শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সদর দক্ষিণে শালিসে সাক্ষী দেয়ার জের ধরে সন্ত্রাসী হামলা,আহত ৬ জন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৬, ২০১৭
news-image

সদর দক্ষিণ প্রতিনিধি:
কুমিল্লা সদর দক্ষিণের শ্রীনিবাসে সামাজিক সালিশ দরবারে সাক্ষী দেয়াকে কেন্দ্র করে এরশাদ মিয়ার অসহায় পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মহিলাসহ ৬ জনকে কুপিয়ে মারাত¦ক আহত করেছে ওই গ্রামের হাসান-হারুন ও তার বাহিনীর লোকজন। এ ঘটনায় এরশাদ মিয়া বাদী হয়ে হাছান, হারুনসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ করে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা দায়ের করে।
মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, জেলা সদর দক্ষিণ উপজেলার বিজয়পুর ইউনিয়নের শ্রীনিবাস গ্রামের চাঁন মিয়া ও হারুন মিয়ার মধ্যে বাড়ীর রাস্তার বিরোধ নিয়ে সালিশ দরবারে সাক্ষী দেয়াকে কেন্দ্র করে ওই গ্রামের মৃত:আম্বর আলীর ছেলে মো: হাসান ও তার ভাই হারুন মিয়া দলবল নিয়ে দা, ছেনি, চাপাতি,রডসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অসহায় এরশাদ মিয়ার বাড়ীতে অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা এরশাদ মিয়া, তার স্ত্রী সেলিনা বেগম, বোন জাহারা বেগম, ছোট ভাইয়ের স্ত্রী খুকি, ছেলে শিহাব ও ভাতিজা ইসমাইলকে কুপিয়ে মারাত্বক জখম করে। আহতদের কুমিল্লা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে এরশাদ মিয়ার স্ত্রী সেলিনা বেগমের অবস্থা আশংকাজনক। হামলার ভিডিও এবং স্থির চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়লে পুরো ফেইসবুক জুড়ে অবিলম্বে হামলাকারীদের বিচার ও তীব্র নিন্দার ঝড় ওঠে। স্থানীয় জানায়, দীর্ঘদিন যাবত শ্রীনিবাস গ্রামের হাছান, হারুন ও তার পরিবারের লোকজন ওই গ্রামের কেন্দ্রীয় মসজিদের জায়গা অবৈধ ভাবে দখল করে রেখেছে। এছাড়া দখল করা স্থানটিতে খানকায়ে ছালেহীয়া দ্বীনিয়া স্থাপিত করা হয়েছিল।
বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের জন্য হাছান সহ পরিবারকে সমাজ থেকে বের করে দেয় গ্রামবাসী। এ ঘটনায় মো: এরশাদ বাদী হয়ে শ্রীনিবাস গ্রামের মৃত আম্বর আলীর ছেলে মো: হাছান তার ভাই মো: হারুন, ইয়াছিন, মো: আবুল কালাম, মৃত আব্দুল মমিনের ছেলে মিজান, ইয়াছিন মিয়ার ছেলে রিয়াজুল হক জিয়া,মো: হারুন মিয়ার ছেলে জিলানী তার ভাই মো:রাব্বী, এয়াছিনের ছেলে মো: সাদ্দাম ও সহিদ সহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ধারা ১৪৩/৪৪৭/৩২৩/৩২৪/৩২৬/৩০৭/৩৭৯ দঃবিঃ। মামলা নং ৮। তাং ৪/৫/২০১৭ ইং।

আর পড়তে পারেন