Tag Archives: সিলগালা

শাহরাস্তিতে লাইসেন্স না থাকায় দুই ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে সিলগালা

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে লাইসেন্স না থাকায় দুই ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। এ সময় উভয় প্রতিষ্ঠানকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। সোমবার (২২ জানুয়ারি) চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার কালিয়াপাড়া বাজার ও আয়নাতলী বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এ জরিমানা এবং সিলগালা করেন।

শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াসির আরাফাত এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতে অংশ নেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ নাসির উদ্দিন, মেডিকেল অফিসার ডা. মোঃ সরোয়ার হোসেন।

চাঁদপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় ও শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, শাহরাস্তি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। তফসীলভুক্ত আইন ২০০৯ এর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ২৭ ধারা মোতাবেক ০৩/২০২৪ নং মামলায় এই রায় দেয়া হয়।

এ সময় উপজেলার কালিয়াপাড়া বাজারের গ্রীন ভীউ ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কোনো অনুমোদন পাওয়া যায়নি। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এছাড়াও উপজেলার আয়নতলী বাজারের নিউ ভি.আই.পি ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টারের লাইসেন্স নেই। নানা অভিযোগের ভিত্তিতে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করা হয়েছে। এরকম অভিযান নিয়মিত চালানো হবে। স্বাস্থ্য বিভাগের নিয়ম মেনে ডায়াগনস্টিক সেন্টার, হাসপাতালগুলোকে অবশ্যই চলতে হবে বলে জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

কুমিল্লায় দুটি হাসপাতালকে সিলগালা, তিন লাখ টাকা জরিমানা

কুমিল্লায় দু’টি হাসপাতালকে সিলগালা, তিন লাখ টাকা জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লা মেট্রোপলিটন হসপিটালে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার বৈধ কাগজপত্র পায়নি ভ্রাম্যমাণ আদালত ও স্বাস্থ্য বিভাগ। এই হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারকে ব্যবহারের অযোগ্য বলে ঘোষণা করে সিলগালা করা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগের অভিযানে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করার পাশাপাশি কর্তৃপক্ষকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

একদিন আগেও এ হাসপাতালে করা হয়েছে এক প্রসূতি মায়ের অস্ত্রোপচার। নবজাতক শিশুসহ ওই মাকে আবার রাখা হয়েছে অপারেশন থিয়েটারের লাগোয়া অস্বাস্থ্যকর কেবিনে।

যে হাসপাতালটিকে অনেক অনিয়মের অভিযোগে সিলগালা করা হলো, সেই হাসপাতালেই চিকিৎসা দিতে আসেন কুমিল্লার নামকরা চিকিৎসকরা।

এছাড়াও এক বছর ধরে কার্যক্রম চালানো নগরীর বাদুরতলা এলাকার মেডিকন স্পেশালাইজড হাসপাতালেরও নেই কোনো অনুমোদন ও কাগজপত্র। শুধুমাত্র মেশিনপত্র কিনেই হাসপাতাল নাম দিয়ে এর কার্যক্রম চলমান। ডেঙ্গু পরীক্ষাসহ প্রায় সকল ধরনের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় সরকার অনুমোদিত মূল্যের তুলনায় বেশি নেওয়ার প্রমাণও পাওয়া যায়।

সরেজমিনে হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দুইটি বেড রেখেই সামনে ইমার্জেন্সি সিল লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেখানেই আছে একটি অক্সিজেন সিলিন্ডারও। তবে হাসপাতালের ফার্মেসির কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়াও হাসপাতালের যে সকল সরঞ্জাম থাকার কথা তার পর্যাপ্ত ছিল না। যে কারণে এক লাখ টাকা জরিমানা ও হাসপাতালের সকল বিভাগসহ হাসপাতাল সিলগালা করা হয়েছে।

উক্ত অভিযান পরিচালনা করেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অতীশ সরকার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মেহেদী হাসান (এমওসিএস) ও ডা. মো. আবদুল কাউয়ুম (এমও কোর্ডিনেটর)।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার মো. মেহেদী হাসান জানান, মেডিকন হাসপাতালের কোনো অনুমতিপত্র নেই। তারা অনুমতি ছাড়াই রোগী ভর্তি, পরীক্ষা ও অস্ত্রপচার করে যাচ্ছিল। এছাড়াও তারা সকল পরীক্ষার দামও বেশি রাখে।

জরুরি বিভাগের ভেতর শুধু দুইটা বেড ছাড়া আর কিছুই নেই। এমন অনিয়মের কারণে তাদের জরিমানা করা হয়েছে।

এছাড়া মেট্রোপলিটন হাসপাতালের অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও রোগী দেখার দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক না থাকাসহ নানান অভিযোগে হাসপাতালটিকে সিলগালা এবং দুই লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে ৪ হাসপাতাল সিলগালা

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে ৪টি বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালিয়েছে প্রশাসন। এসময় বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানগুলো সিলগালা করে দেওয়া হয়।

রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউর রহমান এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউর রহমান জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী- বিকেলে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়। এসময় লাইসেন্স না থাকাসহ বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে ৪টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়।

এর মধ্যে শ্রীরায়েরচর বাজারের ইউনিক হাসপাতালকে এক লাখ টাকা, ফ্যামিলি-২ হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ৫০ হাজার, গোয়ালমারি বাজারের বিসমিল্লাহ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ৫০ হাজার ও নৈয়াইর বাজারের নোহা ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানগুলোকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বলেও জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলাকালে উপস্থিত ছিলেন দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদ আল হাসান।