শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সদর দক্ষিণে নারীকে বিবস্ত্র করে অমানবিক নির্যাতন, আর্তনাদের সময় নির্যাতনকারীদের উল্লাস

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ১, ২০২৩
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

কুমিল্লা সদর দক্ষিণে প্রবাসীর বোনকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করেছে দুর্বৃত্তরা। তাকে ছুরি মেরে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ক্ষতবিক্ষত করা হয়েছে। মারধর অত্যাচারের সময় ভুক্তভোগী যখন আর্তনাদ করছিলেন তখন অট্টহাসি আর উল্লাসে মেতেছিল নির্যাতনকারীরা।

এছাড়া চিৎকার করলে তার মুখে এলোপাতাড়ি চড়থাপ্পড় ও মুখে কাপড় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। একপর্যায়ে পিপাসায় কাতর হয়ে পড়েন ভুক্তভোগী প্রবাসীর বোন।

প্রবাসীর বোনকে গুরুতর আহত অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সদর দক্ষিণ মডেল থানার এসআই আলমগীর হোসেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার প্রবাসীর মা বাদী হয়ে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় চারজনকে আসামি করে করে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলায় আসামি করা হয়েছে- খোরশেদ মিয়ার ছেলে হানিফ মিয়া (৩০), হাসান (১৯), সালমা আক্তারসহ (২৫) চারজন।

মামলার বাদী বলেন, হানিফ মিয়া আমার ছেলেকে ওমান নিয়ে ভালো চাকরি দেবে বলে ৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা নেন; কিন্তু তিনি চাকরিও দেন নাই টাকাও ফেরত দেন নাই। এ বিষয় নিয়েই মূলত ঘটনা ঘটেছে।

মামলার বাদী বলেন, ১নং আসামি বিদেশ থাকা কালে আমার ছেলেকে বিদেশ নেওয়ার ব্যাপারে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ক্ষিপ্ত হয়ে আমার ছেলেকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুসি ও লাঠি দিয়ে মারধর করে। ছেলের চিৎকারে আমার মেয়ে ঘর থেকে বের হয়ে আসলে আসামিরা তাকে বিবস্ত্র করে ফেলে নির্যাতন করতে শুরু করে। তাকে হত্যার উদ্দেশ্য পেটের ডান পাশে এবং বুকে ও বুকের বাম পাশে একাধিক ছুরিকাঘাত করে। মেয়ের চিৎকারে অন্যরা ছুটে আসলে নির্যাতনকারীরা চলে যায়। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এক আসামিকে গ্রেফতার করেছি। মামলাটি তদন্ত করছেন এসআই আলমগীর হোসেন।

আর পড়তে পারেন