বুধবার, ১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লার মেঘনায় ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আব্বাসীর উপর সন্ত্রাসী হামলা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
আগস্ট ১৮, ২০২০
news-image

 

জাকির হোসেন হাজারী:
কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার ভ্ওারখোলা ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আব্বাসীর উপর হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা।

সোমবার সন্ধ্যায় মেঘনা- ভাটেরচর সড়কের কদমতলী বাসস্ট্যান্ডে এ হামলার ঘটনা ঘটে। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও পুলিশ আহত অবস্থায় ফারুক আব্বাসীকে উদ্ধার করে মেঘনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে রাতেই তাকে ঢাকায় রেফার করা হয়। হামলার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছে প্রশাসন।

ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আব্বাসী বলেন, সোমবার বিকেলে কদমতলী বাসস্ট্যান্ডের ইসলামিয়া ফার্মেসীতে পেশার চেক করার জন্য যাই। হঠাৎ করে মাইজুদ্দিন , মহসিন, কালাম ও মহারাজসহ ১০/১২জন আমার উপর হামলা করে। তাদের হাতে থাকা লোহার পাইপ, রামদা ও হাতুরি দিয়ে এলোপাতারি আমার উপড় আঘাত করে। আমার কোমরে থাকা লাইসেন্স করা পিস্তল ও ৫০ রাউন্ড গুলি নিয়ে যায় । আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই তারা এ হামলা চালায়।
চেয়ারম্যান ফারুক বলেন, আমার উপর হামলা হতে পারে বা আমাকে হত্যা করতে পারে বিষয়টি আচ করতে পেরে কয়েকমাস আগে মেঘনা থানায় সাধারণ ডায়েরী করি।

মেঘনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ সাইফুল্লাহ মিয়া রতন শিকদার বলেন, হামলার খবর পেয়ে ওসি সাহেবসহ আমি ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় ফারুক চেয়ারম্যানকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখান থেকে রাতেই তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। একজন জনপ্রতিনিধির উপর হামলা কোন ভাবেই মেনে নেয়া যায় না। আমি এ হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

মেঘনা থানার ওসি আব্দুল মজিদ বলেন, হামলার ঘটনায় কোন অভিযোগ পাইনি, আর চেয়াম্যানের লাইসেন্স করা অস্ত্রটি এবং ম্যাগজিন ভর্তি আট রাউন্ড গুলি পাশের ঈদগা মাঠ থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করি। অভিযোগ প্রাপ্তি সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

হামলার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে সহকারী পুলিশ সুপার(হোমনা সার্কেল) মোঃ ফজলুল করিম জানান।

আর পড়তে পারেন