বুধবার, ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বুড়িচংয়ে বিকাশ হ্যাকিং চক্রের মূল হোতা গ্রেফতার, ৬৩টি সিম, ডিভাইসসহ ইলেকট্রিক সামগ্রী উদ্ধার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৪, ২০১৮
news-image

মো.জাকির হোসেন,বুড়িচং :

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার বিকাশ হ্যাকিং চক্রের মূল হোতা খোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এসময় তার কাছ থেকে ৬৩টি সিম, ডিভাইসসহ ইলেকট্রিক সামগ্রী উদ্ধার করা হয়। জেলার বুড়িচং উপজেলার ছয়ঘড়িয়া এলাকা থেকে হ্যাকিংয়ে ব্যবহৃত এসব ইলেকট্রিক সামগ্রীসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর শাকতলা এলাকায় র‌্যাব-১১ এর কুমিল্লাস্থ সিপিসি-২ কার্যালয়ে এক প্রেসব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান র‌্যাবের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মো. আতাউর রহমান।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার ভোর রাতে র‌্যাবের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মো. আতাউর রহমানের নেতৃত্বে জেলার বুড়িচং উপজেলার ছয়ঘড়িয়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ওই গ্রামের মৃত ফজর আলীর ছেলে খোরশেদ আলমকে (২৭) গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার বাসা থেকে হ্যাকিংয়ের কাজে ব্যবহৃত ২টি ল্যাপটপ, ২টি কম্পিউটার, ৪টি ওয়াইফাই রাউটার, ৭টি পেনড্রাইভ, ২টি হার্ড ড্রাইভ, ২টি হার্ড ডিস্ক, ১টি মডেম, ৭টি হ্যাকিং সফটওয়্যার ভাইরাস সিডি, ১টি ইউপিএস, ৯টি মোবাইল, ৬৩টি সিম কার্ড, প্রতারণা করে টাকা ট্রান্সফারের কাজে ব্যবহৃত ৭টি এটিএম কার্ড, ২টি ব্যাংকের চেক বই এবং ২টি ড্রাইভিং লাইসেন্স উদ্ধার করা হয়।

প্রেসব্রিফিংয়ে র‌্যাবের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মো. আতাউর রহমান জানান, হ্যাকার খোরশেদ আলম জানান, ২০০৯ সালে জীবিকা অর্জনের জন্য মালদ্বীপে গমন করে। ওইদেশে থাকাকালীন সময়ে সে এক অনলাইন হ্যাকারের কাছ থেকে হ্যাকিং বিষয়টি রপ্ত করে ২০১৫ সালে দেশে ফিরে আসে। এরপর থেকে এ পর্যন্ত হ্যাকিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে খোরশেদ আলম হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে অসংখ্য বিকাশ এজেন্ট, মানি ট্রান্সফার এজেন্ট, ব্যক্তিগত বিকাশ একাউন্ট থেকে দেশের এবং প্রবাসীদের প্রেরিত প্রায় ৩ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এ চক্রের সাথে জড়িত অপর সদস্যদের গ্রেফতারে র‌্যাবের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

আর পড়তে পারেন