Tag Archives: পরিবারকে অপহরণ

নাঙ্গলকোটে প্রেম করে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে, ছেলের বাড়িঘর ভাংচুরের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে প্রেম করে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করার অপরাধে রবিউল আলম (২৩) নামের এক ছেলের পরিবারকে অপহরণ মামলা দিয়ে বাড়ি ছাড়া করে ও বাড়িঘর ভাংচুর করে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করার অভিযোগ মেয়ের পরিবারের বিরুদ্ধে। উপজেলার বক্সগঞ্জ ইউপির চান্দপুর গ্রামের মৃত মুন্সি মিয়ার এ ঘটনা ঘটে।

ভোক্তভূগী পরিবার সুত্রে জানা গেছে, রবিউল একই গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম টিপু মেয়ে বিবি খাদিজার (১৩) সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেন। বিবি খাদিজার বক্সগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী। প্রেমের সম্পর্ককে বিয়েতে রুপ দেয়ার জন্য চলতি বছরের গত (১৭ জুলাই) কোর্ট এফিডেভিডের মাধ্যমে পালিয়ে বিয়ে বলে এমনটি জানিয়েছেন ছেলের পরিবার। পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে মেয়ের পিতা জাহাঙ্গীর আলম গত ২ আগস্ট বাদি হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। মামলায় রবিউল হোসেন, তার সেজো ভাই আমির হোসেন, বড় ভাই মোস্তাফা ও বোন তাজনেহার বেগমকে আসামি করা হয়। মামলা হওয়ার কথা শুনে ভয়ে ভোক্তভূগী পরিবারের সদস্যরা বাড়ি পালিয়ে আত্মগোপনে চলে যায়। এদিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চান্দপুর গ্রাম থেকে শুক্রবার (১১ আগষ্ট) রাতে মামলার ৩ নং আসামি বড় ভাই মোস্তফাকে পুলিশ গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। গত সোমবার (১৪ আগস্ট) রবিউল আলম ছাড়া বাঁকি তিন আসামি জামিন নিয়ে বাড়িতে আসেন।

এরি ফাঁকে জাহাঙ্গীর আলম টিপু ও তার ভাই ঈসমাইল হোসেন তাদের মেয়ে কে বাহির করে দেয়ার জন্য বিভিন্ন হুমকি দুমকি দেয়। সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে বাড়িঘর ভাংচুর করে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করছে বলে এমনটি জানান ছেলে পরিবার।

এ বিষয়ে ছেলের মা আনোয়ারা বেগম বলেন, ছেলে আর মেয়ে পালিয়ে আত্মগোপনে গিয়ে বিয়ে করে। তার অপরাধে আমাদেরকে মামলা দিয়ে হয়রানি করে। আমরা গত এক মাস ধরে বাড়ি থেকে পালিয়ে আত্মগোপনে রয়েছি। বিভিন্ন সময় মেয়ে বাবা ও চাচা বাড়িতে হুমকি দুমকি দেয়। এতেও ক্ষান্ত হয়নি তারা। সর্বশেষ বাড়িঘর ভাংচুর করে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মেরে ফেলে। এতে প্রায় ৭০-৮০ হাজার টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা তিনি।

মামলার আসামি আমির হোসেন বলেন, ছেলে মেয়ে পালিয়ে বিয়ে করেছে। এতে আমাদের অপরাধ কি? আজকে অপহরণ মামলা মাথায় নিয়ে বাড়ি ছাড়া হয়েছি। আবার মেয়ের পিতা ও চাচা বাড়িঘর ভাংচুর করে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করে। আমরা চাই ছেলে মেয়ে কই আছে তাদেরকে খোঁজ করে বাহির করতে।

এ বিষয়ে জাহাঙ্গীর আলম টিপু বলেন, রবিউল তার মেয়েকে বিদ্যালয়ে যাওয়া আসার পথে প্রায় সময় উত্তপ্ত করত। এ নিয়ে এলাকায় শালিস দরবারও হয়। রবিউল মেয়েকে উত্তপ্ত করবে না বলে একটি মুচলিকা দেন।

মেয়েটি ৭ম শ্রেণীতে পড়েন। সে ক্ষিপ্ত হয়ে তার মেয়ে অপহরণ করে নিয়ে যায়। বাড়ি ঘর ভাংচুর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। তারা এখন মিথ্যা নাটক সাজাচ্ছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নাঙ্গলকোট থানার এস আই উজ্ঝল চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, এই ঘটনায় একটি অপহরণ মামলা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন অবস্থা রয়েছে। এক আসামিকে আটক জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। বাড়িঘর ভাংচুর ও পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন বিষয়ে কোন অভিযোগ পাইনি।