Tag Archives: ঈদ আনন্দ উদযাপন

কাতারে বর্নিল ঈদ আনন্দ উৎসব ও বাংলা নববর্ষ উদযাপন

ইউসুফ পাটোয়ারী লিংকন:

ঈদুল ফিতর ও বাংলা বর্ষবরণ ১৪৩০ উপলক্ষে বৈশাখী ঈদ আনন্দ উদযাপন করেছে বাংলাদেশ প্রেসক্লাব কাতার। অসংখ্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের উপস্থিতিতে বৈশাখী মেলা ও ঈদ উদযাপন জমে উঠে মরুর দেশে। এই দ্বৈত উৎসবে অংশ নেন কাতারে বসবাসরত নারী শিশুসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। কাতারে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঈদের আনন্দকে প্রাণবন্ত করেছে বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

ঈদুল ফিতর ও বাংলা নববর্ষ ১৪৩০ উপলক্ষে আয়োজিত বৈশাখী ঈদ আনন্দ উৎসবে মেতেছিলো কাতার প্রবাসী বাংলাদেশিরা। প্রেসক্লাবের আহবায়ক ইউসুফ পাটোয়ারী লিংকন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বর্নিল এই ঈদ আনন্দ উৎসবে অংশ নেন কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মোঃ নজরুল ইসলাম, ডিফেন্স উং এর কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসাইন, মিনিস্টার (শ্রম) ড. মুহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান। এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ কমিউনিটির সভাপতি ইন্জিনিয়ার আনোয়ার হোসেন আকন, কমিউনিটি ব্যাক্তিত্ব জালাল আহমেদ (সিআইপি), আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সম্পাদক এম সাইফুল আলম, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি কপিল উদ্দিন ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান বাবু, আইডিইবি কাতার চ্যাপ্টার এর সভাপতি ইন্জিনিয়ার জাহিদুল ইসলাম, কাতার আওয়ামীলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম প্রধান, কাতার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবু রায়হান, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মুস্তাফিজুর রহমান রিপন, প্রবাসী অধিকার কাতার শাখার সভাপতি শফিকুল ইসলাম, আওয়ামী যুবলীগ কাতার শাখার সভাপতি জাকির হোসেন, জিয়া পরিষদ কাতার শাখার সভাপতি শাহজাহান সাজু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ি দিলিপ কুমার, মাহমুদুল হাছানসহ অনেকে।

এছাড়াও সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, প্রেসক্লাবের সদস্য সচিব বাংলা টিভির বিশেষ প্রতিনিধি আকবার হোসেন বাচ্ছু, চ্যানেল২৪ কাতার প্রতিনিধি কাজী মোঃ শামীম, এখন টিভির প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন মামুন, জি টিভির প্রতিনিধি এম এ সালাম, এস এ টিভির প্রতিনিধি আহসান উল্লাহ সজিব ও খন্দকার সাদ্দামসহ অনেক। বর্ষবরণ মেলায় স্থানীয় বাংলাদেশি মহিলারা হাতে তৈরি পিঠা পুলির পসরা সাজিয়ে বসেন।

এছাড়া বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে ধারণ করে মেলায় স্টল সাজানো হয়েছে। এখানে তাঁত, হস্ত, বুটিকস, কুটির শিল্পে উৎপাদিত পণ্যের বেচা-কেনা জমে উঠে। সল্প সময়ের এই মেলায় ক্রেতার সমাগম ছিলো চোখে পড়ার মতো। এসময় প্রবাসী বাংলাদেশি অনেকেই সংক্ষিপ্ত আলোচনায় তাদের ছোটকালের সৃতিচারণ করেন।

বর্ণিল এই উৎসবে স্থানীয় বৈশাখী ব্র্যান্ড শিল্পীরা সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন। গান, কবিতা আবৃত্তিসহসহ বিভিন্ন উপস্থাপনায় মুখরিত হয়ে উঠে একটুকরো বাংলাদেশ এবং এটি মানুষের প্রাণের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে।