All posts by jitu

প্রকাশিত সংবাদে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

গত ১৬ এপ্রিল কুমিল্লা থেকে প্রকাশিত আঞ্চলিক দৈনিক ’আজকের কুমিল্লা’য় ঈদ পুনর্মিলনীতে জামায়াত নেতাদের সাথে আওয়ামী লীগ নেতার মত বিনিময় শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবী করেছেন আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য, তিতাস উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন পলাশ।

প্রকাশিত সংবাদের উল্লেখ করা হয়, তিতাস উপজেলা সমাজসেবা সংগঠনের নামে ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে জেলা ও উপজেলা জামায়াত নেতাদের সাথে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য, তিতাস উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন পলাশের মতবিনিময় করার অভিযোগ উঠেছে। তবে দেলোয়ার হোসেন পলাশ এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলেছেন। সংবাদে আরও উল্লেখ করা হয় “তিতাস উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের কয়েকজন নেতাকর্মী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, এটা সংগঠনের ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠানের ব্যানারে মূলত জামাতের বর্ধিত সভা ছিল, সেখানে আওয়ামী লীগের একজন পদধারী রাজনীতিবিদ হয়ে পলাশের উপস্থিত থাকাটা মেনে নেয়া যায় না।”

তিনি বলেন, সামাজিক সংগঠনের ব্যানারে আমি জনপ্রতিনিধি হিসেবে ঈদ পুনর্মিলনী/ওয়াজ-মাহফিলের মত সামাজিক অনুষ্ঠানে যাওয়ার অধিকার রাখি। আর আমার উপজেলার জনগণের স্বার্থ এবং মঙ্গলের জন্য যেকোনো কাজ করতে আমি বদ্ধপরিকর। সেজন্য তিতাস উপজেলার শান্তি ও উন্নয়নের জন্য আমি নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছি।

আমি জেলা পরিষদের সদস্যদের পুনর্মিলন শেষে ঢাকা ফেরার পথে স্থানীয় কিছু গণ্যমান্য ব্যক্তি দেখা করে যাওয়ার অনুরোধ করলে সেখানে উপস্থিত হয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করি। এটি কোন রাজনৈতিক মতবিনিময় সভা ছিল না।

তিন দশক পর ঈদ পূণর্মিলনে মিলিত হল কাদিয়ারভাঙ্গা ন্যাশনাল ক্লাবের সদস্যরা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দাউদকান্দি দক্ষিন অঞ্চলের নব্বই দশকের প্রভাবশালী রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন “কাদিয়ারভাঙ্গা ন্যাশনাল ক্লাব-এর প্রবীন সদস্যদের “তিন দশক পর ঈদ পূণর্মিলন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার বিকালে উপজেলার কাদিয়ারভাঙ্গা বেগম রহিমারোশন গার্লস মাদরাসা মাঠে এই অনুষ্ঠানে সম্পন্ন হয়।

অনুষ্ঠানে ক্লাবের সাবেক সভাপতি মো. নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক শরীফ প্রধানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, ইঞ্জিনিয়ার মো. কামরুল হাসান খোকন, ইঞ্জিনিয়ার মো. মনির হোসেন, মো. রোশন প্রধান, ফারুক হোসেন আখন্দ, আব্দুল আউয়াল, বিশ্বনাথ বনিক, মিজানুর রহমান মেম্বার, অ্যাডভোকেট রাসেল রাফী, জহিরুল ইসলাম, মো. নজরুল ইসলাম প্রধান, নূরআলম সরকার, মাওলানা ওমর ফারুক, সাংবাদিক নুরুন্নবী, মো. ফারুক আহাম্মেদ ও মাছুম বিল্লাহ আখন্দ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, হজু মিয়া মেম্বার, হান্নান মেম্বার, মকবুল মজুমদার, সেলিম সরকার, আব্দুল আউয়াল, আমির হোসেন মেম্বার, আলী আহাম্মেদ প্রধান, রুহুল আমিন প্রধান, মো. কবির হোসেন, আব্দুল লতিফ প্রধান, ক্ষুদিরাম ঘোষ, মনির হোসেন ভূঁইয়া, মোন্তাজ উদ্দিন মুহুরি, মহসিন আখন্দ, আব্দুল কাদির মজুমদার, আবু কালাম ভূঁইয়া

বাবুল ভূঁইয়া, শফিক প্রধান, সোলেমান প্রধান, সেলিম প্রধান, সুরুজ প্রধান, মাছুম প্রধান, হারুন প্রধান, নাজির প্রধান, বিল্লাল হোসেন রিয়াদ, ফারুক প্রধান, মনির হোসেন, বাবুল মিয়া, নুরুন্নবী প্রধান, নজরুল প্রধান, রাজু প্রধান, দিপু প্রধান, উজ্বল প্রধান, জাহিদুল ইসলাম, শান্ত প্রধান, মনির হোসেন ও শাহাবুদ্দিন প্রধান প্রমূখ।

উল্লেখ্য, ১৯৮৯ সালে কাদিয়ারভাঙ্গা ন্যাশনাল ক্লাবটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৯৩ সালের ২০ আগস্ট সর্বশেষ কমিটির নির্বাচন হয়। সে সময় ১০৮ সদস্যের মধ্যে ৩০ জন সদস্য মৃত্যুবরন করেছে। জীবিতদের অনেকে বৃদ্ধ ও অসুস্থ। ৩০ বছর পর মিলিত হতে পেরে তারা খুবই আনন্দিত। আলোচনা শেষে মৃতদের রুহের মাগফেরাত কামনা ও সকল সদস্যদের জন্য দোয়া মুনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

সালমানের বাসায় গুলিবর্ষণকারী দুই যুবক গ্রেপ্তার

ডেস্ক রিপোর্ট:

বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের বাড়িতে হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ভিকি সাহেব গুপ্ত এবং সাগর শিরিযোগেন্দ্র পাল নামের ওই দুই ব্যক্তিকে গুজরাটের ভুজ এলাকার একটি মন্দির থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। দুজনই বিহারের বাসিন্দা।

মুম্বাই পুলিশের দাবি, তারা গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোইয়ের দলের সদস্য। ভিকি সাহেব এবং শিরিযোগেন্দ্র কয়েকদিন আগে মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলার একটি জায়গা থেকে দুটি বাইক ভাড়া নেন। এরপর সালমানের খামারবাড়ি পানভেল এলাকার ভাড়াবাড়িতে বাইক দুটো এনে রাখেন তারা। ঘটনার দিন রোববার ভোরে ওই বাইকে করেই সালমানের গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের সামনে এসে চার রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে যান তারা, যে দৃশ্য ধরা পড়েছে সালমানের বাড়ির সিসি ক্যামেরায়।

এই ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পরেই হামলার দায় স্বীকার করে নতুন আরেকটি হুমকি দিয়েছেন গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই। মূলত এরপরেই নড়েচড়ে বসে মুম্বাই পুলিশ। গ্রেপ্তার করেছে অভিযুক্ত দুজনকে। যাদের একজনের বয়স ২৫ বছর, অপরজনের ২২।

ফেসবুক পোস্টে গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোইয়ের ভাই আনমোল বিষ্ণোই লেখেন, ‘আমদের ওপর হওয়া অত্যাচারের নিষ্পত্তি চাই। যদি তুমি সরাসরি যুদ্ধের ময়দানে নামতে চাও, তাই সই। আজ যা হয়েছে, সেটা শুধু ট্রেলার ছিল সালমান খান। যাতে তুমি বুঝতে পারো, আমরা চাইলে কতদূর যেতে পারি। এটাই ছিল তোমাকে দেওয়া শেষ সুযোগ। এরপর গুলিটা তোমার বাড়ির বাইরে চলবে না। দাউদ ও ছোটা শাকিল নামের যে দুইজনকে তুমি ভগবান মানো, সেই নামের দুটি কুকুর পুষেছি বাড়িতে। বাকি বেশি কথা বলার মানুষ আমি নই। জয় শ্রী রাম।’

এদিকে সালমানের বাড়িতে হামলার পর গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের বাইরে ক্রাইম ব্রাঞ্চের ১০টি দল মোতায়েন করে মুম্বাই পুলিশ। এর আগেও গত বছরের মার্চ মাসে সালমান খানকে হুমকি দিয়ে প্রাণে মেরে ফেলার একটি ইমেইল আসে। অভিনেতার পরিণতিও সিধু মুসেওয়ালার মতোই হবে, এমন বার্তাই লেখা ছিল সেই মেইলে।

পরবর্তীতে মুম্বাই পুলিশ লরেন্স বিষ্ণোই ও গোল্ডি ব্রারের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২০-বি (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র), ৫০৬-২ (অপরাধমূলক ভীতি প্রদর্শন) এবং ৩৪ (সাধারণ উদ্দেশ্য) ধারায় এফআইআর দায়ের করে।

নেতানিয়াহুর দাপট হিটলারকেও ছাড়িয়ে যাবে: ওবায়দুল কাদের

ডেস্ক রিপোর্ট:

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ইসরাইলের নতুন করে ইরান আক্রমণ সিদ্ধান্ত এবং নেতানিয়াহুর দাপট হিটলারকেও ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে হয়। নেতানিয়াহু এ যুগের হিটলার।

মঙ্গলবার সকালে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, নেতানিয়াহু হিটলারের চেয়ে ভয়ংকর ভূমিকায় আবির্ভূত হয়েছেন।

এ সময় বিএনপির অনেকে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি প্রকাশ্যে উপজেলা নির্বাচনের বিরোধিতা করেছিল। আমাদের জানা মতে, স্থানীয়পর্যায়ে তাদের অনেকেই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

উপজেলা নির্বাচনের একজন প্রার্থীকে অপহরণ করা প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, এত বড় একটা নির্বাচন, তাতে টুকটাক কিছু ঘটনা যে ঘটবে না, ঘটেনি তা নয়। তবে তা নিয়ন্ত্রণে আমরা কাজ করছি। প্রশাসনিকভাবে আমরা সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছি।

স্থায়ী দোকানে বিক্রি হবে টিসিবির পণ্য: প্রতিমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট:

ট্রেড করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) পণ্য বিক্রি ও সরবরাহ নিশ্চিত করতে স্থায়ী দোকান তৈরি করা হবে জানিয়ে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেছেন, টিসিবি সাধারণত একত্রে চার থেকে পাঁচটি পণ্য সরবরাহ করে। কিন্তু অনেক সময় এমন হয় একটি পণ্য পৌঁছাতে দেরি হলে ডিসিরা বাকি পণ্যগুলো আটকে রাখেন, সবগুলো পণ্য একত্রে দেবেন বলে৷ কিন্তু যখন ফিক্সড দোকান করে দেবো তখন যে মাল যখনই দোকানে চলে যাবে তখনই সেই মাল বিক্রি শুরু হবে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত মিট দ্য রিপোর্টার্স অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী। ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি সৈয়দ শুকুর আলী শুভ।

মাঝে মাঝে টিসিবির পণ্য সরবরাহে সমস্যা হচ্ছে, এ বিষয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, জরুরিভিত্তিতে পণ্য সরবরাহ ও সেবা নিশ্চিত করতে টিসিবি শুরু হয়েছিল। পরে এটাকে একটা কাঠামোতে নিয়ে আসতে আমরা কাজ করছি। আমাদের নিজস্ব কোনো গুদাম ছিল না। যে কোনো পণ্যের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ রাখতে সেটার বাফার স্টক থাকা দরকার৷

তিনি বলেন, বাফার স্টকের জন্য আমাদের গুদাম দরকার। চট্টগ্রামে আমরা ৪০ হাজার স্কয়ার ফুটের একটি নতুন গুদাম করেছি। বিভিন্ন বিভাগীয় শহরে গুদাম করছি। চেষ্টা করবো দ্রুত যেন বাফার স্টক তৈরি করতে পারি। এছাড়া টিসিবিতে আমাদের চার-পাঁচটি পণ্য দেওয়া হয়, অনেক সময় একসঙ্গে সব পণ্য না পেলে ডিসিরা পণ্য দেন না। এজন্য আমরা নির্দিষ্ট দোকান তৈরি করে দেবো, যাতে যখন যে মাল আসবে তখন সেটা বিক্রি শুরু করতে পারবে।

তিন কারণে মাঝে মাঝে টিসিবির পণ্য সরবরাহে সমস্যা হচ্ছে উল্লেখ করে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের তিনটা কারণ এক হলো, বাফার স্টক না থাকায় আমাদের পণ্য কিনেই বিক্রি করতে হচ্ছে। বিভাগীয় পর্যায়েও আমাদের বাফার স্টক নেই। দ্বিতীয় আমাদের সংরক্ষণের জন্য স্টোরেজ নেই এবং ডিলারদেরও ১৫ দিন বা একমাস পণ্য রাখার মতো নিজস্ব কোনো ব্যবস্থা নেই। এই তিন কারণে টিসিবির পণ্য সরবরাহে ৭ বা ১০ দিন আগে-পিছ হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, যেখানে যে জিনিস ভালো পাওয়া যায় আমরা সেটা সংগ্রহ করে টিসিবির মাধ্যমে নিম্ন মধ্যবিত্ত, মধ্যবিত্ত এবং নির্দিষ্ট আয়ের মানুষের মধ্যে ন্যায্যমূল্যে বিতরণ করবো। টিসিবির পণ্য হতদরিদ্র মানুষের জন্য নয়। কারণ ৬০০ থেকে এক হাজার টাকা পণ্য ক্রয় করার ক্ষমতা তাদের নেই। এজন্য এমন মানুষদের সম্পৃক্ত করবো যাতে নিম্ন, মধ্যবিত্ত ও নির্দিষ্ট আয়ের মানুষ তাদের একটু সুযোগ সুবিধা দিতে পারি।

তিনি বলেন, আমরা আরেকটি বিষয়ে নজর দিচ্ছি সেটা হলো পণ্য বহুমুখীকরণের মাধ্যমে রপ্তানি বাড়ানো। এত কিছুর মধ্যেও গত তিন মাসে, প্রতি মাসে আমরা রপ্তানি বাড়িয়েছি। এখন আমরা আমদানিতেও বহুমুখীকরণ করতে চাচ্ছি। যাতে একটি স্থান বা দেশের ওপর নির্ভর না থাকতে হয়। আমরা অনেক দেশের সঙ্গে যোগাযোগ করছি।

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২৬ সালের পর স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে (এলডিসি) উত্তরণ ঘটবে। এজন্য আমরা তিন বছর বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাবো। ফলে আগামী পাঁচ বছর আমাদের জন্য আরেক চ্যালেঞ্জিং। একই সঙ্গে আমরা যে সুবিধাগুলো পেতাম সেটা এলডিসি হলে পাবো না। সেজন্য এখনই আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। আমাদের রপ্তানি বাড়াতে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতে হবে।

স্থায়ী দোকান থেকে বিক্রি হবে টিসিবির পণ্য : বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

তিনি বলেন, এ পর্যন্ত ছয়টি দেশের বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। তারা আমাদের সঙ্গে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। এ পর্যন্ত অনেকগুলো দেশের সঙ্গে এফটিএ করার জন্য আলোচনা করেছি।

তিনি আরও বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বড় কাজ হলো দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করা, এর সঙ্গে আমদানি-রপ্তানি, দ্বিপাক্ষিক পলিসি নিয়ে কাজ করছি। ট্যারিফ পলিসি নিয়ে কাজ চলছে, আমদানি-রপ্তানি নীতিমালা চূড়ান্ত হয়েছে। অফিসিয়ালি লঞ্চ করবো। আমরা বহুমুখী কাজ করছি। সেজন্য আপনাদের সহযোগিতা চাই।

এলডিসি উত্তরণের পরে আমাদের দেশের শিল্পগুলো রক্ষায় কি উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এমন প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে গবেষণার জন্য প্রতিটি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় কাজ করছে। আমরা শুধু কি কি পরিবর্তন আসবে সেটা করে দেবো। বাকি কাজগুলো সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের করতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের লোকাল শিল্প ও কর্মসংস্থার কথা মাথায় রেখেই আমরা ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্টসহ যা করি সেটা আমাদের একটি নীতিমালা আছে সে অনুযায়ী করবো, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে করবো। ফলে এলডিসি নিয়ে শঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। বুঝে শুনে এফটিএ করা হবে। এমনভাবে এফটিএ করা হবে না যাতে দেশীয় প্রতিষ্ঠান ক্ষতির সম্মুখীন হয়।

এলিডিসি হওয়ার পর ভর্তুকি বা সুবিধা কীভাবে দেওয়া হবে এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডব্লিউটিও’র আইন অনুযায়ী বাংলাদেশ ভর্তুকি দেবে না। বাংলাদেশ নিজেদের কৌশল মেনেই ভর্তুকি দেবে। এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে না যাতে দেশের লোকাল ব্যবসায়ীরা ক্ষতির মুখে পড়েন। ডব্লিউটিও কিছু বললেই মেনে নিতে হবে এমন নয়। ভারত তাদের কৃষি ভর্তুকি তুলে নেয়নি।

গরুর মাংস আমদানি নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, গরুর মাংসের আমদানি-রপ্তানির কোনো সিদ্ধান্ত বাণিজ্য মন্ত্রণালয় নেবে না। এটি প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে নেওয়া হবে। এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ভোক্তাবান্ধব নাকি ব্যবসায়ীবান্ধব এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সরকার ভোক্তাবান্ধব। আমরা ব্যবসায়ীদের সর্বোচ্চ সুবিধা দেবো যতক্ষণ তারা ভোক্তাকে সাহায্য করবে এবং রীতির মধ্যে থাকবে। আমরা জনগণের স্বার্থে কাজ করতে চাই। যাতে সাধারণ মানুষ সন্তুষ্ট থাকে।

ঈদ পূর্ণমিলনীতে জামায়াত নেতাদের সাথে আওয়ামী লীগ নেতার মতবিনিময়

বিশেষ প্রতিবেদন :

তিতাস উপজেলা সমাজসেবা সংগঠনের নামে ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে জেলা ও উপজেলা জামায়াত নেতাদের সাথে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য, তিতাস উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন পলাশের মতবিনিময় করার অভিযোগ উঠেছে। তবে দেলোয়ার হোসেন পলাশ এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলেছেন।

রবিবার দুপুরে কুমিল্লা বার্ডে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়।

এই অনুষ্ঠানের একটি ছবিতে দেলোয়ার হোসেন পলাশের ডান পাশে দাউদকান্দি উপজেলা জামায়াতের আমির মোঃ বাহালুল, বামে কুমিল্লা জেলা জামায়াতের সাধারণ সম্পাদক মোঃ এনামুল ও তিতাস উপজেলা জামাতের আমির মোঃ শামিম আহমেদকে দেখা যায়।

তিতাস উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের কয়েকজন নেতাকর্মী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, এটা সংগঠনের ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠানের ব্যানারে মূলত জামাতের বর্ধিত সভা ছিল, সেখানে আওয়ামী লীগের একজন পদধারী রাজনীতিবিদ হয়ে পলাশের উপস্থিত থাকাটা মেনে নেয়া যায় না।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য ও কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন পলাশ জানান, আমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ভিত্তিহীন। আমি একটা কাজে কুমিল্লা গিয়েছিলাম। এমন সময় আমার পরিচিত কয়েকজন মেম্বার আমাকে ফোন করে কুমিল্লা বার্ডে তিতাস উপজেলা সমাজসেবা সংগঠনের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে যেতে বলে । আমি জেলা পরিষদের সদস্য, আমি এসব মেম্বারদের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। তাই তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে যাই। সেখানে গিয়ে সবার সাথে কথা বলি এবং আমাদের অভিভাবক, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর ভূঁইয়ার তিতাস উপজেলা নিয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলি। পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দলের লোক থাকতেই পারে। আমি তো আর সবাইকে চিনি না। আমি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত, দলীয় পদ রয়েছে। জামায়াত ইসলামীর বর্ধিত সভায় আমার যাওয়ার তো প্রশ্নই উঠে না। মূলত এটা জামায়েত ইসলামির বর্ধিত সভা ছিল না, এটা তিতাসের একটা সংগঠনের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান ছিল। আমি তিতাস উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। আমি জনকল্যাণে কাজ করি, আমার বিরুদ্ধে কোন দুর্নীতি নেই। তাই আমার কোন দোষ খুজে না পেয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচারে ব্যস্ত একটি পক্ষ ।

মেয়ের সফল ক্যারিয়ার গড়তে ২০০ কোটি খরচ করছেন শাহরুখ খান!

ডেস্ক রিপোর্ট:

বলিউড বাদশা শাহরুখের কাঁধে এখন প্রচুর চাপ। একদিকে যেমন ছেলে আরিয়ানের ক্যারিয়ার সামলাতে পোশাকের কোম্পানি খুলে দিয়েছেন, তার পরিচালিত প্রথম সিরিজে টাকাও ঢালছেন অভিনেতা। এবার পালা মেয়ের। বলিপাড়ায় মেয়ে সুহানার মাটি শক্ত করার জন্য নাকি ২০০ কোটি টাকা খরচ করে সিনেমা প্রযোজনা করতে চলেছেন শাহরুখ।

পরিচালক জোয়া আখতারের হাত ধরে ইতোমধ্যেই নেটফ্লিক্সে ‘দ্য আর্চিস’ সিনেমা দিয়ে হাতে খড়ি হয়েছে সুহানার। তবে তার অভিনয় খুব একটা দাগ কাটতে পারেনি। উলটো সুহানাকে ঘিরে নানা ট্রোল নজরে এসেছিল। তবে ওসবকে পাত্তা দেননি সুহানা বা শাহরুখ। শাহরুখকন্যার এখন মন নতুন সিনেমায়।

প্রথমে জল্পনা ছিল সিদ্ধার্থ আনন্দের পরিচালনায় বড়পর্দায় জুটি বাঁধছে বাবা-মেয়ে। তার দিন কয়েক যেতেই শোনা গেল, সুজয় ঘোষের পরিচালনাতেই স্ক্রিন শেয়ার করবেন শাহরুখ খান ও তার মেয়ে সুহানা। তবে শাহরুখের সঙ্গে যৌথভাবে ছবিটি প্রযোজনা করবেন সিদ্ধার্থ আনন্দ।

প্রথমবার শাহরুখ-সুহানা একসঙ্গে। সেই সিনেমা নিয়ে যে অনুরাগীদের কৌতূহল তুঙ্গে থাকবে তা বলাই বাহুল্য। কোন ভূমিকায় দেখা যাবে শাহরুখকে?

জানা যায়, সুজয় ঘোষের এই স্পাই থ্রিলারে সুহানার চরিত্রকে আরও বলিষ্ঠ করার উদ্দেশে শাহরুখের জন্য বিশেষভাবে একটি চরিত্র ডিজাইন করা হয়েছে। গোয়েন্দার ভূমিকায় যেখানে বাদশাকন্যা থাকছেন, সেখানে কিং খানকে ‘হ্যান্ডলার’র চরিত্রে দেখা যেতে পারে। যিনি রহস্য সমাধানে সুহানাকে চালিত করবেন। সিনেমার প্রি-প্রোডাকশনের কাজ ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে। অপেক্ষা শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণার।

ফরিদপুরে সাতসকালে সড়কে ঝরলো ১৩ প্রাণ

ডেস্ক রিপোর্ট:

ফরিদপুরের কানাইপুরে বাস ও পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষে ১৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহত হয়েছেন আরও ৮ জন।

মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে ফরিদপুরের কানাইপুরের দিকনগর এলাকায় ফরিদপুর–খুলনা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিহতেরা সবাই পিকআপের যাত্রী। তবে নিহতদের এখনো পরিচয় পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, যাত্রীবাহী বাসটি ফরিদপুর থেকে যশোরের উদ্দেশে যাচ্ছিল। দিকনগরে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

করিমপুর হাইওয়ে থানার ওসি সালাউদ্দিন চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে হতাহতদের নাম ঠিকানা জানা সম্ভব হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে- একটি পরিবারের লোকজন পিকআপ ভাড়া করে ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছিলেন।

কুমিল্লায় মাই টিভির ১৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

মোস্তাফিজুর রহমান:

মাই টিভির ১৫ বছর পদার্পন উপলক্ষে কুমিল্লায় র‍্যালি-আলোচনা সভা ও কেক কেটে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে।

মাই টিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি আবু মুসার আয়োজনে আজ ১৫ এপ্রিল সোমবার সকালে কুমিল্লা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

কুমিল্লা ফটো সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ওমর ফারুকী তাপসের সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক ইত্তেফাকের কুমিল্লা প্রতিনিধি মো. লুৎফুর রহমান, এটিএন নিউজ ও এটিএন বাংলার কুমিল্লা প্রতিনিধি খায়রুল আহসান মানিক, আরটিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি মো. গোলাম কিবরিয়া, সাপ্তাহিক সীমান্ত সংবাদ ও ডেইলি অবজারভারের প্রতিনিধি মো. নজরুল ইসলাম দুলাল, রূপসী বাংলার প্রতিনিধি অশোক বড়ুয়া, টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি হুমায়ুন কবির রনি, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী এনামুল হক ফারুক, কুমিল্লা প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি ও দৈনিক জনকণ্ঠের কুমিল্লা প্রতিনিধি মীর শাহ আলম, দৈনিক ইনকিলাবের স্টাফ রিপোর্টার সাদিক হোসেন মামুন, দৈনিক আজকের কুমিল্লার সম্পাদক ইমতিয়াজ আহমেদ জিতু, কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক বাহার রায়হান, মানবজমিনের কুমিল্লা প্রতিনিধি মো. জাহিদ হাসান, বৈশাখী টিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি আনোয়ার হোসাইন, যমুনা টিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি মো. রফিকুল ইসলাম চৌধুরী খোকন, সমকালের কুমিল্লা প্রতিনিধি কামাল উদ্দিন, দৈনিক যুগান্তরের কুমিল্লা ব্যুরো আবুল খায়ের, নাগরিক টিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি দেলোয়ার হোসেন আকাইদ, ভোরের কাগজের স্টাফ রিপোর্টার মো. ফিরোজ হোসেন, যায়যায়দিনের কুমিল্লা প্রতিনিধি আব্দুল জলিল, চ্যানেল ২৪ এর কুমিল্লা প্রতিনিধি মো. জাহিদুর রহমান, জাগরনী টিভির জেলা প্রতিনিধি আশিকুর রহমান, আরটিভির প্রতিনিধি মো. সোহরাব সুমন, এনটিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি মাহফুজ নান্টু, আজকের পত্রিকা’র প্রতিনিধি জহিরুল হক বাবু, এশিয়ান টিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি মাহফুজ আনোয়ার সৌরভ, চ্যানেল এসের প্রতিনিধি রাজিব সাহা, ঢাকা ট্রিবিউনের কুমিল্লা প্রতিনিধি মহসীন কবির, রূপসী বাংলার নিজস্ব প্রতিনিধি সাইফুল সুমন, দৈনিক প্রতিদিনের বাংলাদের প্রতিনিধি মো. জাকির হোসেন, ডাক্তার ও লেখক ডা. আব্দুল আউয়াল সরকার, দুর্নীতির সন্ধানের প্রতিনিধি ম্যাক রানা, ঢাকা মেইলের কুমিল্লা প্রতিনিধি সাকলাইন জুবায়ের, ইনডিপেনডেন্ট টিভির ক্যামারাপার্সন মো. আমলগীর হোসেন, সদর দক্ষিণ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাজী দেলোয়ার মজুমদার, জাতীয় অর্থনীতির কুমিল্লা ব্যুরো মো. শাহিন হোসেন, দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ কুমিল্লা প্রতিনিধি মারুফ কল্প, দৈনিক আমাদের কুমিল্লার স্টাফ রিপোর্টার মোস্তাফিজুর রহমান,ময়নামতি টোয়েন্টি ফোর টিভির গিয়াস উদ্দিন দৈনিক বাংলাদেশ সমাচারের কুমিল্লা প্রতিনিধি এনসি জুয়েল, বিজনেস বাংলাদেশর মহানগর প্রতিনিধি আয়েশা আক্তার, বাংলাদেশ সমাচারের প্রতিনিধি মো. সাফি, দৈনিক আলোকিত সকালের মহানগর প্রতিনিধি হাফেজ তামিম হোসেন প্রমুখ।

তৃতীয় ধাপের উপজেলা ভোটের তফসিল আগামী ১৭ এপ্রিল

ডেস্ক রিপোর্ট:

আসন্ন ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের তৃতীয় ধাপের নির্বাচনের তফসিল আগামী ১৭ এপ্রিল ঘোষণা করা হতে পারে। নির্বাচন কমিশন সূত্র এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, আগামী বুধবার (১৭ এপ্রিল) কমিশনের ৩১তম বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল সভাপতিত্ব করবে। রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনের সম্মেলন কক্ষে বেলা ১১টায় কমিশন সভাটি অনুষ্ঠিত হবে।

সভার আলোচ্য সূচিতে উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপের তফসিলের বিষয়টি রাখা হয়েছে। বৈঠকে কমিশন যদি সিদ্ধান্ত নেয়, তাহলে তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হতে পারে।

এর আগে উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। আগামী ৮ মে প্রথম ধাপে ১৫২টি উপজেলায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে আর দ্বিতীয় ধাপের ১৬১ উপজেলার ভোটগ্রহণ করা হবে ২১ মে। আগামী ২৩ মে প্রথম ধাপের ভোট অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছিল কমিশন। এবারের উপজেলা নির্বাচনে বাধ্যতামূলকভাবে অনলাইনে মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার বিধান রেখে নতুন বিধিমালা করেছে ইসি। সেই অনুযায়ী প্রথম ধাপের মনোমন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ আজ (১৫ এপ্রিল)।