মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিটো ডায়েট শুরুতে হোন সচেতন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
আগস্ট ২২, ২০২১
news-image

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি ডাইট হচ্ছে কিটো ডাইট বা লো – কার্ব ডায়েট।এ ডাইটে ফ্যাট ও প্রোটিনের মাত্রা অত্যান্ত বেশি থাকে। যার মাত্র ৫% থাকে কার্বোহাইড্রেট যা সাধারণ ভাত, রুটি, আলু, চিনি, দুধ,সয়াবিন ও বিভিন্ন ফলমূলে।কিটো ডাইটের মাধ্যমে খুব সহজেই শরীরের মেদ ঝেরে ফেলা যায় কমানো যায় ১০-১৫ কেজি ওজন। কিন্তু ওজন কমানোর চেয়ে ওজন রক্ষা করা অনেক বেশি কঠিন। মানুষ দীর্ঘ দিন কঠোর ডাইট করতে পারেনা একসময় ক্লান্ত হয়ে যায়।
কিটো ডাইটের কছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ
• কিটো ডাইট ছেড়ে দিলে কিছু দিনের মধ্যেই আবার আগের মত ওজন ফিরে আসে।এতে করে মানুষ হতাশায় ভোগে।
• আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ ডক্তারের পরামর্শ ছাড়া কিটো ডাইট শুরু করে এতে করে শরীরে আয়রন বা ক্যালশিয়ামের মতো বিভিন্ন ঘার্তি দেখা যায়।
• পরিপূর্ণ ডাইট না করতে পারলে চুল পরে যাওয়া সম্ভাবনা অনেক বেরে যায়।
• অতিরিক্ত প্রোটিন ও ফ্যাট গ্রহণের ফলে কিডনিতে চাপ পরে ও এর ফলে কিডনি জনিত সমস্যা হতে পারে।
• কিটো ডাইট অনেক ব্যায় বহুল হওয়ার কারণে অনেকে পর্যাপ্ত পরিমাণ ফ্যাট ও প্রোটিন গ্রহণ করেনা
• ত্বকের উজ্বলতা কমে যায় এবং বিভিন্ন রকম ফুসকুড়ি দেখা দেয়।
• রক্তে ইউরিক এসিডের পরিমান বেড়ে যায়।
• দীর্ঘ দিন কিটে ডাইটের ফলে হাড়জনিত রোগের সম্ভাবনা থাকে।

কিটো ডাইট শুরুর আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।অনেক সময় ইউটিউব দেখে কিটো ডাইট করার চেষ্টা করে এতে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে।সম্প্রতি ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার দুজন মডেলের মৃত্যু হয় কিটো ডাইটের কারনে।এছাড়া খাদ্য তালিকায় নিয়মিত ডিম ও সুষম ফল মূল ও শাক স্বজি রাখা উচিত।এতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

আনিকা নাজনীন

আর পড়তে পারেন