Tag Archives: কুমিল্লা মিডিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে নওয়াব ফয়জুন্নেসা চ্যাম্পিয়ন

কুমিল্লা মিডিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে নওয়াব ফয়জুন্নেসা চ্যাম্পিয়ন

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লার কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে আয়োজিত মিডিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালে শচীন দেব বর্মণ একাদশকে ২৮ রানে হারিয়ে  নওয়াব ফয়জুন্নেসা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। টুর্ণামেন্ট সেরা “ম্যান অব দ্যা সিরিজ” হয়েছেন শচীন দেব বর্মণ একাদশের অধিনায়ক ইমতিয়াজ আহমেদ জিতু, ম্যান অব দ্যা ফাইনাল হয়েছে বিপ্লব হাসান, সেরা বোলার হয়েছেন সেলিম সজীব, সেরা ব্যাটসম্যান হয়েছেন বিপ্লব হাসান, নকআউট পর্বের দুই খেলায় ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন ইমতিয়াজ আহমেদ জিতু ও সেলিম সজীব।

শনিবার দিনব্যাপী কুমিল্লা ইয়ূথ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের উদ্যোগে  শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে টুর্ণামেন্টটি অনুষ্ঠিত হয়।

পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা ডিএসবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজিম উল আহসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান ফারুক রোমেন, কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্লাহ খোকন ও কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতির সহ-সভাপতি রেজাউল করিম।

কুমিল্লার কর্মরত সাংবাদিকরা ৪টি দল নবাব ফয়জুন্নেছা, ধীরেন্দ্র নাথ দত্ত, রায় বাহাদুর, শচীন দেব বর্মণ দলে বিভক্ত হয়ে টুণামেন্টে অংশগ্রহণ করে।

নক আউট পর্বের প্রথম ম্যাচে ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত একাদশ মুখোমুখি হয় নওয়াব ফয়জুন্নেসা একাদশের । প্রথম ব্যাট করে নওয়াব ফয়জুন্নেসা একাদশ নির্ধারিত ১৪ ওভারে ৭৫ রান করেন। খেলার প্রথমে অনবরত উইকেট পড়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে পয়জুন্নেসা একাদশ। পরে কোচ সাদিক মামুন নিজেই মাঠে নেমে শক্ত হতে খেলার হাল ধরেন। পরবর্তীতে তানভীর দিপু চমৎকার ব্যাটিং করেন। দলকে লড়াই করার মত একটা অবস্থানে নিয়ে যান। ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত একাদশের অধিনায়ক আশিকুর রহমান সোহেল ৪ উইকেট পান। এশিয়ান টিভির প্রতিনিধি দেলোয়ার হোসেন আকাইদ চমৎকার একটি ক্যাচ ধরেন। সহজ লক্ষ্যকে সামনে রেখে মাঠে নামেন ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত একাদশ। কিন্তু ফয়জুন্নেসা একাদশের মিডিয়াম পেসার সেলিম সজীব চমৎকার বোলিং করে ৪ উইকেট তুলে নেন। এছাড়া বৈশাখী টেলিভিশনের প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন চমৎকার দুটি ক্যাচ ধরে ম্যাচের ভাগ্য ঘুড়িয়ে দেন। মাত্র ১ রানে হার নিয়ে মাঠ ছাড়েন ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত একাদশ।

নক আউট পর্বের শেষ ম্যাচে শচীন দেব বর্মণ একাদশ মুখোমুখি হয় রায় বাহাদুর একাদশের। রায় বাহাদুর একাদশ প্রথমে ব্যাট করে ৬৯ রান করেন। ইমতিয়াজ আহমেদ জিতু ২টি উইকেট পান। রায় বাহাদুরের পক্ষে অমিত মজুমদার ২৭ রান, খালিদ বিন নজরুল ১২ রান ও রিয়াদ ওবায়েদ উল্লাহ ৭ রান করেন। পরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩ ওভার বাকি থাকতেই ৬ উইকেটে জয় ছিনিয়ে নেয় শচীন দেব বর্মণ একাদশ। অধিনায়ক ইমতিয়াজ আহমেদ জিতু অপরাজিত ১৮ রান করেন।

ফাইনাল খেলায় শচীন দেব বর্মণ দলের মুখোমুখি হয় নবাব ফয়জুন্নেছা দলটি। প্রথমে ব্যাট করে নবাব ফয়জুন্নেছা ১০৫ রান করেন। তাদের পক্ষে তানভীর দিপু ৮ রান, ইমরান ১০ রান, সেলিম সজীব ১৩ রান, বিপ্লব ২৯ রান করেন।  শচীন দেব বর্মণের অধিনায়ক সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট পান। পরে ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ইমতিয়াজ আহমেদ জিতু ও তাওহিদ হোসেন মিঠু ৯ ওভারে ৫৪ রান করেন। পরে আহত হয়ে তাওহিদ হোসেন মিটূ ১৭ রান করে মাঠ ছাড়েন। এরপরই ইমতিয়াজ আহমেদ জিতু ১৮ রান করে আউট হন। পরবর্তীতে জিসান ৮ রান করেন। এরপর আর কেউ ভাল ব্যাটিং করতে না পারায় ৭৭ রানে ইনিংস শেষ হয়ে যায় শচীন দেব বর্মণ একাদশের । ফয়জুন্নেসা একাদশের পক্ষে সেলিম সজীব ৩টি উইকেট পান।