শুক্রবার, ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার দারুণ জয়

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ১৮, ২০১৯
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্ট:

রিয়াল বেটিসকে ৪-১ গোলে হারিয়ে লা লিগার শিরোপা জয়ের অর্থে আরো একধাপ এগিয়ে গেছে বার্সেলোনা। রোববার রাতে বেটিসের মাঠে আনুষ্ঠিত ম্যাচে বার্সার জয়ের নায়ক লিওনেল মেসি। অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক করে গত নভেম্বরে বেটিসের কাছে পরাজয়ের মধুর প্রতিশোধ নেওয়ার পথ করে দেন এই আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর।

প্রতিপক্ষের মাটিতে রোববার ম্যাচের শুরুতে বেশ ভালো প্রতিরোধের সম্মুখীন হয় বার্সা। পাল্লা দিয়ে খেলে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে ম্যাচ জমিয়ে তোলে রিয়াল বেটিস। কিন্তু কাজের কাজটা করে বার্সাই। বেটিসের ফিনিশিংয়ের দুর্বলতার বিপরীতে প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় কাতালানরা। প্রথমার্ধে বার্সার হয়ে দুটি গোলই করেন মেসি। ম্যাচের ১৮ মিনিটে দুর্দান্ত এক ফ্রিকিকে বল জালে পাঠান তিনি। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে আবার গোল করেন এই সুপারস্টার। লুইস সুয়ারেজের পাস থেকে নিখুঁত ফিনিশিংয়ে গোল করে দলকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন বার্সা অধিনায়ক।

দ্বিতীয়ার্ধেও ঠিক ১৮ মিনিটে গোল হয়। মাঝমাঠে থেকে দৌড়ে বেটিসের দুজন খেলোয়াড়কে কাটিয়ে চমৎকার এক গোল করেন সুয়ারেজ। ৩-০ গোলে পিছিয়ে যাওয়া বেটিস গোল শোধের প্রবল প্রচেষ্টা চালাতে থাকে। অবশেষে ম্যাচের ৮২ মিনিটে ব্যবধান কমায় তারা। ডি-বক্সে বল পেয়ে ডিয়েগো লাইনেস পাস দেন লরেন মোরনকে। দুর্দান্ত এক শটে গোল করে স্কোরলাইন ৩-১ করেন তিনি।

ম্যাচ শেষ হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে মেসির হ্যাটট্রিক পূর্ণ হয়। ক্রোয়াট মিডফিল্ডার রাকিটিচের পাস থেকে বল পেয়ে দারুণ বুদ্ধিমত্তায় গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে পাঠান মেসি। শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে কাতালানরা।

এই জয়ে ২৮ ম্যাচে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান আরো মজবুত করল বার্সেলোনা।রিয়াল বেটিসকে ৪-১ গোলে হারিয়ে লা লিগার শিরোপা জয়ের অর্থে আরো একধাপ এগিয়ে গেছে বার্সেলোনা। রোববার রাতে বেটিসের মাঠে আনুষ্ঠিত ম্যাচে বার্সার জয়ের নায়ক লিওনেল মেসি। অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক করে গত নভেম্বরে বেটিসের কাছে পরাজয়ের মধুর প্রতিশোধ নেওয়ার পথ করে দেন এই আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর।

প্রতিপক্ষের মাটিতে রোববার ম্যাচের শুরুতে বেশ ভালো প্রতিরোধের সম্মুখীন হয় বার্সা। পাল্লা দিয়ে খেলে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে ম্যাচ জমিয়ে তোলে রিয়াল বেটিস। কিন্তু কাজের কাজটা করে বার্সাই। বেটিসের ফিনিশিংয়ের দুর্বলতার বিপরীতে প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় কাতালানরা। প্রথমার্ধে বার্সার হয়ে দুটি গোলই করেন মেসি। ম্যাচের ১৮ মিনিটে দুর্দান্ত এক ফ্রিকিকে বল জালে পাঠান তিনি। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে আবার গোল করেন এই সুপারস্টার। লুইস সুয়ারেজের পাস থেকে নিখুঁত ফিনিশিংয়ে গোল করে দলকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন বার্সা অধিনায়ক।

দ্বিতীয়ার্ধেও ঠিক ১৮ মিনিটে গোল হয়। মাঝমাঠে থেকে দৌড়ে বেটিসের দুজন খেলোয়াড়কে কাটিয়ে চমৎকার এক গোল করেন সুয়ারেজ। ৩-০ গোলে পিছিয়ে যাওয়া বেটিস গোল শোধের প্রবল প্রচেষ্টা চালাতে থাকে। অবশেষে ম্যাচের ৮২ মিনিটে ব্যবধান কমায় তারা। ডি-বক্সে বল পেয়ে ডিয়েগো লাইনেস পাস দেন লরেন মোরনকে। দুর্দান্ত এক শটে গোল করে স্কোরলাইন ৩-১ করেন তিনি।

ম্যাচ শেষ হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে মেসির হ্যাটট্রিক পূর্ণ হয়। ক্রোয়াট মিডফিল্ডার রাকিটিচের পাস থেকে বল পেয়ে দারুণ বুদ্ধিমত্তায় গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে পাঠান মেসি। শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে কাতালানরা।

এই জয়ে ২৮ ম্যাচে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান আরো মজবুত করল বার্সেলোনা।

আর পড়তে পারেন