শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বুড়িচংয়ে গরুর বাজারের ইজারা দখল নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৫

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
নভেম্বর ৭, ২০২২
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা দক্ষিণ ইউনিয়নের লাটিয়ারপুল (লটুয়া গরুর বাজার) ইজারা দখল নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

রোববার বিকালে আক্তার গ্রুপের সাথে মফিজ গ্রুপের দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এতে মফিজ গ্রুপের ৫ জন আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এসময় স্থানীয় দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির এস আই মোঃ রুহুল আমিন, আশিষ কুমার সঙ্গীয় ফোর্সসহ খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনার স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার জের ধরে লাটুয়ার গরুর বাজারের ইজারা নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ ও ভয়ভীতি বিরাজ করায় সোমবার ওই স্থানে গরুর বাজার বসতে দেয়নি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হালিমা খাতুনের নির্দেশে সোমবার গরুর হাট বসলে পুলিশ বাজার থেকে ব্যবসায়ীদের সরিয়ে দেয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, লটুয়া গরুর বাজারের ইজারা নিয়ে স্থানীয় দুটি পক্ষের দীর্ঘদিন ধরে চরম বিরোধ চলে আসছে। গরুর বাজারটির ইজারা দখলে নিয়ে কোর্টে ও থানায় মামলা দায়ের করেছে উভয় পক্ষ।

ছিকুটিয়ার মফিজ গ্রুপের মফিজ জানান, রোববার বিকাল সাড়ে ৪টায় তাদের সমিতির বৈঠক বসার প্রস্তুতি চলছিল।এ সময় ফারুক-আক্তার গ্রুপের লোকজন বহিরাগত ৫০-৬০ জন দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে মফিজ গ্রুপের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়।এতে মফিজ গ্রুপের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে মফিজ গ্রুপের ৫ জন আহত হয়েছে বলে মফিজ অভিযোগ করে।

আহতদের কুমিল্লা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। আহতরা হলেন- কামাল হোসেন, সফিকুল ইসলাম, মোবারক হোসেন, জামাল হোসেন।

ফারুক ও আক্তার অভিযোগ করে বলেন মফিজ মামলা বাজ। সে বাজারটি দখল করতে চায়। আমরা বাজার ইজারা নিয়েছি। আমরা ৮ লাখ টাকা ইজারা জমা দিয়েছি। ইজারা বাতিল করা হয়েছে, খাস কালেকশান ও আমরাও করব। মফিজ গ্রুপ আমাদের নামে আদালতে মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা করেছেন। আমরা কারো উপর হামলা করি নাই।

মফিজ গ্রুপের মফিজুল ইসলাম বলেন, বাজারটি বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউনও) ইজারা বাতিল করছে মুখে বলেন, কিন্তু ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। আক্তার গ্রুপ অবৈধভাবে বহিরাগতদের নিয়ে আমাদের লোকজন উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। আমরা কারো উপর হামলা করি নাই। বাজারটি জায়গা আমাদের নিজস্ব মালিকানা। আমাদের জায়গায় তারা জোড়পুর্বক দখল করে ক্ষমতা চালায়।

এস আই রুহুল আমিন বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে এক গ্রুপ বাজার থেকে দূরে চলে যায়। তিনি আরও বলেন, এ ঘটনার জের ধরে সোমবার লাটুদার গরুর বাজার বসলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে বাজার ভেঙ্গে দেওয়া হয়।

বুড়িচং থানার ওসি তদন্ত মোঃ কবির হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমি সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করেছি। বিশৃঙ্খলা যেন সৃষ্টি না হয় সে লক্ষে পুলিশ কাজ করছে। কেউ অভিযোগ দায়ের করলে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বুড়িচং উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হালিমা খাতুন বলেন, লাটিয়ারপুল লটুয়া গরুর বাজার ইজারা বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। আক্তার গ্রুপ ও মফিজ গ্রুপ নামে কাউকে বাজার পরিচালনা কারার দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। কারা বাজারটি নিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে তদন্ত করে দেখে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আর পড়তে পারেন