Tag Archives: একজনের নেতৃত্বেই পাকিস্তানকে তিন ফরম্যাটে খেলতে হবে: আফ্রিদি

একজনের নেতৃত্বেই পাকিস্তানকে তিন ফরম্যাটে খেলতে হবে: আফ্রিদি

স্পোর্টস ডেস্ক:

ভারত বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পর সমালোচনার মুখে সব ফরম্যাট থেকে পাকিস্তানের অধিনায়কের দায়্ত্বি ছেড়ে দিয়েছেন বাবর আজম। তার পরিবর্তে শান মাসুদকে ট্স্টে অধিনায়ক ও শাহিন শাহ আফ্রিদিকে টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে নিয়োগ করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

অধিনায়ক বদলালেও দলের অবস্থা বদলায়নি। বিশ্বকাপের পর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। এরপর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ পাকিস্তান হেরেছে ৪-১ ব্যবধানে।

টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক ঘোষণা করলেও এখনও নতুন ওয়ানডে অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেনি পিসিবি। আপাতত পাকিস্তানের কোনো ওয়ানডে ম্যাচ না থাকায় সিদ্ধান্ত নিতে তড়িঘড়ি করছে না পাকিস্তান।

তবে দলের ভালো করতে হলে পাকিস্তানকে এক অধিনায়কের নেতৃত্বেই তিন ফরম্যাট খেলতে হবে বলে মনে করছেন দেশটির সাবেক তারকা ক্রিকেটার শহিদ আফ্রিদি।

আফ্রিদি আরও মনে করেন, এই মুহূর্তে দলে কোনো সহ-অধিনায়কের প্রয়োজন নেই। অধিনায়ক যেন ড্রেসিংরুমে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারেন সেটিই চান তিনি। দলের খেলোয়াড়রা যাতে মনে না করেন যে, একজনের বাইরে তাদের দেখার জন্য অন্য কেউ আছেন।

আফ্রিদি বলেন, ‘সব ফরম্যাটেই পিসিবিকে একজন অধিনায়ক রাখতে হবে। সহ-অধিনায়কের প্রয়োজন নেই। এটি সব খেলোয়াড়দের একটি স্পষ্ট বার্তা দেবে যে, তাদের দেখাশোনার দায়িত্বে কে আছেন।’

পরপর দুই সিরিজে বাজে পারফরম্যান্সের পর সমালোচিত পাকিস্তানের নবনিযুক্ত টিম ডিরেক্টর মোহাম্মদ হাফিজকে সাপোর্ট করে যাচ্ছেন আফ্রিদি। তিনি মনে করছেন, এক বা দ্ইু সিরিজ দিয়ে আসলে ডিরেক্টর ও অধিনায়কদের বিচার করা যায় না। পাকিস্তানের ভাগ্য বদলাতে তাদের অন্তত ৩ বছরের জন্য দায়িত্ব দেওয়া দরকার।

আফ্রিদি বলেন, ‘আপনি যদি মনে করেন মোহাম্মদ হাফিজ ভালো, তাহলে শুধু একটি সিরিজে তাকে বিচার করবেন না। তাকে সঠিক সময় দিন এবং একই কথা অধিনায়কের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। তার তিন বছর সেখানে থাকা উচিত। বিশ্বকাপ টি-টোয়েন্টি শিরোপার সন্ধানে বেশ কিছু শক্তিশালী দল নিয়ে এই বছর একটি খুব কঠিন টুর্নামেন্ট হতে চলেছে। আমি মনে করি না যে, এই ফরম্যাটের স্কোয়াডে কোনো পরিবর্তন আনার সময় এখন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের শুধু এই (বর্তমান) খেলোয়াড়দের সঙ্গে নিয়েই খেলা চালিয়ে যেতে হবে। তাদের আত্মবিশ্বাস দিতে হবে। তবে হ্যাঁ, আমি ফখর জামান এবং সাইম আইয়ুবকে টি-টোয়েন্টিতে ওপেনার হিসেবে দেখতে চাই।’