শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

১৬ মাসের সন্তানকে নিয়ে হাজীগঞ্জে ট্রেনের নিচে ঝাঁপিয়ে মায়ের আত্মহত্যা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
এপ্রিল ২৫, ২০২৪
news-image

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ১৬ মাসের শিশুসন্তান আব্দুর রহমানকে সঙ্গে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়েছেন তাহমিনা আক্তার রিমা (২৪) নামে এক গৃহবধূ। বুধবার (২৪ এপ্রিল) বিকেলে চাঁদপুর-লাকসাম রেলপথের হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ৬নং ওয়ার্ড মকিমাবাদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

তাহমিনা আক্তার হাজীগঞ্জ উপজেলার ধড্ডা গ্রামের দেওয়ানজি বাড়ির রফিকুল ইসলামের মেয়ে। তিনি দুই সন্তানের জননী। এবং হাজীগঞ্জ উপজেলার ২নং বাকিলা ইউনিয়নের স্বর্ণা গ্রামের কুয়েত প্রবাসী মাসুদুজ্জামান হাওলাদারের স্ত্রী। প্রায় দেড় মাস আগে তাদের ডিভোর্স হয়েছিল। এই দম্পতির ৪ বছর বয়সী আরো একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা মহসিন মোল্লা জানান, তাহমিনার সাথে স্বর্ণা গ্রামের মাসুদের পারিবারিকভাবে বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের নানা বিষয়ে মনোমালিন্য হয়। এর মধ্যে তাদের সংসারে দুটি সন্তান জন্ম নেয়। কিছুদিন যেতেই দুজনের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ প্রকট আকার ধারণ করলে দেড় মাস আগে তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়। তাহমিনা তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। ঘটনার দিন তাহমিনা তার মাকে হাজীগঞ্জ বাজারে আসার কথা বলে বের হয়। পরে শুনতে পাই ট্রেনে কাটা পড়েছে। ঘটনাস্থলে এসে দেখা যায় তাহমিনা ও তার ১৬ মাস বয়সী শিশু সন্তান ট্রেনে কাটা পড়েছে।

চাঁদপুর রেলওয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ হোসেন বলেন, তাহমিনা সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে মৃত্যুর আগে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। এতে লেখা ছিল “আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়, তার মেয়েকে যেন সবাই দেখে রাখে”। তিনি আরও জানান, আমরা ঘটনাস্থল থেকে মা ও শিশুর প্রাথমিক সুরতহাল করেছি। মূলত এটি আত্মহত্যা নাকি দুর্ঘটনা, তা তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে। মানুষ বিভিন্ন ধরনের কথা বলতেই পারে কিন্তু আমরা তদন্ত করে সঠিক তথ্য উদঘাটন করবো।

আর পড়তে পারেন