সোমবার, ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শীতার্ত মানুষদের পাশে দাঁড়ানো সবার নৈতিক দায়িত্ব -মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী এমপি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জানুয়ারি ৬, ২০১৮
news-image

মো. দ্বীন ইসলাম:

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম এমপি বলেছেন, দরিদ্র মানুষ শীতে কাবু থাকবে তা হয় না। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি সেক্টরকে নির্দেশ দিয়েছেন, শীতে গরম কাপড়ের জন্য কোন মানুষ যেন কাবু হয়ে না পড়েন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদেশের সকল মানুষের জন্য খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।
গত শনিবার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী তার সংসদীয় এলাকা মতলব উত্তর ও দক্ষিণ উপজেলায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণকালে এ কথা বলেন। মতলব উত্তর ও দক্ষিন উপজেলায় অসহায় শীতার্তদের মাঝে ১৪ হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়।

নারীর ক্ষমতায়নের অংশ হিসেবে মহিলালীগের নেতৃবৃন্দের মাধ্যমে ২৫০০ কম্বল বিতরণ করা হয়। বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন- মন্ত্রী পতœী পারভীন চৌধুরী, ছেংগারচর বিশ^বিদ্যালয় কলেজ গভার্ণিংবডির সভাপতি তরুন আ’লীগ নেতা সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু, মতলব উত্তর উপজেলা মহিলালীগের উপদেষ্টা সুবর্ণা চৌধুরী বিনা, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, মতলব দক্ষিন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি এএইচ গিয়াস, মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার, মতলব দক্ষিণ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) আইরিন আক্তার, জাতীয় স্বর্ণপদক প্রাপ্ত মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামছুল হক চৌধুরী বাবুল, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সরকার ইমন, মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ারুল হক কামাল, মতলব উত্তর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ কুদ্দুস, মতলব দক্ষিণ উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএইচ কবির, ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশ, একেএম শরীফ উল্ল্যাহ সরকার, নূর মোহাম্মদ, মনজুর মোর্শেদ স্বপন, মতলব উত্তর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, আ’লীগ নেতা কাজী মিজান, মতলব উত্তর উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মিনহাজ উদ্দিন খান, যুগ্ম আহবায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ প্রমুখ।
ত্রাণমন্ত্রী আরো বলেন, শীতার্ত মানুষদের পাশে দাঁড়ানো সবার নৈতিক দায়িত্ব। সারা দেশে অসহায় শীতার্ত মানুষের জন্য ২৭ লক্ষ কম্বল প্রেরণ করা হয়েছে। বেশীরভাগ কম্বল উত্তরাঞ্চলে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণভান্ডার থেকে ১৮ লক্ষ কম্বল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গুলোর পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানরা গরিব-অসহায় শীতার্ত মানুষগুলো পাশে দাঁড়ালে কোনো মানুষকেই শীতে কাঁপতে হবে না। শীতে কষ্ট পাওয়া দরিদ্র মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ সেবামূলক কাজের একটি অংশ। সমাজের অবহেলিত এবং বঞ্চিত মানুষগুলোর সাহায্যর্থে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

আর পড়তে পারেন