Tag Archives: যুক্তরাষ্ট্রে তাইওয়ানের ভাইস প্রেসিডেন্ট

যুক্তরাষ্ট্রে তাইওয়ানের ভাইস প্রেসিডেন্ট, চীনের হুঁশিয়ারি

অনলাইন ডেস্ক:

সংক্ষিপ্ত সফরে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে পৌঁছেছেন তাইওয়ানের ভাইস প্রেসিডেন্ট উইলিয়াম লাই। রোববার (১৩ আগস্ট) তিনি নিউইয়র্কে পৌঁছান বলে জানিয়েছে আলজাজিরা।

প্যারাগুয়ের প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে লাতিন আমেরিকার দেশটি সফরে যাচ্ছেন তিনি। প্যারাগুয়ে যাওয়ার পথে নিউইয়র্কে যাত্রাবিরতি করেন তিনি। এ ছাড়া সে অনুষ্ঠান শেষে তাইপে ফেরার পথে মার্কিন শহর সান ফ্রান্সিসকোতে দ্বিতীয় যাত্রাবিরতি করার কথা রয়েছে তার।

রোববার নিউইয়র্কে অবতরণের পর টুইটারে লেখেন, ‘স্বাধীনতা, গণতন্ত্র সুযোগ-সুবিধার প্রতীক বিগ অ্যাপলে (নিউইয়র্ক) আসতে পেরে ভালো লাগছে।’

তিনি আরও জানান, তাইওয়ানের আমেরিকান ইনস্টিটিউটের প্রতিনিধিরা তাকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানান। তাইওয়ান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক না থাকলেও এই ইনস্টিটিউটটি মার্কিন ডি ফ্যাক্টো দূতাবাস হিসেবে কাজ করে থাকে।

আগামী জানুয়ারি মাসে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। এ নির্বাচনের অন্যতম হেভিওয়েট প্রার্থী লাই। তাইওয়ানের স্বাধীনতার ব্যাপারে বর্তমানে প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েনের চেয়ে বেশি সোচ্চার তিনি।

এদিকে লাইয়ের এই সফর নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে চীন। তাইওয়ানকে নিজেদের ভূখণ্ড দাবি করে থাকে চীন। একসময় স্বশাসিত দ্বীপটিকে নিজেদের মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে যুক্ত করার ঘোষণা দিয়ে রেখেছে তারা। এমনকি প্রয়োজন হলে বলপ্রয়োগের কথাও জানিয়েছে দেশটি।

নিউইয়র্কে লাইয়ের অবতরণের পরপরই এক বিবৃতিতে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, তারা যুক্তরাষ্ট্রে ‘তাইওয়ানের স্বাধীনতাকামীদের’ যেকোনো ধরনের সফরের বিরোধিতা করে।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তাইওয়ান চীনের অন্যতম প্রধান বিষয়। বিভিন্ন তথ্য প্রমাণ থেকে দেখা যায়, স্বাধীনতার বিষয়ে তাইওয়ান যুক্তরাষ্ট্রের ওপর নির্ভরের চেষ্টা করায় তাইওয়ান প্রণালিতে উত্তেজনা বাড়ছে।

তবে এসব বিষয় চীন নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। দেশের সার্বভৌমত্ব, আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষায় দৃঢ় ও জোরালো পদক্ষেপ নেবে বেইজিং।

অবশ্য চীন এ ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে সে কথা আগেই জানিয়েছিল তাইওয়ানের কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, আগামী সপ্তাহে তাইওয়ানের কাছাকাছি সামরিক মহড়া চালাতে পারে চীন। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে ও লি’র যুক্তরাষ্ট্রে সফরের জন্য জনগণকে ভয় দেখাতে এ মহড়া চালানো হতে পারে।

এর আগে ২৮ জুলাই তাইওয়ানকে নতুন করে ৩৪৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সামরিক সহায়তা প্যাকেজ দেওয়ার ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

এবারের সামরিক সহায়তার মধ্যে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম, সামরিক শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা থাকবে। তবে তাইওয়ানকে ঠিক কী ধরনের অস্ত্র বা সরঞ্জাম দেওয়া হবে তার উল্লেখ করেনি হোয়াইট হাউস।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, এবারের প্যাকেজে বহনযোগ্য বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, ছোট আকারের অস্ত্রের জন্য গোলাবারুদ ও গোয়েন্দা সরঞ্জাম থাকবে।