বৃহস্পতিবার, ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লার দেবিদ্বার থেকে ৩ মাস আগে যশোরে গিয়ে রেকি করে চুরি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ১৩, ২০১৯
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ
যশোর শহরের সোনার দোকানে চুরির ঘটনায় চোরদের টিম লিডার ছিলেন কুমিল্লার দেবীদ্বার থানার সুন্দর আলীর ছেলে আব্দুল। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত চার জনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। তাদের কাছ উদ্ধার করা হয়েছে চুরির নগদ দেড় লাখ টাকা ও প্রায় সাড়ে তিন ভরি সোনা। কুমিল্লার দেবীদ্বার থানার সুন্দর আলীর ছেলে আব্দুল চুরির তিন মাস আগে যশোরে ‘প্রিয়াঙ্গন জুয়েলার্স’ রেকি করে যায়। এরপর তার দলের অন্য সদস্যরা ঘটনার তিন দিন আগে যশোরে আসে।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম রব্বানী।

তিনি বলেন, আব্দুলকে গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে। তাকে গ্রেফতার করা হলে বাকি স্বর্ণ উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়,চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় অভিযান চালিয়ে চার জনকে গ্রেফতার ও মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। গত ২৭ জুন বিকালে প্রিয়াঙ্গন জুয়েলার্সে চুরি হয়। চোরেরা জুয়েলার্স থেকে প্রায় ৪৮ ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ অর্থ লুট করে। এ ঘটনায় জুয়েলার্স মালিক অমিত রায় আনন্দ অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা করলে ডিবি পুলিশ তদন্ত শুরু করে। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ১১ জুলাই চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট এলাকা থেকে আব্দুর রহিম বাদশা নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রামের বাকলিয়া থেকে সোহেল, কুমিল্লার মুরাদনগর থেকে উজ্জ্বল ও রাঙামাটি থেকে সুমনকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া সোহেলের বাড়ি থেকে দেড় লাখ টাকা এবং ৩ ভরি ৭ আনা স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়।

এএসপি বলেন, চুরির ঘটনায় মোট ৯ জন জড়িত। অপর ৫ জনকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে। সংঘবদ্ধ এ চক্রটি দেশের বিভিন্ন স্থানে একইভাবে দিনের বেলায় চুরি করে।

আর পড়তে পারেন