শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ছাত্রদলের সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের পৃথক মামলা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ১৩, ২০২৩
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রদলের নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটি ও পদবঞ্চিতদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পৃথক দুইটি মামলা করেছে পুলিশ। বিস্ফোরণ ও সরকারি কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগে সদর মডেল থানার দুই এসআই বাদী হয়ে মামলাগুলো করেন।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে জেলা ছাত্রদলের ৭ সদস্যের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। শুক্রবার বিকালে জেলা শহরের টিএ রোড ও পাওয়ার হাউস রোডে বিক্ষোভ মিছিল করে ছাত্রদলের পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীরা। মিছিল শেষে তারা কান্দিপাড়ায় জেলা ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির আহ্বায়ক শাহীনুর রহমান ও কৃষক দলের যুগ্ম আহবায়ক কাউসারের বাড়িতে হামলা করে ভাঙচুর চালায়।

শনিবার রাতে শহরের কান্দিপাড়ায় সদ্য ঘোষিত ছাত্রদলের কমিটির নেতারা পাল্টা হামলার প্রস্তুতি নেয়। এই খবরে পদবঞ্চিত ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা উল্টো তাদের ওপর হামলা করে। এতে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে এবং ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় রোববার পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে।

সোমবার (১২ জুন) সকালে শহরের লোকনাথ দিঘীর মাঠ থেকে নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠন করায় একপক্ষ আনন্দ মিছিল বের করার ঘোষণা দেয়। একই সময় ও স্থানে আওয়ামী সরকারের দুর্নীতি এবং লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয় পদবঞ্চিত ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা। এমন পরিস্থিতিতে নতুন কমিটি তাদের কর্মসূচির স্থান পরিবর্তন করে শহরতলীর বিরাসার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আয়োজন করে। সকাল থেকে নেতা-কর্মীরা মিছিলে অংশ নিতে বিরাসার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় জড়ো হতে থাকেন। এই খবরে পদবঞ্চিত ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা বিরাসার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় হামলা করে। এ সময় প্রায় অর্ধ শতাধিক ককটেল বিস্ফোরণ হয়। উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার গ্যাস ছুড়ে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ওসি এমরানুল ইসলাম বলেন, ছাত্রদলের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় দুটি মামলার একটিতে ৪৯ জনের নাম উল্লেখস আরও ১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে। অপর মামলায় ৩৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৫০-৬০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

আর পড়তে পারেন