Tag Archives: আরব পরিবার

ইসরায়েলে পাঁচ আরব পরিবারের সদস্যকে গুলি করে হত্যা

ইসরায়েলে পাঁচ আরব পরিবারের সদস্যকে গুলি করে হত্যা

ডেস্ক রিপোর্ট:

ইসরায়েলে পাঁচ আরব পরিবারের সদস্যকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। দেশটির নাজারেথের নিকটবর্তী আরব শহর ইয়াফা আন-নাসেরিয়েতে একটি গাড়ি ধোয়ার সময় বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটে। যা কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে মারাত্মক ঘটনা বলে ধারণা করা হচ্ছে। পুলিশ বলছে, স্থানীয় অপরাধী চক্র এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

এদিকে ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যম বলছে, দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদের সঙ্গে সম্পর্কিত হতে পারে ঘটনাটি।

ইসরায়েলে আরব সম্প্রদায়ের মধ্যে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা বেড়েই চলছে। এ নিয়ে অভিযোগ উঠেছে, প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর ধর্মীয়-জাতীয়তাবাদী সরকার রক্তপাতকে উপেক্ষা করে যাচ্ছে। তার সরকার এই সহিংসতা বন্ধে কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

ইসরায়েলের আরব সংখ্যালঘুদের প্রতিনিধিত্বকারী একটি দলের নেতা মনসুর আব্বাস বলেছেন, ‘ইসরায়েলের সক্ষমতা রয়েছে। ইসরায়েলি সরকার বোঝে কী করা দরকার। সবাই বোঝে কী করা দরকার। সরকারের কেবল এই সহিংসতা বন্ধের কোনো ইচ্ছা নেই এবং কোনো নেতৃত্ব নেই।’

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, তিনি হতবাক এবং তার সরকার হত্যা বন্ধে বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, ‘অপরাধী সংগঠনের বিরুদ্ধে, এই খুনের বিরুদ্ধে আমি ইসরায়েল পুলিশকে সাহায্য করার জন্য শিন বেট (নিরাপত্তা পরিষেবা) আনতে বদ্ধপরিকর।’ পুলিশ বাহিনী বলেছে, তদন্ত শুরু করেছে এবং সন্দেহভাজনদের ধরার চেষ্টা চলছে।

এ ঘটনার ঠিক আগের দিন ইসরায়েলের নাজারেথের কাছের আরেকটি শহর কাফর কান্নায় তিন বছর বয়সী মেয়েশিশু এবং তার এক আত্মীয় পৃথক বন্দুক হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গেও একটি অপরাধী চক্র জড়িত বলে পুলিশ ধারণা করছে।

ইসরায়েলের আরব সংখ্যালঘুরা দেশটিতে মোট জনসংখ্যার প্রায় এক-পঞ্চমাংশ। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দেশটির বেশির ভাগ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে এই আরব সম্প্রদায়ের মধ্যে। ‘আব্রাহাম ইনিশিয়েটিভস’ নামে একটি ইসরায়েলি আরব এবং ইহুদি সমতার প্রচারকারী দল অনুসারে, এই বছর এ পর্যন্ত ৯৭ জন নিহত হয়েছে। যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় তিন গুণ বেশি। বেশির ভাগ হত্যাকাণ্ডের শিকার যুবকরা। আবার অনেক যুবক অবৈধ বন্দুক, পারিবারিক কলহ এবং সংগঠিত গ্যাংয়ের সঙ্গে যুক্ত।

ইসরায়েলের বিরোধী দলের নেতা সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইয়ার ল্যাপিড বলেছেন, হত্যার সংখ্যা যে হারে বৃদ্ধি পেয়েছে তা অগ্রহণযোগ্য। প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুকে এটি বন্ধের জন্য ব্যক্তিগতভাবে আহ্বান জানিয়েছেন। আরেকজন বিশিষ্ট বিরোধী রাজনীতিবিদ বেনি গ্যান্টজ। তিনি সাবেক সেনাপ্রধান এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। তিনি অতি-ডানপন্থী জাতীয় নিরাপত্তা মন্ত্রী ইতামার বেন-গভিরকে বরখাস্ত করার আহ্বান জানিয়েছেন।

গ্যান্টজ বলেছেন, ‘বেন-গভির বর্ণবাদে আগে থেকেই বিশ্বাসী। এ ছাড়া তিনি আরববিরোধী বক্তব্যের জন্যও সুপরিচিত। তিনি এই জটিল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছেন না এবং তিনি আসলেও নিয়ন্ত্রণে আনতে আগ্রহী কি না, তা নিয়ে সন্দেহ আছে।’ তবে বেন-গভির এই অবস্থার জন্য কয়েক দশকের অবহেলা এবং শাসনের ধরনকে দায়ী করেছেন। তিনি শিন বেটকে (নিরাপত্তা পরিষেবা) আনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেছেন।

তাত্ত্বিকভাবে, ইসরায়েলি আরব বা ইসরায়েলের ফিলিস্তিনি নাগরিকদের ইহুদি নাগরিকদের মতো সমান অধিকার রয়েছে। তবে ইসরায়েলি আরব বা ইসরায়েলের ফিলিস্তিনি নাগরিক রাষ্ট্রীয় বৈষম্যের অভিযোগ করেছে। এই ঘটনায় নিহতদের শোকাহত পরিবার এবং আরব কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার জন্য তাদের আশপাশের এলাকাগুলোতে স্থানীয় সহিংসতা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সূত্র : বিবিসি