Tag Archives: গোসলের ভিডিও ধারণ করে গৃহবধুকে ব্ল্যাকমেইল

গোসলের ভিডিও দিয়ে গৃহবধুকে ব্ল্যাকমেইল করে ধর্ষণ, নারী গ্রেপ্তার

ডেস্ক রিপোর্ট:
নওগাঁর বদলগাছীতে এক গৃহবধূর গোসলের ছবি গোপনে মোবাইল ফোনে ধারণের পর ব্ল্যাকমেইল করে গৃহবধূকে একাধিকবার ধর্ষণ এবং শেষ পর্যন্ত এডিট করে ভিডিওচিত্র মোবাইলে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে অবশেষে মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত জয় হোসেন ও শিউলি খাতুনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৩ জনের নামে বুধবার রাতে মামলা করেন ভুক্তভোগী গৃহবধূ। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ শিউলি খাতুন (৩৬) নামে ওই গৃহবধূর প্রতিবেশিকে বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে। তবে প্রধান অভিযুক্ত জয় হোসেন পালিয়ে থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

মামলা সূত্রে ও বদলগাছী থানার ওসি আতিকুল ইসলাম জানান, ধর্ষিতা ওই আট বছর আগে গৃহবধূর বিয়ে হয়। এ দম্পতির সাত বছরের একটি মেয়ে আছে। গত বছরের জানুয়ারি মাসের প্রথম দিকে ওই যুবক গৃহবধূর অশ্লীল ছবি তোলেন। পরে ছবি থেকে ভিডিও করে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেন। এভাবে ব্ল্যাকমেইল করে গৃহবধূকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন।

একপর্যায়ে গৃহবধূ বিষয়টি তার স্বামীকে জানান। তখন যুবকের পরিবারকে বিষয়টি জানানো হয়।
এতে যুবক ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিবেশী শিউলি খাতুন নামের নারীর মাধ্যমে স্থানীয়দের মোবাইলে গৃহবধূর অশ্লীল ছবির ভিডিও ছড়িয়ে দেন। এরপর সেই ছবি থেকে এডিট করে ভিডিও প্রকাশ করে ছড়িয়ে দিলে গৃহবধূকে তার স্বামী গত বৃহস্পতিবার (২০ মে ) তালাক দেয়। এ অবস্থায় ২৪শে মে গৃহবধূ থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। বিষয়টি পর্নোগ্রাফি আইনের মধ্যে পড়ায় ( বৃহস্পতিবার) রাতে পর্নোগ্রাফি আইনের নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা থানায় দায়ের হয়।

ওই গৃহবধূ বলেন, ‘আমার স্বামীর ভাতিজা জয় গোসলের ছবি তুলে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে কুপ্রস্তাব দিয়েছিল। ভয়ে বাধ্য হয়ে কুপ্রস্তাবে সাড়া দিই। ৮ মাস আগে ওই ভাতিজার বিয়ে করে। তারপরও সে আমার সঙ্গে সম্পর্ক চালিয়ে যেতে চায়। এতে রাজি না হওয়ায় ছবি থেকে ভিডিও করে ছড়িয়ে দেয়।
‘প্রথম ভিডিওটি প্রতিবেশী শিউলির মাধ্যমে ছড়ানো হয় বলে জানতে পারি। পরে ভিডিওর বিষয়ে জানাজানি হলে আমার স্বামী আমাকে তালাক দেন। ‘কিন্তু আমি আমার স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে চাই। পরিবারের কাছে আমাকে ছোট হতে হচ্ছে লজ্জায়। বিনা অপরাধে সম্মান, স্বামী, সংসার সবকিছু আমি হারালাম।’ মামলা করার পর প্রতিবেশি শিউলি খাতুনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে প্রধান অভিযুক্ত জয়কে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। আমি এই ঘটনার সাথে জড়িত সবার কঠিন শাস্তি চাই।

কিন্তু দু:খের বিষয় আমার স্বামীটা আমার কষ্ট বুঝলো না, তার ভাতিজা আমার সর্বনাশ করলো উল্টো আমাকেই বিনা অপরাধে পর করে দিলো।

এবিষয়ে বদলগাছী থানার ওসি আতিকুল ইসলাম বলেন, ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূর লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা রেকর্ড করে অভিযুক্ত শিউলি খাতুন কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে প্রধান আসামি জয় পলাতক রয়েছে। তাকে ও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। গ্রেপ্তারকৃত শিউলি খাতুনকে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।