Tag Archives: গণতন্ত্রের নির্বাচন কিংবা সশস্ত্র লড়াই নয়! ঈমানদারগণের সমাজ গঠনই আন্দোলন

গণতন্ত্রের নির্বাচন কিংবা সশস্ত্র লড়াই নয়! ঈমানদারগণের সমাজ গঠনই আন্দোলন

স্টাফ রিপোর্টার:

“মানব জীবনে দুর্ভোগ ও অশান্তির কারণ এবং কল্যাণ ও শান্তির উপায়” বিষয়ে ২৪ জানুয়ারী  কুমিল্লা প্রেসক্লাব ভবনের ৩য় তলায় ইসলামী সমাজের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত “কল্যাণ ও শান্তি সমাবেশে” ইসলামী সমাজের আমীর হজরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর বলেছেন,দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য জাতির মানুষের জীবনে বিপর্যয় সৃষ্টি করছে এবং ধর্মের নামেও সন্ত্রাস, উগ্রতা ও জঙ্গিবাদী অপতৎপরতার বিস্তার ঘটছে।

সমাজ ও রাষ্ট্র গঠন এবং পরিচালনায় “মানুষের সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও কর্তৃত্বকে” চরম দুর্নীতি উল্লেখ করে তিনি বলেন,গণতন্ত্রসহ সকল মানব রচিত ব্যবস্থার মাধ্যমে সার্বভৌমত্ব,আইন-বিধান ও কর্তৃত্ব মানুষেরই মানা হয় বিধায়;মানব রচিত ব্যবস্থার ভিত্তিতে নেতৃত্বদানকারী সকল প্রকার নেতাগণ দুর্নীতিবাজ।

তিনি বলেন, দুর্নীতিবাজ নেতাদের নেতৃত্বে দেশ ও জাতির মানুষ আজ বিভিন্ন দলে বিভক্ত হয়ে সংঘাত ও সংঘর্ষে লিপ্ত এবং দূর্বলের উপর শক্তিমানের শোষন ও জুলুম চলছে, ক্ষমতাসীনদের লুট-পাট ও অরাজকতা সাধারণ মানুষের জীবনকে অতিষ্ঠ করছে। তিনি বলেন, দেশে চলমান সংঘাতময় অবস্থা এবং সকল প্রকার ক্ষতি থেকে রক্ষা পেয়ে জাতি, ধর্ম,বর্ণ,গোত্র ও দল-মত নির্বিশেষে সকল মানুষ মিলেমিশে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করতে হলে সকল ধর্মের লোকদের জন্য যার যার ধর্ম পালনের সুযোগ রেখে সমাজ ও রাষ্ট্র গঠন এবং পরিচালনায় সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ প্রদত্ত ব্যবস্থা ‘ইসলাম আল্লাহর রাসূল হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর প্রদর্শিত পদ্ধতিতে প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তিনি বলেন,যারা আল্লাহর রাসূল হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর প্রদর্শিত পদ্ধতিতে সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে থাকবে তারা আখিরাতে আল্লাহর রহমতে জাহান্নাম থেকে রক্ষা পেয়ে জান্নাত লাভ করবে। তিনি আরো বলেন,“গণতন্ত্রের অধীনে নির্বাচন কিংবা সশস্ত্র লড়াই নয়! ঈমান ও ইসলামের দাওয়াতের মাধ্যমে মানব রচিত ব্যবস্থার বিরুদ্ধে ঈমানদারগণের সমাজ গঠন আন্দোলনই ইসলাম প্রতিষ্ঠার পদ্ধতি। ইসলাম প্রতিষ্ঠায় সকলকে তিনি ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

ইসলামী সমাজ চট্রগ্রাম বিভাগীয় অঞ্চল ২ এর সহকারী দায়িত্বশীল জনাব সৈয়দ মুহাম্মাদ কবীরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত “কল্যাণ ও শান্তি সমাবেশে” বক্তব্য রাখেন মুহাম্মাদ ইয়াছিন,মুহাম্মাদ ইউসুফ আলী মোল্লা,মোহাম্মাদ আজমুল হক,মুহাম্মাদ আমীর হোসাইন,মুহাম্মাদ নুরুদ্দিন,আবু জাফর মোহাম্মাদ সালেহ প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, ইসলামী সমাজের নেতা ও কর্মীগণ আল্লাহর নির্দেশিত এবং তাঁরই রাসূল হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর প্রদর্শিত শান্তিপূর্ণ পদ্ধতিতে সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠায় দল-মত নির্বিশেষে সকলকে তারা ইসলামী সমাজে শামিল হওয়ার আন্তরিক আহ্বান জানান।