মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নবীনগরে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী, ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জানুয়ারি ১৮, ২০১৮
news-image

মোঃ দেলোয়ার হোসেন, নবীনগর  ঃ
বাল্যবিবাহ বর্তমানে আমাদের দেশের একটি সামাজিক ব্যাধিতে রূপ নিয়েছে। এই ব্যাধি থেকে সমাজ ও দেশকে বাঁচাতে সরকারসহ বিভিন্ন ধরণের সংস্থা/এনজিও নানা ধরণের পদক্ষেপ নিলেও সমাজ থেকে একেবারে নির্মূল করতে পারছে না এই প্রচলনকে। দিপা আক্তার সবেমাত্র ৭ম শ্রেণী পাশ করে ৮ম শ্রেনীতে উঠল তাকে বিয়ে দিতে উঠে পড়ে লেগেছে তার পরিবার, বিয়েও ঠিক করল সাদিকুরের সাথে কিন্তু এই বিয়েতে বাধ সেঁজে বসল তারই সহপাঠী বন্ধুরা। বন্ধ হলো বিয়ে, রক্ষা পেল দিপা, অপরদিকে জড়িমানা গুনতে হলো দুই পক্ষের অভিভাবক ও কাজীর।

ঘটনাটি ঘটেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার পৌর শহরের উত্তর পাড়ার আলী আজ্জমের বাড়িতে।

পুলিশ জানায়, বুধবার নবীনগর সদরের উত্তর পাড়ার আলী আজ্জমের মেয়ে ও নবীনগর ইচ্ছাময়ী পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের আষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী দিপা আক্তার (১৪) এর সাথে উপজেলার নাটঘর ইউনিয়নের নাটঘর গ্রামের ওয়ালী মিয়ার ছেলে সাদিকুর রহমান (৩০) এর বিয়ের প্রস্তুতি চলছে। এমন খবর পেয়ে দিপার সহপাঠীরা বাল্যবিয়ের ঘটনাটি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করলে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে বর-কনেসহ উভয় পক্ষকে থানায় নিয়ে আসে। পরে বৃহস্পতিবার ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জেপি দেওয়ান বর ও কনে পক্ষের অভিভাবকসহ কাজীকে পৃথক পৃথক পরিমানে মোট ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ ব্যাপারে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট জেপি দেওয়ান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বাল্য বিবাহ দেয়ার প্রস্তুতি নেয়ার অপরাধে বর ও কনে পক্ষকে এবং এই বিয়ের দায়িত্ব থাকা কাজীকে ভ্রাম্যমান আদালতে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আর পড়তে পারেন