Tag Archives: ইতালি

সঙ্গীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটালেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী

সঙ্গীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটালেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট:

বিকৃত যৌনাচার সম্পর্কিত মন্তব্যের জেরে— নিজের সঙ্গীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটিয়েছেন ইতালির নারী প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি।

শুক্রবার (২০ অক্টোবর) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিচ্ছেদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মেলোনি। তিনি বলেছেন, ‘আন্দ্রে গিয়ামব্রুনোর সঙ্গে আমার সম্পর্ক, যেটি প্রায় ১০ বছর স্থায়ী ছিল, এখানেই শেষ।’

দুইদিন আগে আন্দ্রে গিয়ামব্রুনোর একটি অডিও ফাঁস হয়। পেশায় সাংবাদিক গিয়ামব্রুনো সংবাদমাধ্যম মিডিয়াসেটের একটি টকশোতে নিজের নারী সহকর্মীর সঙ্গে বিরতির সময় বিকৃত যৌনাচার নিয়ে কথা বলেন। যেগুলো পরবর্তীতে অডিও আকারে ফাঁস হয়।

প্রথম অডিওতে তাকে নিজের চুল নিয়ে কথা বলতে শোনা যায়। এতে তিনি বলেন, মানুষ তার চুলের স্টাইল নিয়ে কথা বলেন এ বিষয়টি তার ভালো লাগে না। এরপর নারী সহকর্মীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘কেন তোমার সাথে আমার আগে দেখা হয়নি।’ দ্বিতীয় অডিওতে তাকে বলতে শোনা যায়, ‘চলো থ্রিসাম, ফোরসাম করি।’ এরমাধ্যমে খুব সম্ভবত নিজের টকশোতে আরেকজন নারী সহকর্মীকে নেওয়ার বিষয়টি বুঝিয়েছেন তিনি।

তবে বিকৃত যৌনাচার বিষয়ক মন্তব্য করার পর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন আন্দ্রে গিয়ামব্রুনো। এরপরই তার সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটানোর সিদ্ধান্ত নেন প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি।

গত সেপ্টেম্বরেও নারীদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন গিয়ামব্রনো। তিনি বলেছিলেন, নারীরা যদি ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচতে চায় তাহলে তাদের মদ্যপান ছাড়তে হবে। ওই সময় এ নিয়ে সমালোচনার জন্ম হলে মেলোনি তার পক্ষে সাফাই গেয়েছিলেন। কিন্তু এবার তিনি নিজের সাংবাদিকর সঙ্গীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটানোর সিদ্ধান্ত নিলেন।

এদিকে জর্জিয়া ও গিয়ামব্রুনো দম্পতির সাত বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

পদত্যাগ করলেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী

 

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

কয়েকদিন ধরে চলা রাজনৈতিক অচলাবস্থার মধ্যে পদত্যাগ করেছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাগি।

জোট গঠন করে প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন ইউরোপীয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক প্রধান মারিও দ্রাগি। কিন্তু তার জোটে ফাটল দেখা দেয়।

এ ফাটল ঠিক করার চেষ্টা করছিলেন মারিও দ্রাগি। কিন্তু সেটি সম্ভব না হওয়ায় বৃহস্পতিবার পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এরফলে পতন হলো মারিও দ্রাগির সরকারের।

এখন খুব শীগ্রই দেশটিতে আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বলা হচ্ছে সেপ্টেম্বরের শেষে হতে পারে দেশটির নতুন সাধারণ নির্বাচন।

মারিও দ্রাগি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রেসিডেন্ট সার্গিও মাতেরেল্লার কাছে তার পদত্যাগপত্র তুলে দিয়েছেন।

এখন ভোট হওয়ার আগ পর্যন্ত মারিউ দ্রাগি এবং তার সরকার কেয়ারটেকার সরকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাবেন।

ইতালিতে রাজনৈতিক অচলাবস্থার সূচনা হয় গত সপ্তাহে। ওই সময় প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাগি জ্বালানি ব্যয় এবং মূদ্রাস্ফীতি ঠেকাতে ২৬ বিলিয়ন ডলারের একটি বিল উত্থাপন করেন।

কিন্তু তার জোট দল ফাইভস্টার মুভমেন্ট এ বিলের ওপর ভোট দেওয়ার বিষয়টি বয়কট করে। তাদের কথা এই অর্থ পর্যাপ্ত না। তাছাড়া এই অর্থ দিয়ে রোমে একটি ময়লা ভ্ষ্মীভূতকারী তৈরি করার বিধান রাখা হয়েছিল। এটি নিয়েও খুশি ছিল না ফাইভস্টার মুভমেন্ট।

জোটের অন্য দলগুলো চেয়েছিল মারিউ দ্রাগির নেতৃত্বে নতুন করে সরকার গঠন করতে।

এমনকি বিশ্ব নেতারাও দ্রাগির প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন যেন তিনি পদত্যাগ না করেন। কারণ ইতালির স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে এবং ইউক্রেনে ইতালির সমর্থন অব্যহত রাখতে মারিউ দ্রাগি বড় ভূমিকা রাখতে পারতেন বলে মনে করেন তারা।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

ফুটবল ঈশ্বর ম্যারাডোনার নামে ব্যাংকনোট চালু করলো ইতালি

স্পোর্টস ডেস্ক :

সারা বিশ্বকে কাঁদিয়ে গত বছরের ২৫ নভেম্বর না ফেরার দেশে পাড়ি জমান ফুটবলের রাজপূত্র দিয়েগো ম্যারাডোনা। ম্যারাডোনার নামে আর্জেন্টিনা কর্তৃপক্ষ ব্যাংক নোট প্রকাশ করবে এমন খবর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এরইমধ্যে ইতালির ক্যাস্টেলিনো ডেল বিফার্নো নামে ছোট্ট শহরে প্রকাশ পেল ফুটবল রাজপূত্রের ছবি ও নামঙ্কিত ব্যাংক নোট। ইতোমধ্যে তারা ম্যারাডোনার নামে ব্যাংক নোট ইস্যু করেছে।

এ উদ্যোগের মূল পরিকল্পনাকারী হলেন ওই শহরের মেয়র এনরিকো ফ্রাটাঙ্গেলো। তিনি জানান, ম্যারাডোনাকে দক্ষিণ গোলার্ধের একজন নায়ক মনে করি আমরা। আর্জেন্টিনা আমাদের কাছে একজন সত্যিকারের নায়ককে পাঠিয়েছিল। যিনি সব সময়ই দরিদ্র মানুষের পক্ষে দাঁড়িয়েছেন এবং কখনোই ভুয়া কথা বলেননি।

তিনি আরও জানান, দিয়েগোই আমাদেরকে, বিশেষ করে দক্ষিণ ইতালি এবং দক্ষিণ গোলার্ধের মানুষদের চিন্তা-চেতনাকে উন্মুক্ত করে দিয়েছেন। আমাদেরকে চিন্তায় প্রোথিত করে দিতে পেরেছেন যে, সব মানুষই সমান। সুতরাং, চীর অমর হয়ে থাকুন ম্যারাডোনা, চির অমর হয়ে থাকুক স্বাধীনতা জানান ওই মেয়র।

তবে ম্যারাডোনার ছবি দিয়ে তৈরি করা ওই ব্যাংক নোট পুরো ইতালিতে চলবে না। শুধুমাত্র ওই নির্দিষ্ট শহরটিতেই পণ্য কেনা-বেচার ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হবে বিশেষ ব্যাংক নোট।

ইতালির ওই শহরের ১০০ টাকার ব্যাংক নোটের সামনের অংশে ম্যারাডোনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপের সেই বিখ্যাত ‘হ্যান্ডস অব গড’ এর ছবিটি ব্যবহার করেছে ক্যাস্টেলিনো ডেল বিফার্নোর কর্তৃপক্ষ।