শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লা-১ দলীয় বিভাজন ভুলে আব্দুস সবুরের পক্ষে একাট্টা সবাই

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ৭, ২০২৩
news-image

জাকির হোসেন হাজারী, দাউদকান্দি:

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন কুমিল্লা-১ (দাউদকান্দি-তিতাস ) আসনে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে দলের সবাই এক হয়ে কাজ করছেন। এ আসনে ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর সর্বস্তরে গ্রহনযোগ্য হওয়ায় উচ্ছাসপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে এলাকায়। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার উন্নয়ন অগ্রযাত্রা তুলে ধরে নৌকা প্রতিকের পক্ষে প্রচারে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে সবাই। আর এতে প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত বলে দাবি করছেন কর্মীরা।

উপজেলা আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, বিগত তিনটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই আসনে নির্বাচিত মেজর জেনারেল অবঃ সুবিদ আলী ভুইয়ার অনুসারীরা নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। নির্বাচনের পর পরীক্ষিত নেতাদের বাদ দিয়ে বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে দলে বিভাজনের রাজনীতি শুরু করেন। সেখানে দলের জন্য ত্যাগী নেতাদের পাশে ছায়া হয়ে থেকেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর । তাকে প্রার্থী হিসেবে পেয়ে এবার আশায় বুক বেধেছে এলাকার মানুষ। সবাই মিলে নৌকাকে জয়ী করতে বদ্ধপরিকর।

সরেজমিন দাউদকান্দি ও তিতাস উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। এখানকার আওয়ামী লীগের মধ্যে আগের যে বিভাজনের রাজনীতি ছিল , তা ভুলে সবাই ইঞ্জিনিয়ার সবুরের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে।

এ আসনে ১২জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। তার মধ্যে ছয়জনের মনোনয়ন বাতিল এবং একজনের স্থগিত করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা । এখন প্রতিদ্বন্ধিতায় রয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, জাতীয় পার্টি থেকে আমির হোসেন ভূঁইয়া, জাকের পার্টি মাওলানা ওবায়দুল হক, তৃণমূল বিএনপির সুলতান জিসান আহমেদ, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক গণমুক্তি জোটের মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন ভূইয়া।

তবে নির্বাচনী মাঠ ঘুরে জানা গেছে, প্রতিদ্বন্দ্বি যিনিই হোন না কেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষেই জনজোয়ার তৈরি হয়েছে। এবার নৌকার মনোনয়ন চেয়েছিলেন বর্তমান সাংসদ মেজর জেনারেল অবঃ সুবিদ আলী ভুইয়া, তাঁর ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান মেজর অবঃ মোহাম্মদ আলী সুমন, জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ব্যারিষ্টার মহিউদ্দিন আহমেদ।

ব্যারিষ্টার মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, একটি দল থেকে একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকতেই পারে। তবে আমরা সবাই সব অভিমান ভুলে নৌকাকে বিজয়ী করার লক্ষে কাজ করছি।

আর দাউদকান্দি তিতাসের জনগনের কাছে ইঞ্জিঃ আব্দুস সবুর সাবেক মন্ত্রী মরহুম আব্দুর রশিদ ইঞ্জিনিয়ারে প্রতিচ্ছবি হয়ে থাকবেন বলে এলাকায় মানুষের মুখে মুখে। আব্দুর রশিদ ইঞ্জিনিয়ার দাউদকান্দিতে যখন মন্ত্রী ছিলেন, উন্নয়ন যাই করেছে, কিন্তু কোন মানুষের ক্ষতি করেছে এমন নজির নেই।

দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সম্পাদক মোঃ শাহজালাল ও ভিপি সালাউদ্দিন রিপন বলেন, ইঞ্জিঃ আব্দুস সবুর নৌকা প্রতিক পাওয়ায় এই আসনের আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী ও সাধারন মানুষ উজ্জিবিত হয়েছে। সবাই তার পক্ষে একাত্মতা প্রকাশ করে ব্যাপক গণজোয়ার সৃষ্টি করেছেন। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ এবং ৭ জানুয়ারী ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে নৌকাকে বিজয়ী করতে আমরা সবাই নিরলস কাজ করব।

মনোনয়ন ঘোষনার পর দলের সবাই একাট্টা হয়ে কাজ করছে জানিয়ে তিতাস উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মুন্সি মজিবুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাইফুল আলম মুরাদ বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বৃহৎ দল ও পরিবার। আওয়ামী লীগের সভানেত্রী যাকেই মনোনয়ন দিয়েছেন সব দ্বিধাদ্বন্দ ভুলে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হবে।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর বলেন, সংগঠনের ভেতর কোনো গ্রুপিং নেই। আমি দাউদকান্দি তিতাসের নেতা-কর্মী ও সাধারন মানুষের সমর্থন ও ভালবাসা পেয়েছি। নেতা-কর্মী ও সাধারন ভোটাররা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

আল্লাহ সহায় হলে এবং নেতা-কর্মীদের ভালবাসায় আগামী নির্বাচনে বিজয় আমাদের সুনিশ্চিত ইনশাআল্লাহ । তিনি আরও বলেন, আচরনবিধি যাতে লঙ্ঘিত না হয় সে ব্যাপারে সকলকে সচেতন থেকেই প্রতিক বরাদ্দের পর আমাদেরকে নির্বাচনী প্রচারনা চালাতে হবে।

আর পড়তে পারেন