Tag Archives: কর অঞ্চল কুমিল্লার উদ্যোগে শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহের কর্মকর্তাবৃন্দের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

কর অঞ্চল- কুমিল্লার উদ্যোগে “জাতীয় আয়কর দিবস ২০২০” উদযাপন

 

স্টাফ রিপোর্টার:
কর অঞ্চল – কুমিল্লার উদ্যোগে “জাতীয় আয়কর দিবস ২০২০”পালিত হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ৮ টায় কুমিল্লা নগরীর নজরুল এভিনিউস্থ কর ভবন প্রাঙ্গনে রঙিন বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে দিবসটির উদ্বোধন করেন কর অঞ্চল -কুমিল্লার কর কমিশনার মোঃ মাহবুবুর রহমান।

দিবসটি উপলক্ষে বিগত বছরগুলোতে বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা, টি শার্ট, প্রচারপত্র বিলিসহ নানা আয়োজন করা হতো। এ বছর মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে শোভাযাত্রা ও বর্নাঢ্য আনুষ্ঠানিকতা করা হয়নি। এবছর দিবসটির প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে “স্বচ্ছ ও আধুনিক কর সেবা প্রদানের মাধ্যমে করদাতা বান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতকরণ”।

কর অঞ্চল -কুমিল্লার অধীনে ৬টি জেলা যথা কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, ফেনী, নোয়াখালী ও লক্ষীপুর জেলা অফিসেও জাতীয় আয়কর দিবস ২০২০ উদযাপন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে কর অঞ্চল- কুমিল্লার অতিরিক্ত কর কমিশনার সাধন কুমার রায়, যুগ্ম কর কমিশনার মোহাম্মদ শাহ আলম, উপ কর কমিশনার, সদর দপ্তর ( প্রশাসন) মো: আরিফুল হাসান মজুমদার, অতিরিক্ত সহকারি কর কমিশনার মনির আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কর অঞ্চল- কুমিল্লার কর কমিশনার মোঃ মাহবুবুর রহমান বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে আয়করের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। দেশকে উন্নত দেশ হিসেবে বিনির্মাণ করতে আয়কর দিতে হবে। এ বছর সরকার জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে করদাতাদের জন্য বেশ কিছু প্রণোদনা প্রদান করেছেন। তন্মধ্যে সকল করদাতাদের জন্য ৫০ হাজার টাকা বেশি কর মুক্ত সুবিধা, ৫% তথা নিম্নহারে স্ল্যাব রেট, অপ্রদর্শিত জমি,দালান, এপার্টমেন্ট, নগদ ও সঞ্চয়ী অর্থ এর উপর নিম্নহারে কর প্রদান করে বৈধতা নেয়ার সুবিধা উল্লেখযোগ্য। তিনি সম্মানিত করদাতাদের যথাসময়ে রিটার্ন দাখিল এবং কর অঞ্চল -কুমিল্লার সেবা গ্রহণ করার আহবান জানান।

কর অঞ্চল কুমিল্লার উদ্যোগে শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহের কর্মকর্তাবৃন্দের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কর অঞ্চল,কুমিল্লার উদ্যোগে কুমিল্লা রপ্তানী প্রক্রিয়াজাতকরণ অঞ্চল এর শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহের ২৯ জন উর্ধ্বতন কর্মাধ্যক্ষও হিসাব নির্বাহী কর্মকর্তাবৃন্দের এক আলোচনা ও মতবিনিময় সভা কর কমিশনারের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন কুমিল্লা কর অঞ্চলের কর কমিশনার জনাব এম এম ফজলুল হক।

সভায় আয়কর আইন ২০১৯ এর পরিবর্তনসমূহসহ শিল্প প্রতিষ্ঠান কর্তৃক বিভিন্ন খাতে উৎসে কর কর্তন নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা হয়। অতিরিক্ত কর কমিশনার জনাব সাধন কুমার রায় ও যুগ্ম কর কমিশনার মোহাম্মদ শাহ আলমসহ বেপজার  উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং অংশগ্রহণকারীবৃন্দ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, রাজস্ব বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে বিগত ২০ কার্যদিবসে কর কমিশনারের উদ্যেগে কর অঞ্চলের কর্মকর্তাবৃন্দের ৩টি রাজস্ব সভা, প্রথমবারের মত কর্মকর্তাবৃন্দের নিয়মিত মাসিক প্রশিক্ষণ,প্রথমবারের মত কর কর্মচারীদের নিয়মিত মাসিক প্রশিক্ষণ, ৬টি জেলার কর পেশাজীবি নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়, ৫টি জেলার কর ভবন কমপ্লেক্স বিনির্মাণের উদ্যোগ, কর ভবন কমপ্লেক্স এর শিক্ষার্থীদের সমাবেশসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গৃহীত হয়।

রাজস্ব বৃদ্ধিসহ রাজস্ব বান্ধব পরিবেশ তৈরীতে সকলকে উদ্বুদ্ধকরণে বেশ কিছু পদক্ষেপে রাজস্ব কার্যক্রমে গতিবৃদ্ধি হয়েছে। এ সকল কার্যক্রমে কর কমিশনার সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।