Tag Archives: লাকসাম থেকে হেঁটে নাঙ্গলকোট করোনা রোগী: এনএসআইয়ের তত্ত্বে উদ্ধার করলো প্রশাসন

লাকসাম থেকে হেঁটে নাঙ্গলকোটে করোনা রোগী: এনএসআইয়ের তত্ত্বে উদ্ধার করলো প্রশাসন

 

স্টাফ রিপোর্টার :
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগী লক্ষ্নীপুর থেকে পালিয়ে নাঙ্গলকোট হয়ে কক্সবাজার যাওয়ার সময় জাতীয় নিরাপত্তা  গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই কুমিল্লার যুগ্ম পরিচালক  জি এম  আলিমউদ্দিনের তত্ত্বের ভিত্তিতে  কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোঃ আবুল ফজল মীরের  সহায়তায়   শনিবার রাত সাড়ে ১১ টায়  নাঙ্গলকোট রেলস্টেশন থেকে  তাকে উদ্ধার করে  উপজেলা আইসোলেশান সেন্টারে  নিয়ে যান নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লামইয়া সাইফুল।  

তিনি রামগঞ্জ থেকে লাকসাম জংশনে এসে সেখান থেকে হেঁটে নাঙ্গলকোট রেলস্টেশনে যান।  বর্তমানে তাকে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

জানা যায়, চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ এলাকার ওই লোকটি লক্ষীপুর জেলার রামগঞ্জ পৌরসভায় পরিবার নিয়ে ভাড়া বাসায় বসবাস করেন। তিনি কক্সবাজারে শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। রামগঞ্জে ভাড়া বাসায় তার করোনার উপসর্গ দেখা দিলে নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর-এ পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) তার পজেটিভ রিপোর্ট আসলে সেখানকার লোকজন তাকে বাড়ি ছেড়ে দিতে চাপ প্রয়োগ করে। এক পর্যায়ে তিনি শনিবার বাড়ি থেকে পালিয়ে চালের ট্রাকযোগে লাকসাম জংশন আসেন। পরে সেখান থেকে রেললাইনের পথ ধরে হেঁটে হেঁটে নাঙ্গলকোটে রেলস্টেশনে যান। বর্তমানে এ সড়কটি ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করেন চিকিৎসকরা।

জানা যায়, সে রামগঞ্জ থেকে পালিয়ে  যাওয়ার খবর পেয়ে এনএসআই তাকে খুজঁতে থাকে। এক পর্যায়ে নাঙ্গলকোটে রেলস্টেশনে তার সন্ধান পেয়ে এনএসআই তাকে নজরদারিতে রাখে  এবং জেলা  প্রশাসক ও পুলিশ প্রশাসনকে এ বিষয়ে তত্ত্ব দেন এনএসআই। এরপরই এই রোগীকে উদ্ধার করে  উপজেলার আইসোলেশান সেন্টারে নেয়া হয়। বর্তমানে তাকে সেখানে নিবিড় পর্যবেক্ষণে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লামইয়া সাইফুল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রাতেই নাঙ্গলকোট রেলস্টেশন থেকে তাকে উদ্ধারের পর জীবানুনাশক স্প্রে করা হয়েছে।  জননিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে লাকসাম রেলওয়ে জংশনে জীবানুনাশক স্প্রে করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছেন বলে জানান। তিনি সকলকে আপাতত লাকসাম জংশন থেকে নাঙ্গলকোট পর্যন্ত রেলসড়কে হেঁটে চলাচল না করার নির্দেশনা দেন।