Tag Archives: কুমিল্লায় ২৬০০ জন সুবিধাবঞ্চিত নারীকে সবজি চাষের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে

কুমিল্লায় ২৬০০ জন সুবিধাবঞ্চিত নারীকে সবজি চাষের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে

ইসতিয়াক আহমেদ:

কুমিল্লায় “উচ্চ ফলনশীল বারোমাসি সবজি উৎপাদনের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত নারীদের আয় ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি” শীর্ষক কর্মসূচির উদ্বোধন হয়েছে।

শনিবার (১৩ই নভেম্বর) দুপুর ১২ টায়  কুমিল্লা জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং বাস্তবায়নকারী সহযোগী পল্লী রেনেসাঁ সংস্থার উদ্যোগে কুমিল্লা জেলার সুবিধাবঞ্চিত নারীদের আয় ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি শীর্ষক কর্মসূচির অবহিতকরণ কর্মশালার উদ্বোধন করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস (গ্রেড-১) । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক মনোয়ারা ইসরাত, এই সময় আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, কুমিল্লা জেলার নির্বাহী কর্মকর্তাগণ।

কুমিল্লা জেলার ১৭ টি উপজেলাতে মোট ২ হাজার ৬০০ জন সুবিধাবঞ্চিত নারীদেরকে উচ্চ ফলনশীল বারোমাসি সবজি চাষের উপর প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। প্রত্যেকে ৭ দিন করে প্রশিক্ষণ করার পর তাদেরকে আর্থিক সহযোগিতার পাশাপাশি বীজ সার কীটনাশক ঔষধসহ ফসল চাষের সরঞ্জাম সরবরাহ করা হবে। প্রশিক্ষণ শেষে প্রত্যেক নারীকে উচ্চ ফলনশীল বারোমাসি সবজি চাষের জন্য কারিগরি সহায়তা প্রদান করা হবে এবং সবজি চাষের পর বাজারজাতকরণ করার জন্য লিংকেজ স্থাপন করে দেয়া হবে।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ও নির্বাচিত সহযোগী সংস্থা পল্লী রেনেসাঁ সংস্থা কুমিল্লার ১৭টি উপজেলা থেকে ১ম বছরে ২ হাজার ৬০০ জন নারীকে নির্বাচন করবে। ২ বছরের কর্মশালায় ২ হাজার ৬০০ জন নারীদের ১ম বছরে ৬৫ টি ব্যাচে প্রশিক্ষণ দিবে সহযোগী সংস্থা পল্লী রেনেসাঁ এবং ২য় বছরে ৬৫ টি ব্যাচে মোট ১৩০ টি ব্যাচে ২ হাজার ৬০০ নারীকে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

উক্ত কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস (গ্রেড-১), মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক মনোয়ারা ইসরাত, এবং কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক মনোয়ারা ইসরাক, কর্মসূচি পরিচালক রুবিনা গণি, উপপরিচালক কানিজ তাজিয়া।