বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চান্দিনায় দেয়াল ভেঙে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ও বসত ঘরে চুরি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
news-image

চান্দিনা প্রতিনিধি:

রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে উপজেলা সদরের চান্দিনা মধ্য বাজারে মেসার্স জুটন চন্দ্র সাহার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বরকরই ইউনিয়নের ফতেহপুর গ্রামে একটি বসত ঘরে চুরির ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী জুটন চন্দ্র সাহা জানান, দোকানের পেছনের দেয়াল ভেঙে ভেতরে তিনটি দরজা ও একটি কলাপসিবল গেইট ভেঙে দোকানে প্রবেশ করে চোরের দল। দোকানে থাকা নগদ ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ও ৪ লাখ টাকা মালামাল লুট করে নেয়। সকালে দোকান খুলে আমি টের পেয়ে পুলিশকে জানাই পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসেছিল।

একই রাতে বরকরই ইউনিয়নের ফতেহপুর ইয়াকুব আলীর ঘর থেকে ২টি দামি মোবাইল, স্বর্ণালঙ্কার সহ ১ লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি হয়।

এদিকে গত ৯ ফেব্রুয়ারী রাতে মাইজখার ইউনিয়নের মাইজখার পূর্ব পাড়ায় আবু মুসার বসত ঘরে চুরির ঘটনা ঘটে। তার ঘর থেকে নগদ ২০ হাজার টাকা, লকেট সহ ১টি স্বর্ণের চেইন, ২টি মোবাইল, স্বর্ণের ১ জোড়া কানের দুল, ২ শত রিয়াল সহ মালামাল লুট করে নেয়। একই রাতে পার্শ্ববর্তী মো. শামসু মিয়ার বসতঘর থেকে নগদ ১৫ টাকা, স্বর্ণের ১ জোড়া কানের দুলসহ মালামাল লুটে নেয়। এঘটনায় চান্দিনা থানার এসআই মো. জহিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

গত ৮ই ফেব্রুয়ারি রাতে চান্দিনা বাজারের মোজাম্মেল এর ডিম দোকানে চুরির ঘটনা ঘটে। এসময় তার দোকান থেকে কোয়েল পাখি ও বিভিন্ন ডিম নিয়ে যায়।

এছাড়াও গত এক মাসে চান্দিনায় বেশ কয়েকটি চুরির ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্য গত ৩ ফেব্রুয়ারী নবাবপুর বাজারের ফয়সাল স্টোরে চুরির ঘটনা ঘটে। এসময় নগদ ২ লাখ ৩৮ হাজার ৬শ টাকা, একটি আইফোন, কানের জিনিস সহ মোট ৬ লাখ ৭ শ টাকার মালামাল লুট। এব্যাপারে ওই এলাকার বিট অফিসার চান্দিনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জালাল উদ্দিন আহম্মেদ জানান, লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি, এসময় আমি ট্রেনিংয়ে ছিলাম। তবে ঘটনা শুনেছি। চোর সনাক্তের চেষ্টা চলছে।

এর আগে ২১ জানুয়ারি মাইজখার ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির বাবুল এর বসত ঘরে চুরির ঘটনা ঘটে। এসময় তার ঘর থেকে ৭০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নেয়।

এছাড়াও মাইজখার ইউনিয়নের মেহার গ্রামের শাহজালাল এর ঘরে চুরি হয়। একই গ্রামের সাদেক হোসেনের ঘরে ১০-১৫ দিন আগে চুরির ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আহম্মদ সনজুর মোরশেদ জানান, ইতোমধ্যে আমরা ৫-৬ জন চোরকে আটক করেছি। বেশকিছু মালামাল উদ্ধার হয়েছে। গত রাতের ঘটনায় পুলিশ তদন্ত করছে।

আর পড়তে পারেন