শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চিলিকে হারিয়ে ৪৪ বছর পর কোপার ফাইনালে পেরু, প্রতিপক্ষ ব্রাজিল

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৪, ২০১৯
news-image

স্পোর্টস ডেস্কঃ

কোপা আমেরিকার দ্বিতীয় সেমি ফাইনালে চিলিকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে ৪৪ বছর পর  কোপা আমেরিকার ফাইনালে জায়গা করে নিল পেরু। ফাইনালে শক্তিশালী ব্রাজিলের বিপক্ষে লড়বে পেরু। আগামী শনিবার রাতে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে তৃতীয়স্থান নির্ধারণী ম্যাচে খেলতে নামবে চিলি।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৬টায় পোর্তো অ্যালেগ্রের অ্যারেনা দো গারমিয়োতে মুখোমুখি হয় ফেভারিট চিলি ও পেরু। তবে পেরু দাপট দেখিয়ে জয় পেলে টানা তিন ফাইনাল খেলে হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের স্বপ্ন ধুলিসাৎ হয়ে যায় চিলির। এর আগে ২০১৫ সালে প্রথমবার শিরোপা জয়ের পর পরের ২০১৬ আসরেও ট্রফির উৎসব করে চিলি। সেই দুই আসরেই আবার আর্জেন্টিনার মতো সেরা দলকে হারিয়েছিল চিলিয়ানরা।

এদিন মূলত প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে লিড নিয়ে ফাইনালে খেলার লড়াইয়ে এগিয়ে যায় পেরু। যেখানে বিরতির আগে এদিনসন ফ্লোরেস ও ইয়োশিমার ইয়োতুন গোল করেন। আর দ্বিতীয়ার্ধে যোগ করা সময়ে লা রোহাদের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন পাওলো গুয়েরেরো। ফলে আর্জেন্টিনার রেকর্ড টানা তিন শিরোপা জয়ে ভাগ বসানো থেকে বঞ্চিত হতে হলো অ্যালেক্সিস সানচেজ-আরতুরো ভিদালরা। আর ১৯৭৫ সালের পর প্রথমবার ফাইনাল নিশ্চিত করলো পেরুভিয়ানরা।

মজার ব্যাপার এই পেরুই কিনা গ্রুপ পর্ব থেকে নকআউট পর্বে উঠেছিল কোনরকমে। দ্বিতীয় রাউন্ডে পাড়ি দিতে রিকার্ডো গারেসার শিষ্যদের তিন গ্রুপের মধ্যে সেরা দুই তৃতীয় দলটি হিসেবে জায়গা করে নিতে হয়। আগামী শনিবার (জুলাই ৭) ফাইনালে বিখ্যাত মারাকানা স্টেডিয়ামে স্বাগতিক ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে পেরু।

চিলিকে এদিন শেষ ধাক্কাটা দেন তাদেরই তারকা ফুটবলার এদুয়ার্দো ভারগাস। ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে পেনাল্টি থেকে গোল করার সুযোগ পেলেও তাকে সেখান থেকে বঞ্চিত করেন পেরু গোলরক্ষক পেদ্রো গায়েসে।

ম্যাচের শুরুতেই পেরুর ক্রিস্টিয়ান কুয়েভা ও চিলির চার্লেস আরানগুয়েজ দুটি সুযোগ পেলেও গোল করতে পারেননি। ২১ মিনিটে অগোছালো চিলিকে অবাক করে লিগ নেয় পেরু। আন্দ্রে কারিয়ো কুয়েভাকে ডান সাইড ধরে বল দিলে সেখান থেকে স্ট্রাইকার ফ্লোরেস বল নিয়ে গোল করতে কোনো ভুল করেননি। পরে ৩৮ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ইয়োতুন। আর ৯০ মিনিটের পর যোগ করা প্রথম মিনিটেই গুয়েরেরো তৃতীয় গোলটি করে জয় নিশ্চিত করেন।

এদিকে পেরুর ফাইনাল ভাগ্য বড়ই ভালো। কেননা এখন পর্যন্ত দু’বার শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ খেলে দু’বারই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে দলটি। তাই ফাইনালে অঘটন ঘটিয়ে ব্রাজিলকে হারালে চমকের কিছু থাকবে না।

 

আর পড়তে পারেন