Tag Archives: গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ

কুমিল্লায় আ.লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ

 

 

মহিউদ্দিন ভূইয়া:

কুমিল্লার বরুড়ায় টেন্ডার জমা দেওয় কে কেন্দ্র করে বুধবার (৩১ জুলাই) বেলা ৩ টার দিকে আওয়ামীলীগের (নজরুল গ্রুপ) অফিসে উপজেলা চেয়াম্যান সমর্থকেরা অফিসে হামলা চালিয়ে জানালা ভাংচুর করে।

স্থানীয় সত্রে জানা যায়, গত রবিবার (২১ জুলাই) ‘অস্থায়ী গবাদী পশুর হাট বরুড়া উপজেলা” শিরোনামে দরপত্রের আহ্বান করা হয়। উক্ত দরপত্র থানা, উপজেলা, সোনালী ব্যাংক ও কুমিল্লা ডিসি অফিসে বিক্রি করা হয়। গত (৩০ জুলাই) মঙ্গলবার বিক্রি শেষ হয়। বুধবার (৩১ জুলাই) বেলা ১ টার দিকে টেন্ডার জমার দেওয়ার শেষ সময় নির্ধারিত করা হয়।

এরিই সূত্র ধরে, সকাল ৯ টার দিকে বরুড়া উপজেলা চেয়ারম্যান মঈনুল ইসলামের সমর্থকরা উপজেলার ভেতর ও গেইটে অবস্থান নেয়। এসময় এমপি নজরুল গ্রুপের নেতাকর্মীদের কাউকে উপজেলা পরিষদে প্রবেশ করতে দেয়নি। সকাল ৯ টা থেকে বেলা ২ টা পর্যন্ত চেয়ারম্যান মইনুল গ্রুপের সমর্থকেরা দেশী অস্ত্র ও লাঠি সোটা নিয়ে উপজেলা গেইটে অবস্থান নেয়। এসময় তারা প্রায় ৩০ টিরও অধিক ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে।

বেলা ৩ টার দিকে মইনুল গ্রুপের প্যানেল থেকে জেলা পরিষদ সদস্য পদে নিবার্চিত সদস্য জসিম উদ্দিনের পক্ষে বিজয় মিছিল বের করে বরুড়া বাজারে প্রবেশ করে একাধিক ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। পরে তারা হঠাৎ করে এমপি নজুরুল গ্রুপের অফিসে হামলা চালিয়ে অফিসের জানালার কাছ ভেঙ্গে ফেলে। অফিসের সামনে থাকা প্রায় ১২টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে। এসময় তারা ৬/৭ রাউন্ড গুলি ছুড়ে বলে জানা যায়। এসময় ইয়াছিন নামের এক যুবলীগ নেতা আহত হয়। আহত ইয়াছিন উপজেলার আগানগর ইউনিয়নের শরাফতি গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। তার গলায় গুরুতর জখম হলে, তাকে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কুমেক হাসপাতালে রেফার করে।
এ ঘটনায় আওয়ামীলীগের (নজরুল গ্রুপ) ও মঈনুল গ্রুপের উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করে কাউকে পাওয়া যায়নি। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত বরুড়া থানায় কোন মামলা হয়নি।

বরুড়া থানা অফিসার ইনচার্জ আজম উদ্দিন মাহমুদ বলেন, দুপরের দিকে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছিলো। তবে পরিস্থি এখন নিয়ন্ত্রনে আছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে স্থানীয় সংসদ সদস্য নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুল সমর্থীত পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক শাহিন বাদী হয়ে ৬১ জনের বিরুদ্বে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতে এ ঘটনায় মিজান ও তপন নামের দু’জনকে আটক করেন

কুমিল্লায় বিএনপি প্রার্থী ইউনুসের বাড়িতে হামলা ।। গাড়ি ভাংচুর, গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ
কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-বি পাড়া) আসনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী চার বারের সাবেক সাংসদ অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইউনুসের কুমিল্লা নগরীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে একটি প্রাডো গাড়ি ভাংচুর, গুলিবর্ষণ ও ককটেল বিস্ফোরণ করেছে দুবৃর্ত্তরা।

বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) রাত ১০ টায় নগরীর তালপুকুর পাড়ের মোহনা নামক বাড়িতে এ হামলা চালানো হয়।

সাবেক সাংসদ অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইউনুস ও তাঁর সন্তান ড. নাজমুল হোসেন শাহীন জানান, রাত ৯ টায় বাড়িতে বসে দুই উপজেলার নেতাকর্মীদের সাথে নির্বাচনী আলোচনা করছিলাম। রাত ১০ টার দিকে প্রায় ২০/২৫ জন দুবৃর্ত্ত মুখোশ পড়ে আমার বাড়ির সামনে রাখা বি পাড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি জসিম উদ্দিনের গাড়িটির ভেঙ্গে চুরমাড় করে ফেলে। এ সময় তারা ১০/১২ রাউন্ড গুলিবর্ষণ এবং ককটেল বিস্ফোরণ করে । এ সময় আমাদের নির্বাচনী প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা  চিৎকার করে আমাকে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানোর জন্য হুমকি দিয়ে যায়। তাদের হামলায় আমাদের ২/৩ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা কুমিল্লা পুলিশ সুপারকে মুঠোফোনে অবহিত করেছি।