Tag Archives: গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

বুড়িচংয়ে স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ে ও নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে স্ত্রীর আত্মহ’ত্যা

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ে নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে অভিমানে প্রথম স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহ’ত্যা করেছে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার (৪ মে) সকালে ঘটনাটি ঘটে। সে ৩ মাস বয়সী একটি কন্যা সন্তানের জননী।

বুড়িচং থানার এস আই নূরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুড়িচং সদরের পশ্চিমপাড়া মর্তুজ আলীর বাড়িতে ভাড়া থাকতেন মাছ ব্যবসায়ী সোহেল ও তার স্ত্রী সুমাইয়া আক্তার সোমা (৩৭)। এই বাড়িতে ভাড়া থাকাকালে একটি কন্যা সন্তান জন্ম হয়। বর্তমানে শিশুটির বয়স তিন মাস।

জানা যায়, স্ত্রীকে না জানিয়ে স্বামী সোহেল আবার বিয়ে করে ফেলে। দ্বিতীয় বিয়ে করার পর থেকেই প্রথম স্ত্রীকে ভরণপোষণ থেকে বঞ্চিত রেখেছে এবং প্রায় সময় বাড়িতে এসে স্ত্রীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করতেন।তাদের আশে-পাশে ভাড়া থাকতেন ননদ আসমা আক্তার ও তার স্বামী শাহাজাহান। তারাও প্রায় সময় সোমা আক্তারের উপর নির্যাতন চালাতেন। এসব নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে বৃহস্পতিবার সকালে টিনসেট ঘরের তীরের সাথে গলায় উড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। আত্মহত্যার পর থেকে স্বামী সোহেল ও ননদ আসমা আক্তার, স্বামী শাহাজাহান পলাতক রয়েছে।

খবর পেয়ে বুড়িচং থানার ওসি ইসমাইল হোসেনের নির্দেশে এসআই নুরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রির্পোট করেন। স্বামী সোহেল ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সাহেবাবাদ ইউনিয়নের নগরপাড় কালা মিয়ার ছেলে। নিহত সোমা আক্তারের বাড়ি সিলেট সদরের চিকরপাড়া এলাকার মৃত:আশ্রাফ আলীর মেয়ে।

এ বিষয়ে বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে প্রভাষকের আত্মহত্যা

ডেস্ক রিপোর্টঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে গলায় ফাঁস দিয়ে মৃণাল কান্তি দাস (৪৫) নামের এক প্রভাষক আত্মহত্যা করেছে।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার আলমনগর এলাকার একটি বাসা থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আশুগঞ্জ উপজেলার ফিরোজ মিয়া ডিগ্রি কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ছিলেন নিহত মৃণাল কান্তি দাস। তিনি সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) প্রাক্তন ছাত্র।

নিহত প্রভাষকের বাড়ি কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলায়।

হিতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আলমনগর এলাকার একটি বাসায় স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া থাকতেন প্রভাষক মৃণাল। তিনি মানসিকভাবে কিছুটা অসুস্থ ছিলেন। শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে স্ত্রীকে অন্য কক্ষে পাঠিয়ে নিজের কক্ষের দরজা ভেতর থেকে আটকে দেন। এরপর ফ্যানের সঙ্গে রশি লাগিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন মৃণাল।

আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ জানান, আশুগঞ্জ উপজেলায় গলায় ফাঁস দিয়ে এক প্রভাষক আত্মহত্যা করেছে। খবর পেয়ে শনিবার সকালে পুলিশ গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে।তবে প্রাথমিকভাবে তার আত্মহত্যার কারণ এখনো জানা যায়নি।

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

লাকসাম প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলায় শাহিনুর আক্তার (১৬) নামে এক স্কুলছাত্রী গলায় ওড়না পেচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানা যায়।

উপজেলার মৈশাতুয়া ইউনিয়নের আমতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী শাহিনুর। সে মৈশাতুয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়া সিএনজি চালক শাহজাহানের মেয়ে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পরিবারের অজান্তে নিজ বাড়ির বসত ঘরে আত্মহত্যা করে ওই ছাত্রী। শনিবার বিকেলে মেয়ে শাহিনুরকে ঘরে রেখে বাবা-মা ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিতে যান। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকায় নীজ বসত ঘরের দরজা বন্ধ করে গলায় ওড়না পেচিয়ে শাহিনুর আত্মহত্যা করে। সন্ধ্যার পর বাবা মা চিকিৎসা শেষে বাতে এসে দেখে ঘরের দরজা জানালা বন্ধ, মেয়ে শাহিনুরকে অনেকক্ষণ ডাকাডাকি করে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে দেখতে পায় শাহিনুরের ঝুলন্ত নিথর দেহ। এ সময় পরিবারের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা শাহিনুরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয়রা বলেন, সিএনজি চালক শাহজাহান মিয়ার মেয়ে শাহিনুরের সাথে একই গ্রামের রতন মিয়ার ছেলে কিরনের দ্বীর্ঘদিন প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। গত কয়েকদিন আগে তারা বিবাহের সিদ্ধান্ত নেয়। শাহিনুর তার পরিবারকে বিষয়টি জানালে পরিবারের সদস্যরা রাজি না হয়ে মেয়েকে পারিবারিক ভাবে শাসন করে। এতে শাহিনুর পরিবারের লোকজনের সাথে অভিমান করে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনা এলাকা জানাজানি হলে বিষয়টি আপোস মিমাংশের চেষ্টা চালায় একটি মহল। খবর পেয়ে মনোহরগঞ্জ থানা পুলিশ স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেন।

মনোহরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেজবা উদ্দীন ভুইয়া জানান, মেয়েটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমেক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।