মানুষজন। ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাজারে শীতের সবজি না আসায় দাম তুলনামূলক ভাবে একটু বেশি। তবে শীতকালীন সবজি বাজারে উঠলে দাম কমে যাবে। এদিকে, চড়া দামে কাঁচা তরিতরকারি কিনতে গিয়ে নাভিশ্বাস উঠে যাচ্ছে সাধারণ ক্রেতাদের।

রবিবার (২২ অক্টোবর) চাঁদপুরের বিভিন্ন সবজির বাজারে ঘুরে দেখা যায়, বেগুন প্রতি কেজি ৯০ টাকা, পেঁপে ৩০, শসা ৬০, আলু ৫০, সিম ১৬০, পটল ৮০, করলা ৮০, কাকরোল ৮০, ঝিঙ্গা ৫০, বরবটি ১২০, মিষ্টি কুমড়া ৬০, ছড়া ৮০, মুলা ৭০, কই ৮০, গাজর ১২০, টমেটো ১০০, ঢেরস ৭০, জলপাই ৮০, ধনিয়া পাতা ২০০ ও কাঁচা মরিচ মানভেদে ২৪০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

এসময় কয়েকজন সবজি ক্রেতা বলেন, আজ অনেকদিন ধরে একই রকম ভাবে বাজারে বাড়তি দামে সবজি বিক্রি হচ্ছে। দাম কমার লক্ষণ দেখছি না। যেখানে এক কেজি সবজি কিনব, সেখানে প্রকারভেদে আধা কেজি ও ২৫০ গ্রাম কিনতে হচ্ছে। সাধ্যের মধ্যে না থাকায় অনেক ক্রেতা একই ভাবে সবজি কিনে বাড়ি ফিরছেন।

স্থানীয় আরও বেশ কয়েকজন ক্রেতা বলেন, সিন্ডিকেট আড়তদারদের কারণেই বাজারে দাম বেশি। বাজার সহনীয় অবস্থায় নেই। এতো দাম দিয়ে সবজি কিনতে হবে বুঝে উঠতে পারছি না। আগের তুলনায় প্রতি কেজি সবজি প্রায় ২০ থেকে ৩৫ টাকা বেশিতে কিনতে হয়েছে। সবমিলিয়ে বলতে গেলে বাজারে সবজির দাম বাড়তিই যাচ্ছে।

সবজি বিক্রেতারা বলেন, গত প্রায় ১৫ দিন ধরে সবজির বাজার একই রকম যাচ্ছে। বাজারভেদে কোনো কোনো সবজির দাম ১৫-২০ টাকা কম-বেশি হয়। পাইকারি বাজার থেকে মাল কেনার পর খাজনা ও পরিবহন খরচ হয়। সে কারণে লাভ রেখে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করি। তবে শীত মৌসুম না হওয়ায় কিছু কিছু সবজির বাড়তি দাম যাচ্ছে। এর কারণ হলো বাজারে সরবরাহ খুবই কম তাই দাম একটু বাড়তি। অন্যদিকে পূজার কারনে বর্ডার বন্ধ থাকায় কাঁচামালের কিছু সংকট দেখা দিয়েছে।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চাঁদপুরের সহকারী পরিচালক নুর হোসেন রুবেল দৈনিক আজকের কুমিল্লাকে বলেন, গত কিছুদিন আগের বৃষ্টিতে অনেক সবজির ক্ষতি হয়েছে। ঢাকা ও বিভিন্ন এলাকা থেকে চাঁদপুরে এসব সবজি আনা হয় বিধায় দাম কিছুটা বেশি হতে পারে। এ নিয়ে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মহোদয় রবিবার বাজার মনিটরিং সভা করেছেন। তারপরও খুব শীগ্রই চাঁদপুর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জেলার বিভিন্ন পাইকারি আড়তে অভিযান পরিচালনা করা হবে। তাদের ক্রয়ের রশিদ দেখে ও বিক্রয়ের মূল্য তালিকা দেখে অনিয়ম পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আর পড়তে পারেন