সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মনোহরগঞ্জে খুন হওয়া কিশোরের এলাকায় বিক্ষোভ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৫, ২০১৭
news-image

 

সেলিম সজীবঃ

ইউছুফ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। থানাজুড়ে চলছে আলোচনা সমালোচনা। পরিবারসহ শুভাকাঙ্ক্ষী ও এলাকাবাসীর দাবি, দ্রুত অপরাধী খুনী রহমতকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে বিচার করা হোক। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মনোহরগঞ্জে বেশ কয়েকটি বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী। নিহত ইউছুফ কাকা কাজি সুমন বলেন, ‘আমার ভাতিজা হত্যাকাণ্ড চাঞ্চল্যকর ঘটনা। এ ঘটনায় আমরা ভীষণ মর্মাহত। দ্রুত অপরাধীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে আমার ভাতিজার আত্মা শান্তি পাবে।’ পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে মাদ্রাসার সামনে একই গ্রামে কয়েকজন বন্ধুদের সাথে বড় বাড়ির মাওলানা আবুল বাসার এর ছেলে খুনি রহমত উল্লাহ মধ্যে কথা-কাটাকাটি ও হাতাহাতি শুরু হয়। এ সময় সেখানে উপস্থিত কাজি ইউছুপ ঝগড়া থামাতে গেলে খুনি রহমত উল্লাহ্‌ চাকু দিয়ে নির্মম হত্য করে। বুধবার সকালে হত্যাকাণ্ডের খবর মনোহরগঞ্জ থানা ছড়িয়ে পড়লে লোকজন ছুটে যান বাড়িতে। হত্যাকাণ্ডের খবরে তারা শোকাহত ও মর্মাহত। ইউছুফ মৃত্যুতে এলাকায় বিক্ষোভ মনোহরগঞ্জ থানা ঝলম উত্তর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ এর আহবায়ক, রাসেল চৌধুরী জানান, ইউছুফ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পুরো সমাজ ক্ষুব্দ ও মর্মাহত। এ ধরনের হত্যাকাণ্ড কখনও কাম্য না। দ্রুত অপরাধীকে গ্রেফতার করা হলে আমরা শান্তি পাব। নিহত ইউছুফ প্রতিবেশী খোরশেদ মিয়াজি জানান, এ চাঞ্চল্যকর ঘটনায় গোটা এলাকাবাসি শোকাহত ও স্তব্ধ। আমরা সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই, যেন দ্রুত অপরাধীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়।

আর পড়তে পারেন