Tag Archives: উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা

দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিদায়ী সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মহিনুল হাসানকে বদলীজনিত বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে দাউদকান্দি প্রেস ক্লাবের আয়োজনে সদ্য বিদায়ী ইউএনও মো: মহিনুল হাসানকে ক্রেস্ট প্রদানের মধ্য দিয়ে বদলিজনিত বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

বিদায়ী ইউএনও মো: মহিনুল হাসান বলেন, চট্টগ্রামের প্রবেশদ্বার দাউদকান্দি উপজেলার প্রতিটি মানুষ ভালো থাকুক। আমার কর্মজীবনের সেরা সঞ্চয় আপনাদের ভালোবাসা। সরকারি চাকরিজীবী হিসেবে বদলিজনিত কারণে কোনো জেলায় বা উপজেলায় স্থায়ী হওয়ার সুযোগ নেই। উপজেলায় কর্মরত অবস্থায় সহকর্মী, জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের অনেক রকমের সহায়তা আমি পেয়েছি। কাজ আদায় করার জন্য হয়তো কারও বিরাগভাজন হয়েছি। খোলা চোখে সব কিছু দেখা যায় না। চোখের আড়ালেও অনেক কিছু থাকে। তবে নিজের অজান্তেও যদি কাউকে কষ্ট দিয়ে থাকি, কারও প্রতি অন্যায় করে থাকি তাহলে আমি ক্ষমাপ্রার্থী। হাতিয়ার মানুষ খুব আন্তরিক। আমি কোনোদিন তাদের ভুলতে পারব না।
এখানকার মানুষের আন্তরিকতা ও ভালোবাসা আমার সারাজীবন মনে থাকবে।

দাউদকান্দি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো: জাকির হোসেন হাজারীর সঞ্চালনায় স্মৃতি চারণ করে বক্তব্য রাখেন, দাউদকান্দি প্রেস ক্লাব সভাপতি মো: হাবিবুর রহমান।

গণমাধ্যমকর্মীরা বলেন, এর আগের অনেকের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ শুনলেও বিদায়ী ইউএনওর নামে বা উনার বিরুদ্ধে দাউদকান্দির একটা লোকও কোন কিছু বলতে শুনিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো: জিয়াউর রহমান, দাউদকান্দি প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি মো: হানিফ খান, সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রহমান ঢালী, কার্যনির্বাহী সদস্য মো: ওমর ফারুক মিয়াজী, হোসাইন মোহাম্মদ দিদার,
মো: ইব্রাহিম খলিল ও মো: মনির হোসেন।

এছাড়াও লিটন সরকার বাদল, কামরুল হক চৌধুরী, মো: শাহাবুদ্দিন ও সাদ্দাম হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
মো: মহিনুল হাসান নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে বদলি হন।

একযোগে ৪৭ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বদলি

ডেস্ক রিপোর্ট:

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে ৮ বিভাগের ৪৭ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) বদলির অনুমোদন দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সোমবার সংস্থাটির উপ সচিব মো. মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, উপর্যুক্ত বিষয় ও সূত্রের পরিপ্রেক্ষিতে আদিষ্ট হয়ে জানানো যাচ্ছে যে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকালীন আটটি বিভাগের প্রথম পর্যায়ে ৪৭ জন উপজেলা নির্বাহী অফিসাকে প্রস্তাবিত কর্মস্থলে বদলির সম্মতির জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।’

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, ‘উল্লিখিত আটটি বিভাগের প্রথম পর্যায়ে ৪৭ জন উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে প্রস্তাবিত কর্মস্থলে বদলির বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সম্মতি প্রদান করেছেন।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে দেশের সব ইউএনওকে পর্যায়ক্রমে বদলি করার সিদ্ধান্ত নেয় ইসি। ইউএনওদের বদলির বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দিয়ে গত ৩০ নভেম্বর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেওয়া হয়।

তাতে বলা হয়, প্রথম পর্যায়ে যেসব ইউএনওর বর্তমান কর্মস্থলে দায়িত্ব পালনের মেয়াদ এক বছরের বেশি হয়ে গেছে, তাদের অন্য জেলায় বদলির প্রস্তাব ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে ইসিতে পাঠানো প্রয়োজন। ইউএনওদের পাশাপাশি সব থানার ওসি পর্যায়ক্রমে বদলির নির্দেশ দেয় ইসি।

সূত্র: যুগান্তর

দেবিদ্বারে অসহায় ভূমিহীনদের মাঝে বন্দোবস্তের জমি পরিদর্শনে নির্বাহী অফিসার রাকিব হাসান

মো. জামাল উদ্দিন দুলালঃ

কুমিল্লার দেবিদ্বারে অসহায় ভূমিহীনদের মাঝে বন্দোবস্তের জমি পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাকিব হাসান।

স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের নির্দেশে শনিবার জেলার দেবিদ্বারের জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের বারুর দক্ষিণপাড়া গ্রামে পরিদর্শন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সোহরাব হোসেন, জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোশারফ ভূঁইয়া আহম্মেদসহ আরো অনেকে।

কুমিল্লার সদর দক্ষিণে ইউএনওর হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো ডিজিটাল বাল্যবিবাহ

 

সদর দক্ষিণ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে নবম শ্রেণির এক ছাত্রী ডিজিটাল বাল্যবিবাহের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে।

শুক্রবার (২০ নভেম্বর) উপজেলার গলিয়ারা উত্তর ইউনিয়নের শোভানগর গ্রামে ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে বিয়ে বন্ধ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শুভাশিস ঘোষ।

ইউএনও বলেন, গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারি প্রযুক্তির সহায়তায় সৌদি প্রবাসী সাথে ডিজিটাল ভাবে বিয়ে কাজ করা হবে। ঘটনার স্থলে গিয়ে তার প্রমাণও মিলে। মেয়ের বাবা আবু হানিফকে নগদ ৫০ হাজার টাকা জরিমান এবং বিয়ে পড়ানোর কাজী ইমাম হোসেনকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রধান করা হয়। এসময় সদর দক্ষিণ মডেল থানার এএসআই আনোয়ারসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলো।