Tag Archives: করোনা নিয়ন্ত্রণ রাখতে লাকসাম উপজেলা প্রশাসনের ১০টি সিদ্ধান্ত গ্রহণ

করোনা নিয়ন্ত্রণ রাখতে লাকসাম উপজেলা প্রশাসনের ১০টি সিদ্ধান্ত গ্রহণ

সেলিম চৌধুরী হীরাঃ
করোনা নিয়ন্ত্রণ রাখতে লাকসাম উপজেলা প্রশাসন বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) ১০টি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। তা হলো নিম্নরুপঃ
১. নমুনা কালেকশনের ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা ও সীমাবদ্ধতা পর্যালোচনাক্রমে আগামীকাল অর্থাৎ ১৯.০৬.২০২০ তারিখ হতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্ধারিত বুথে নমুনা সংগ্রহ পুনরায় চালু করা হবে।
২. সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী জ্বর, কাশি, গলাব্যথা ও শ্বাসকষ্ট এই ৪টি উপসর্গের মধ্যে যেকোন এক বা একাধিক উপসর্গ আছে এমন ব্যক্তির কাছ থেকেই শুধুমাত্র নমুনা সংগ্রহ করা হবে।
৩. পৌরসভার সন্দেহভাজন রোগীর নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলর এর মাধ্যমে ও সমন্বয়ক্রমে নমুনা দিতে হাসপাতালে আসতে হবে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে আসতে হবে যাতে অন্য কোন সুস্থ ব্যক্তির মধ্যে না ছড়ায়। নমুনা দেয়ার পর রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত বাধ্যতামূলক পরিবারের সকল সদস্যসহ হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। কোন অবস্থাতেই বাইরে ঘোরাঘুরি করা যাবেনা। সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। নমুনা দিয়ে বাইরে ঘোরাঘুরি করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
৪. পৌরসভার বাইরে ইউনিয়নসমূহেও একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।এক্ষেত্রে ইউপি চেয়ারম্যান/ মেম্বারদের মাধ্যমে যোগাযোগ করে নমুনা দিতে হাসপাতালে আসতে হবে। ক্ষেত্রবিশেষে/জরুরি প্রয়োজনে ইউপি চেয়ারম্যানদের সুপারিশে সন্দেহভাজন রোগীর বাড়ি গিয়েও স্যাম্পল নেয়া হবে।
৫. নমুনা সংগ্রহের সংখ্যার সীমাবদ্ধতা (প্রতিদিন সর্বোচ্চ ২০টি আছে) তাই নমুনা দেয়ার ক্ষেত্রে অন্তত একদিন পূর্বে জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগাযোগ করতঃ সিরিয়াল নেয়া যেতে পারে। উপসর্গ নাই এমন ব্যক্তিদের নমুনা না দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।
৬. পৌরসভার পক্ষ থেকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা সংগ্রহের বুথ তৈরি করার সিদ্বান্ত হয়।
৭. স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকবৃন্দের মাধ্যমে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে করোনা পজিটিভ রোগীদের নিয়মিত ফলোআপ ও পরবর্তী নমুনা সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত হয়।
৮. করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তির নমুনা ৩ ঘন্টার মধ্যে সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত হয়। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মৃত ব্যক্তির পরিবার/ জনপ্রতিনিধি /প্রতিবেশি/ সাংবাদিকবৃন্দ দ্রুততম সময়ের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জানাবেন মর্মে সিদ্ধান্ত হয়।
৯. সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিকেল ৪টার ঔষধের দোকান ব্যতীত সকল দোকান-পাট বন্ধ থাকবে। এবিষয়ে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।
১০. সকল জনসাধারণের জন্য মাস্ক পরিধান করা বাধ্যতামূলক। মাস্ক না পড়লে জরিমানা করা হবে।