সোমবার, ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

জীবনের শেষ সময়ে সংসার চালাতে বেছে নিয়েছেন আবর্জনা ডাম্পিং স্টেশন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

জীবনের শেষ সময়ে এসে জীবিকা নির্বাহের জন্য বেছে নিয়েছেন এই আবর্জনা ডাম্পিং স্টেশন। ভোরের আলো থেকে শুরু করে সূর্যাস্ত পর্যন্ত খুঁজে বেরায় পরিত্যাক্ত দ্রব্য যা কুড়িয়ে বিক্রি করে চলে তাদের সংসার।

৬০ বছরের বৃদ্ধা নূরজাহান বেগম আবর্জনা থেকে কাগজ, লোহা, বোতল ও কাচের টুকরাসহ অন্যান্য জিনিসপত্র সংগ্রহ করে প্রতিদিন। ভূমিহীন স্বামীহীন অনেক বছর ধরে এই বৃদ্ধা আবর্জনা স্তূপ থেকে ভাংড়ি কুরিয়ে পার করছেন নিজের জীবন। ভাংড়ি কুড়ানোর কাজে বৃদ্ধা নূরজাহান বেগমের মত আরও অনেকে সারাদিন অবর্জনায় ঘন্টার পর ঘন্টা পড়ে থাকে।

অনেক সময় তাদের হাত-পা কেটে যায়, কিন্তু কাপড় পেঁচিয়ে আবার নেমে যায় খোঁজাখুজিতে। জীবনের সব কিছু হারিয়ে জীবন যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার জন্য আবার ফিরে আসেন এই আবর্জনার স্তূপে।

মেম্বার অথবা চেয়ারম্যান থাকা শর্তেও তাদের কাছে পৌছেনা কোন রকম সাহায্য বা সহযোগীতা এমনটি জানিয়েছেন অনেক বৃদ্ধা।

বৃদ্ধা নূরজাহান বেগম বলেন, “মেম্বার চেয়ারম্যান কয় কিতা হেতেরা কোন খবর নাই এমনে কয় ফটো দেও ইয়া দেও, এরপর কিছু দেয় না। রিলিফের চাল আইলে কোন দিন ৫ কেজি চাল আমডারে দেয় না। ভোটের সময় আইয়া খালা সবাইরে ডাকে আমনেরা ভোট দেন। আমনেদের দিকে খেয়াল রাইকাম। ভোট যখন সাইরা যায়গায় হেসুম খালা নাই, ভইন নাই, কিছু নাই, মাও নাই।”

৬নং জগন্নাথ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মামুন জানান, মেম্বারদের মাধ্যমে বা সরাসরি আমার কাছে কেউ আসে, যদি আমি জানতে পারি কেউ ভাতা পাওয়ার উপযুক্ত তাহলে আমরা অবশ্যই তাদেরকে ভাতার আওতায় আনব।