সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মুরাদনগরে প্রতারনা করে মাদরাসার জমি দখল করার পায়তারা, কর্তৃপক্ষের নামে মামলা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
এপ্রিল ২৯, ২০১৯
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কাজিয়াতল গ্রামে অবস্থিত উপজেলার প্রাচীনতম ঐতিহ্যবাহী ইসলামি শিক্ষার কেন্দ্র জামি’আ ইসলামিয়া ফয়জুল উলুম হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার নিজস্ব জমি প্রতারনাপূর্বক জাল দলিল সৃজন করে অবৈধ ভাবে দখল করে তা হজম করতে মাদরাসার কর্তৃপক্ষের বিরূদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই মাদ্রাসার সাবেক পরিচালক মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা এসব অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। মামলার পাশাপশি হুমকি ধামকি দিয়ে যাচ্ছে বলেও অভিযোগ করা হয়।

ভূমিদস্যুর হাত হতে কাজিয়াতল জামিয়া ইসলামিয়া ফয়জুল উলুম হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার জমি রাক্ষার্থে এই অভিযোগ করেন মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ ও এলাকার স্থানীয় জনগন। সোমবার সকালে উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়তলে অবস্থিত মাদ্রাসার সভাকক্ষে বর্তমান মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা ফায়জুল্লাহ অভিযোগ করে বলেন, উপজেলার কাজিয়াতল মৌজায় ১৯৯৫ সালে সহিদুল্লাহ মীর হতে তৎকালীন মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা খলিলুর রহমান কাজিয়াতল মৌজায় ৩৩৫৮/ ৮৫৫৮ দাগে ৯ শতাংশ ভূমি ক্রয় করে মৌখিকভাবে মাদ্রাসার পক্ষে দখল বুঝে নেন। তারপর হতে এ যাবত পর্যন্ত জমিটি মাদ্রাসার দখলে রয়েছে। পরবর্তী ২০০৭ সালে অভিযুক্ত মাওলানা মাহমুদুল হাসান ওই মাদ্রাসার পরিচালনার দায়িত্বের সুযোগ পেয়ে প্রতারনাপূর্বক কৌশলে জমির মালিক সহিদ উল্লাহ’র কাছ থেকে মাদ্রাসার নামে দলিল না করে গোপনে নিজ নামে জমি রেজিষ্ট্রি করে অবৈধ ভাবে দখল করে ভোগ দখল করার পায়তারা চালাচ্ছে।

উক্ত জমিতে মাদ্রাসার নামে লটকানো সাইনবোর্ডটিও ভেঙ্গে ফেলেছে। মাদ্রাসার জমি ভূমি খেকোর হাত হতে রক্ষার্থে সরকার, প্রশাসন, মিডিয়া কর্মি, মানবধিকার সংগঠনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করছে মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য অভিযুক্ত মাদ্রাসার সাবেক পরিচালক মাহমুদুল হাসানের সঙ্গে বার বার যোগাযোগ করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

আর পড়তে পারেন