Tag Archives: চাঁদপুর

চাঁদপুরে জাটকা ধরায় ২৬ জেলের কারাদন্ড

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ

চাঁদপুরের মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকায় নিষিদ্ধ জালে জাটকা ধরার দায়ে জেলা টাস্কফোর্সের অভিযানে আটক ২৯ জেলের মধ্যে ২৬ জনের প্রত্যেককে ১৫ দিন করে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। বাকী ১ জনকে ৫০০টাকা জরিমানা ও বয়স কম হওয়ায় দুইজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক জেলেকে মুচলেকা রেখে ছেড়ে দেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কোস্টগার্ড চাঁদপুর স্টেশনে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেশমা খাতুন।

আটক অধিকাংশ জেলের বাড়ী মেঘনা নদীর পশ্চিমে সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর এলাকায়।

অভিযানে অংশগ্রহণকারী সদর উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ তানজিমুল ইসলাম জানান, বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত ১০টা থেকে ভোর পর্যন্ত মেঘনা নদীর রাজরাজেশ্বর, মোলহেড, বহরিয়া, হরিনা, আলুবাজার, হাইমচরের কাটাখালি ও ইশানবালা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ২৫ হাজার মিটার কারেন্টজাল, ২ হাজার মিটার চরঘেরা জাল, দুটি মাছ ধরার নৌকা জব্দ এবং ২৯ জেলেকে আটক করা হয়।

তিনি আরও জানান, আটক জেলেদের কারাদন্ড দেয়ার পর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। জব্দকৃত জাল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে আগুনে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।

অভিযানে সার্বিক সহযোগিতা করেন ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক মো. মামুনুর রশীদ চৌধুরী, সহকারী প্রকল্প পরিচালক মো সুলতান মাহমুদ, হাইমচর উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোঃ মাহবুব রশীদ, ইলিশ উন্নয়ন প্রকল্পের সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা এস এম মুশফিকুর রহমান, ক্ষেত্র সহকারী মোঃ জামিল হোসেন, মতলব দক্ষিণ উপজেলা মৎস্য অফিসের ক্ষেত্র সহকারী ইজাজ মাহমুদসহ কোস্টগার্ড চাঁদপুর ও হাইমচর আউটপোস্টের সদস্যরা।

হাজীগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু

মাসুদ হোসেন:

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় পৃথক ঘটনায় পুকুরের পানিতে ডুবে রাইসা আক্তার (২) ও মো. ইয়ামিন (২) নামে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) বেলা আড়াইটা থেকে ৩টার মধ্যে মকিমাবাদ ও কংগাইশ এলাকায় পৃথক এই ঘটনা ঘটে। উভয় শিশুকে উদ্ধার করে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত শিশুদের মধ্যে রাইসা হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার মকিমাবাদ বেপারী বাড়ীর মোঃ আব্দুর রহিমের মেয়ে এবং ইয়ামিন কংগাইশ এলাকার মোঃ লিটন মিয়ার ছেলে।

রাইসার স্বজনরা জানায়, তার বাবা প্রবাসে থাকায় মায়ের সাথে নানার বাড়ীতে থাকতো। দুপুরে বাড়ীর সবার অগোচরে পশ্চিম পাশের ডোবার পানিতে ডুবে যায়। পরে তাকে পানিতে ভেসে থাকতে দেখে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তার বাবার বাড়ী উপজেলার কালচোঁ ইউনিয়নের সাকছিপাড়া গ্রামে।

অপরদিকে ইয়ামিনের স্বজনরা জানায়, দুপুরে নিখোঁজ হয় ইয়ামিন। বাড়ীর পুকুরের পানিতে তার মৃতদেহ ভেসে উঠে। তাকেও উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা গোলাম মাওলা নঈম জানান, দুই শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পূর্বেই মৃত্যু হয়। দুই শিশু পানিতে ডুবে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুর রশিদ।

কুমিল্লায় চালককে হত্যা : চাঁদপুরে কোটি টাকার মালামাল সহ ১ ডাকাত আটক

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চালককে হত্যা করে এক কোটি টাকার মালামাল সহ কাভার্ডভ্যান ছিনতাইয়ের ঘটনায় চাঁদপুরে মোঃ রুবেল (২৭) নামে এক ডাকাতকে আটক করেছে চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ।

আটকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গত সোমবার (১১ ডিসেম্বর) রাতের যেকোন সময় অজ্ঞাতনামা কয়েকজন সহযোগীসহ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা সদর দক্ষিন থানা এলাকার বাতাবাড়িয়া নামকস্থানে কাভার্ডভ্যান গাড়ীর চালক মোঃ আব্দুল কাদের (৫৩) কে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে তার মৃতদেহ রাস্তার পাশে ফেলে রেখে কাভার্ডভ্যান ভর্তি এক কোটি টাকা মূল্যের গার্মেন্টস সামগ্রী ছিনতাই করে চাঁদপুর নিয়ে আসে।

পরে সোমবার (১১ ডিসেম্বর) দুপুর প্রায় ৩টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চাঁদপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শেখ মুহসীন আলম এর নির্দেশনায় এসআই মোঃ আবদুছ ছামাদ আজাদ সঙ্গীয় অফিসার ফোর্সসহ চাঁদপুর পৌর ৩নং ওয়ার্ড পূর্ব শ্রীরামদী দাসপাড়া চাঁদপুর নুরীয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বিপরীত পাশে সেলিম চৌধুরীর অটো গ্যারেজের সামনে রাস্তার উপর চোরাই গার্মেন্টস পণ্য আনলোড করাকালে ঢাকা মেট্রো-ট-১৭-০৫৩৫ নম্বরের একটি কাভার্ডভ্যান এবং ছিনতাইকৃত গার্মেন্টস পণ্যের মালিক হিসাবে উপস্থিত মোঃ রুবেল (২৭) কে পেয়ে কাভার্ডভ্যানে থাকা গার্মেন্টস পণ্যের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদকালে সে সন্তোষ জনক জবাব দিতে না পারায় তাকে আটক করে।

জব্দকৃত ৩২৮ কার্টুন গার্মেন্টস পণ্যের আনুমানিক মূল্য এক কোটি টাকা এবং কাভার্ডভ্যানের মূল্য ৪৫ লক্ষ টাকা। আটকৃত আসামী রুবেল নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার বন্দেরহাট আলী একাব্বর মাস্টার বাড়ীর হুমায়ুন কবিরের ছেলে। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বন্দর থানার ৩৭নং ওয়ার্ডের নিমতলা এলাকায় বসবাস করছেন। ঘটনার সাথে জড়িত অজ্ঞাতনামা আসামীদের শনাক্ত পূর্বক গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানা যায়।

পরবতীর্তে ঘটনার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হওয়ায় কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ এর মাধ্যমে জানা যায়, জব্দকৃত কভার্ডভ্যান গাড়ী চালক নিহত মোঃ আব্দুল কাদের (৫৩) গাজীপুর সদর উপজেলার বালিয়ারা এলাকার মৃত হামেদ শেখ এর ছেলে। তবে এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম এর দিক নির্দেশনায়, মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শেখ মুহসীন আলম এর তত্ত্বাবধানে এসআই (নিঃ)/আবদুছ ছামাদ আজাদ এর নেতৃত্বে সদর মডেল থানার একটি চৌকস দল উক্ত অভিযান পরিচালনা করেন।

চাঁদপুর মুক্ত দিবসে স্বতন্ত্র প্রার্থী রেদওয়ান খান বোরহানের উদ্যোগে দোয়া

চাঁদপুর প্রতিনিধি:

১৯৭১ সালের ৮ ডিসেম্বর মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর কবল থেকে মুক্ত হয় চাঁদপুর। দিবসটি উপলক্ষে চাঁদপুরে বিশেষ মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী মৎসজীবি লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁদপুর-৩ (সদর ও হাইমচর) আসনে স্বতন্ত্র এমপি প্রার্থী আলহাজ্ব মোঃ রেদওয়ান খান বোরহান।

জানা যায়, তৎকালীন চাঁদপুর মহকুমা জেলায় সর্বশেষ যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছিল ৭ ডিসেম্বর লাকসাম ও মুদাফ্ফরগঞ্জ মুক্ত হওয়ার পর। যৌথ বাহিনী হাজীগঞ্জ দিয়ে ৬ ডিসেম্বর চাঁদপুর আসতে থাকলে মুক্তিসেনারা হানাদার বাহিনীর প্রতিরোধের মুখে পড়েন। এ সময় ভারতের মাউন্ট্নে ব্রিগেড ও ইস্টার্ন সেক্টরের মুক্তিযোদ্ধারা যৌথ আক্রমণ চালায়। দিশা না পেয়ে পাকিস্তান ৩৯ অস্থায়ী ডিভিশনের কমান্ডিং অফিসার মেজর জেনারেল রহিম খান চাঁদপুর থেকে পলায়ন করেন। প্রায় ৩৬ ঘণ্টা তীব্র লড়াইয়ের পর ৮ ডিসেম্বর জেলার হাজীগঞ্জ এবং বিনা প্রতিরোধেই চাঁদপুর হানাদার মুক্ত হয়।

১৯৭১ সালের সেই মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের স্বরণে চাঁদপুর মুক্ত দিবস উপলক্ষে শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) চাঁদপুর পৌরসভার ১৩নং ওয়ার্ডের খালিশাডুলী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে বাদ জুমার নামাজ শেষে বিশেষ দোয়ার আয়োজন করেন আলহাজ্ব রেদওয়ান খান বোরহান। এসময় তিনি উপস্থিত মুসল্লীদের কাছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রুহের মাগফেরাত কামনা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্যেও দোয়া কামনা করেন।

চাঁদপুরের দুই আসনে পরিবর্তন এনে তিনটিতেই আওয়ামী লীগের অপরিবর্তিত

চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ

চাঁদপুর জেলা দেশের মধ্যে একটি আন্যতম জেলা। এ জেলাটি ঢাকার সাথে পাল্লাদিয়ে তার কার্যক্রম করে থাকে। এ জেলায় রয়েছে, বিগত সময়ে দেশের গুরুত্বপূর্ন দায়িত্বে থাকা নামজাদা নেতা, ব্যক্তিদের জন্মস্থান রয়েছে এখানে। জাতীয় সংসদীয় আসনের মধ্যে ৫টি সংসদীয় আসন এখানে রয়েছে। এ দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন, বিগত সময়ের সংসদ সদস্য ৩জন এবং নতুন করে ২জনকে নৌকা মার্কার প্রতীকের টিকেট দেওয়া হয়েছে।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। এতে চাঁদপুর জেলার পাঁচ আসনের মধ্যে দুই আসনে পরিবর্তন এনে বাকী ৩ আসন পূর্বের প্রার্থীদের ঠিক রেখেছেন।

রবিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে চূড়ান্ত তালিকা অনুযায়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

অনুষ্ঠানে চাঁদপুরের ৫টি আসনে নৌকার প্রার্থীর নামও ঘোষণা করা হয়। চাঁদপুর-১ (কচুয়া) ড. সেলিম মাহমুদ, চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর ও মতলব দক্ষিণ) মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম, চাঁদপুর-৩ (সদর-হাইমচর) ডাঃ দীপু মনি, চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ) মুহম্মদ শফিকুর রহমান (সাংবাদিক), চাঁদপুর-৫ (শাহরাস্তি-হাজীগঞ্জ) মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম।

একাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যারা আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেছেন এবং নির্বাচিত হয়েছেন তাদের মধ্যে বাদ পড়েছেন চাঁদপুর-১ (কচুয়া) আসন থেকে ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর, চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর ও মতলব দক্ষিণ) অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রুহুল। বাকী চাঁদপুর-৩, ৪ ও ৫ আসনে কোন পরিবর্তন হয়নি।

নতুন করে চাঁদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ এবং চাঁদপুর-২ আসনে সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম।

২১ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর চাঁদপুর নৌরুটে লঞ্চ চলাচলের ঘোষণা

ডেস্ক রিপোর্ট:

প্রায় ২১ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর চাঁদপুর থেকে সারাদেশের সঙ্গে লঞ্চ চলাচল চালুর ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার ( ১৮ নভেম্বর ) সকাল সাড়ে ৭টায় থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চাঁদপুর নদী বন্দরের নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগ এবং বন্দর ও পরিবহন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক শাহাদাত হোসেন।

তিনি জানান, ঘূর্ণিঝড় মিধিলির প্রভাবে প্রতিকূল আবহাওয়া অনুকূলে আসা এবং নদী বন্দরের জন্য কোনো সতর্কতা সংকেত না থাকায় নৌ-নিরাপত্তা ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান কার্যালয়ের নির্দেশনাক্রমে প্রায় ২১ ঘণ্টা পর আজ সকাল সাড়ে ৭টায় চাঁদপুর-ঢাকা এবং চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জ নৌপথে পুনরায় নৌযান চলাচল স্বাভাবিকভাবে শুরু হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার বেলা ১১টা থেকে ঘূর্ণিঝড় মিধিলির প্রভাবে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে চাঁদপুর থেকে সারাদেশের সঙ্গে লঞ্চ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

চাঁদপুর থেকে সব রুটের নৌযান চলাচল বন্ধ

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ

ঘূর্ণিঝড় ‘মিধিলি’ এর প্রভাবে চাঁদপুরে সকাল থেকে বৃষ্টিপাত ও বাতাসের গতি বেড়েছে। সকাল ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত জেলায় বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে ২৪ মিলিমিটার। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে লঞ্চসহ সব ধরনের নৌ যান চলাচল।

শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) বৈরী আবহাওয়ার কারণে ভোর ৬টায় ছোট লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

বেলা ১১টায় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডাব্লিউটিএ) চাঁদপুর বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা মো. শাহাদাত হোসেন জানান, সকালে ছোট লঞ্চগুলো বন্ধ করা হলেও সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে ঢাকা-চাঁদপুর, ঢাকা-নারায়নগঞ্জসহ চাঁদপুর থেকে সকল রুটের লঞ্চ ও নৌযান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে।

চাঁদপুর লঞ্চঘাটের দায়িত্বরত নৌ পথ পরিদর্শক (টিআই) শাহ আলম জানান, ভোর ৬টা থেকে নির্ধারিত সময়ের এমভি আফিয়া, এমভি সোনার তরী-৩, এমভি ঈদগল-৭, এমভি বোগদাদিয়া লঞ্চ চাঁদপুর ঘাট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। ১০টা ৪০ মিনিটে সব লঞ্চ বন্ধ হয়ে যায়। সকাল থেকে লঞ্চগুলো ছেড়ে গেলেও যাত্রীছিল খুবই কম। এখন ঘাটে যাত্রী-লঞ্চ কোনটাই নেই।

এদিকে সকাল ১০টার পর বৃষ্টি আরো বাড়তে থাকে। শহরে যানবাহন চলাচল খুবই কম। শুক্রবার ছুটি দিন হওয়ার কারণে প্রয়োজন ছাড়া লোকজন ঘর থেকে বের হচ্ছে না।

চাঁদপুরের আবহাওয়া কর্মকর্তা মো. শামসুল আলম জানান, গত ২৪ ঘন্টায় চাঁদপুরে ২৬মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা। আর আজ শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত ২৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। ৯টার পরে বৃষ্টির পরিমান ও বাতাসের গতি আরো বেড়েছে।

চাঁদপুরে ৩ হাজার পিস ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেফতার

ডেস্ক রিপোর্ট:

চাঁদপুরে ৩ হাজার পিস ইয়াবাসহ মো. রাজু শরীফ (২৮) নামের মাদক কারবারিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। রবিবার সকালে সদর উপজেলার বাগাদী ইউনিয়নের বাইতুল নূর জামে মসজিদের সামনে রাস্তার ওপর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। মো: রাজু শরীফ পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া থানার মৃত ইসমাইল শরীফের ছেলে।

পুলিশ জানায়, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামের দিক নির্দেশনায় সদর মডেল থানার ওসি মো: শেখ মুহসীন আলমের তত্ত্বাবধানে মডেল থানার একটি টিম মাদক অভিযান পরিচালনা করে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার বাগাদী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে বাইতুল নূর জামে মসজিদের সামনে পাকা রাস্তার ওপর থেকে মাদক কারবারি রাজুকে গ্রেফতার করা হয়।

এসময় তার পরিহিত জিন্স প্যান্টের দুটি পকেট থেকে কালো কসটেপে মোড়ানো দুইটি পোটলা থেকে ৩ হাজার পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে পুলিশ।

গ্রেফতার রাজু জানায়, তিনি দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্ন স্থান থেকে ইয়াবা সংগ্রহ করে মাদক কারবারি ও সেবনকারীদের কাছে সে মাদক বিক্রয় করে আসছিল।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি মো: শেখ মুহসীন আলম জানান, চাঁদপুর জেলাকে মাদকমুক্ত করা এবং মাদকের ভয়াল গ্রাস থেকে তরুণ প্রজন্ম ও যুব সমাজকে রক্ষা করতে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ মডেল থানা। মাদকের বিরুদ্ধে এই অভিযান চলমান থাকবে। মামলা দায়েরের পর গ্রেফতার মাদক কারবারিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

শিক্ষাক্রম পরিবর্তনের বিষয়ে অভিভাবকদেরও সচেতন হতে হবে : চাঁদপুরে শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষাক্রম পরিবর্তনের বিষয়ে অভিভাবকদেরও সচেতন হতে হবে : চাঁদপুরে শিক্ষামন্ত্রী

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ

শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন শিক্ষায় বিনিয়োগ হচ্ছে শ্রেষ্ঠ বিনিয়োগ এবং জিডিপির ৪ বাগ সেখানে বিনিয়োগ করা দরকার। যখন আমরা সারা বিশ্বের গুনি শিক্ষায় জিডিপি কতভাগ বিনিয়োগ। এর মানে হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর বক্তব্যে বুঝা যাচ্ছে তিনি সময়ের চাইতে কতখানি এগিয়ে ছিলেন। বঙ্গবন্ধু যুদ্ধ বিধ্বস্থ দেশটিকে শিক্ষাকে হাতিয়ার হিসেবে নিয়েছিলেন এবং তিনি কুদরত-ই খোদা শিক্ষা কমিশন তৈরী করেছিলেন। সেই কমিশন যে রিপোর্ট দিয়েছিল, সেটি ছিল অনেক সমৃদ্ধ। সেটি যদি আমরা বাস্তবায়ন করতে পারতাম আজকে আমরা শিক্ষায় বিশ্বে অনেক বেশী এগিয়ে থাকতাম। কিন্তু ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর অন্য সব ক্ষেত্রে যেমন আমরা পিছিয়েছি, শিক্ষাও তেমনি পিছিয়েছি।

শুক্রবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে চাঁদপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে ঢাবিয়ান চাঁদপুরের আয়োজনে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে যারা তখন অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করেছে, তারা কিন্তু এ দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করেনি। কাজেই তারা এদেশের মানুষকে এগিয়ে নিবে এই চিন্তা তাদের মাথায় ছিল না। যে কারণে তারা গতানুগতিক শিক্ষাকে চালিয়ে নিয়েছে, চালু ছিল এবং চালু থাকত যদি বঙ্গবন্ধু কন্যা দায়িত্বে না আসতেন। তিনি ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে শিক্ষায় একটি বড় ধরণের পরিবর্তন আনবার চেষ্টা করেছেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুল পর্যায়ে বিজ্ঞান শিক্ষাকে উৎসাহিত করেছেন। এরপর তিনি বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তির শিক্ষার দিকে নজর দিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা দ্বিতীয় মেয়াদে যখন ক্ষমতায় এসেছেন, সেই সময় তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশের যে ঘোষণা দিয়েছেন, সেটি ছিল তরুন প্রজেন্মর জন্য ঘোষণা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন আমরা দিন বদলের সনদ দিচ্ছি, এটি আমাদের তরুন প্রজন্মের জন্য। বদলে যাওয়া দিনের কান্ডারী হবে তরুন প্রজন্ম এবং তারাই এর সুফলভোগী হবে। তারা উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের গর্বিত নাগরিক হবে। আজকে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবতা। আমরা এখন স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে অধীর আগ্রহ নিয়ে তাকিয়ে আছি এবং সেই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়বার জন্য কাজ করে চলেছি। স্মার্ট বাংলাদেশের ৪টি স্তম্ভ। স্মার্ট নাগরিক, স্মার্ট সরকার, স্মার্ট অর্থনীতি ও স্মার্ট সমাজ। আর এর কেন্দ্র হচ্ছে স্মার্ট নাগরিক। সেই স্মার্ট নাগরিক হতে হলে শিক্ষার দিকে অর্থাৎ বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও মনোভাব নিয়ে তৈরী হতে হবে। তার সবকিছু আমরা আমাদের নতুন শিক্ষাক্রমে নিয়ে এসেছি।

মন্ত্রী বলেন, আমরা চাই আমাদের সন্তানরা ভাল পড়ালেখা করবে এবং জ্ঞানের সাথে দক্ষতা অর্জন করবে। তাদের দৃষ্টিভঙ্গি ইতিবাচক হবে। তারা মূল্যবোধকে তাদের জীবন চর্চার অংশ করে নিবে। আর যে দক্ষতাগুলো বর্তমান বিশ্বে আছে এবং আসছে সেগুলোর জন্য তৈরী হবে। যেগুলোকে আমরা বলছি সফ্ট স্কীল। সবকিছু মিলিয়ে তারা যেন দক্ষ, যোগ্য, মানবিক ও সৃজনশীল মানুষ হয় সেটাই আমাদের প্রত্যাশা।

দীপু মনি বলেন, শিক্ষাক্রমে যে পরিবর্তন এসেছে, তা নিয়ে অপপ্রচার করা হচ্ছে এবং গুজব রটানো হচ্ছে। যারা কোচিং ও গাইড বই বিক্রি করছেন তারাও এর সাথে যুক্ত রয়েছেন। তারা এই ব্যবসা না করে অন্য ব্যবসা করতে পারবেন। তাদের কোন সমস্যা হবে না। কিন্তু আমাদের এই শিক্ষাক্রমের পরিবর্তন বিষয়ে অভিভাবকদেরও সচেতন হতে হবে। তাদের সন্তানদেরকে এখন আর গাইড বই কিনে দেয়া লাগবে না। তারা প্রাইভেট পড়তে হবে না। তারা আনন্দের মধ্যে শিখবে। আমি সারাদেশের শিক্ষকদের সাথে কথা বলছি। তারা এই শিক্ষাক্রমের বাস্তবচিত্র আমার কাছে তুলে ধরছে। তারা বলছেন শিক্ষার্থীরা খুবই আগ্রহী এই শিক্ষাক্রমে।

ঢাবিয়ান চাঁদপুরের আহবায়ক ও চাঁদপুর সরকারি কলেজের শিক্ষক আলমগীর হোসেন বাহারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটারের চেয়ারম্যান মো. নুরুল আমিন, চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল, দৈনিক ঢাকার ডাক পত্রিকার সম্পাদক এবিএম শামছুল হাসান হিরু।

অনুষ্ঠানে ২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষে চাঁদপুর জেলা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। ঢাবিয়ান চাঁদপুর জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্য, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান, শিক্ষক ও সুধীজন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

উন্নয়নশীল দেশের মতো সহিংসতা করা কোনো রাজনৈতিক দলেরই উচিত নয়: দীপু মনি

ডেস্ক রিপোর্ট:

সমাবেশের নামে বিএনপির সহিংসতা করার পরিকল্পনা আছে। কারণ বিএনপি-জামায়াতের এমন অতীত রেকর্ড আছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শুক্রবার দুপুরে চাঁদপুর সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।
দীপু মনি বলেন, আওয়ামী লীগ শান্তির স্বপক্ষে ও মানুষের অধিকারের পক্ষে। সেই দায়িত্ব আওয়ামী লীগ সবসময় পালন করে এসেছে। তাই সরকারের পাশাপাশি দলও দায়িত্ব পালন করবে। বিএনপি সমাবেশের নামে সহিংসতা করার পরিকল্পনা আছে বলে জনমনে আশঙ্কা রয়েছে। তাই উন্নয়নশীল দেশের মতো এমন একটি দেশে সহিংসতা করা কোনো রাজনৈতিক দলেরই উচিত নয় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, পৌর মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েলসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।