বৃহস্পতিবার, ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রাফাহ ক্রসিং ইসরাইলের নিয়ন্ত্রণে

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৭, ২০২৪
news-image

ডেস্ক রিপোর্ট:

গাজা থেকে মিশরে যাওয়ার গুরুত্বপূর্ণ রাফাহ ক্রসিংয়ের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী। রাতভর অভিযানের পর মঙ্গলবার সকালে ইসরাইলের ৪০১তম আর্মড ব্রিগেড পূর্ব রাফাহর সালাহ-আ-দিন ক্রসিংটিকে রাস্তা থেকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

রাফাহ ক্রসিংয়ের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী বলেছে, হামাসের সন্দেহভাজন অবস্থানগুলোকে লক্ষ্য করে স্থল সেনা এবং বিমান হামলা চালানো হয়েছে।

ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, তাদের একটি ট্যাংক ক্রসিং দিয়ে প্রবেশ করছে। এলাকাটির দখল নেওয়া ওই ট্যাংক থেকে ইসরাইলি পতাকা উড়তেও দেখা যায়।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলেছেন, রাতারাতি ট্যাংক ও বিমান হামলা চালিয়ে রাফাহ শহরের বেশ কয়েকটি এলাকা ও বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। অন্তত চারটি বাড়িতে আঘাত হানলে কমপক্ষে ২০ ফিলিস্তিনি নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হন।

গাজা বর্ডার ক্রসিংয়ের এক মুখপাত্র হিশাম এদওয়ান বলেন, রাফাহ সীমান্ত ক্রসিং বন্ধ হয়ে গেলে গাজা উপতক্যার বাসিন্দাদের মৃত্যু ছাড়া আর কোনো গতি থাকবে না। অবরুদ্ধ রাফাহ শহরে প্রবেশ ও মিশরে যাতায়াতের একমাত্র পথ এই ক্রসিং। এই ক্রসিং দিয়েই ত্রাণ সাহায্য পৌঁছায় গাজায়।

যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে গাজার ভেতরে ও বাইরের সব প্রবেশ পথের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে ইসরাইল।

ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস সোমবার জানিয়েছে, তারা যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবে রাজি হয়েছে। তবে ইসরাইল জানায়, প্রস্তাবটি তাদের শর্তগুলো পূরণ করেনি। এরপরই নতুন করে রাফাহ শহরে অভিযান শুরু করে তারা।

রাফাহ শহরে হামলা না চালাতে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমাদের আহ্বান উপেক্ষা করেই, সেখানে অভিযান চালানোর অনুমতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। গাজা উপত্যকার অন্তত ১০ লাখ শরণার্থী সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন। অবশ্য সোমবার রাফাহ শহরের কিছু এলাকা থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে দেওয়া হয়।

গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় ইসরাইলি হামলায় এখন পর্যন্ত ৩৪ হাজার ৭৩৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত কমপক্ষে ৭৮ হাজার ১০৮ জন। আর হামাসের হামলায় এক হাজার ১৩৯ ইসরাইলি নিহত হয়েছেন।

আর পড়তে পারেন