সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ভক্তদের সেরা লিওনেল মেসি, বাকিদের চোখে লেভানডফস্কি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জানুয়ারি ১৯, ২০২২
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্ট:

লিওনেল মেসি ও মোহাম্মদ সালাহকে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ‘ফিফা দ্য বেস্ট’ হয়েছেন রবার্ট লেভানডফস্কি। বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে আরেকটি দুর্দান্ত মৌসুম কাটানো লেভানডফস্কি ২০২১ সালে ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে ৬৯ গোল করেছেন। মাত্র ৫৯ ম্যাচে এমন গোলবন্যা তাঁকে মেসি-রোনালদোর যুগে একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে দুবার বিশ্বসেরা করেছে।

এ পুরস্কারে ফিফা গণতন্ত্রকে শ্রেষ্ঠ পন্থা বলে মেনে নেয়। বিশ্বের সব জাতীয় দলের কোচ, অধিনায়কের কাছে ভোট চাওয়া হয়। প্রতিটি দেশ থেকে একজন সাংবাদিকও ভোট দেন। সেই সঙ্গে অনলাইনে সারা বিশ্বের ফুটবল–সমর্থকেরও ভোট দেওয়ার সুযোগ করে দেওয়া হয়। এভাবে চারটি বিভাগ থেকে প্রাপ্ত ভোটকে সমান গুরুত্ব দিয়ে চূড়ান্ত হয় বিজয়ীর তালিকা। ২০২১ সালে সবার ভোট হিসাব করে লেভানডফস্কিই এগিয়ে আছেন। কিন্তু সমর্থকদের চোখে সেরা একজন, লিওনেল মেসি।

গতকাল ঘোষিত পুরস্কারে দেখা গেছে, সেরার দৌড়ে সালাহ বাকি দুজনের তুলনায় একটু পিছিয়ে ছিলেন। তবে সমর্থকদের ভালোবাসা মেসিকে লেভানডফস্কির সঙ্গে লড়াইয়ে অনেকটাই এগিয়ে দিয়েছিল। গতকাল দ্য বেস্টে তিনজনের প্রাপ্ত ভোট দেখাচ্ছে, সালাহ ও মেসির মধ্যকার পয়েন্টের পার্থক্যের চেয়ে মেসি ও লেভানডফস্কির পাওয়া পয়েন্টের ব্যবধান কম।

এই ভোটাভুটিতে স্বাভাবিকভাবেই ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ উঠে আসে। সমর্থকেরা প্রিয় খেলোয়াড়কে ভোট দেন। এদিক থেকে মেসির অর্ধেক ভোটও পাননি লেভানডফস্কি। আর সালাহ পেয়েছেন দুজনের মাঝামাঝি ভোট।

ফিফার অধীন ২১১টি দেশ থাকলেও এবার ভোটাভুটিতে সবাই অংশ নেননি। ১৯৫টি দেশের অধিনায়ক ভোট দিয়েছেন। সাংবাদিকদের ভোট এসেছে ১৯৪ দেশ থেকে। এদিক থেকে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী ছিলেন জাতীয় দলের কোচরা।

পছন্দের ব্যক্তিকে ভোট দেওয়ার ক্ষেত্রটা শুধু সমর্থকদের ক্ষেত্রেই থাকে না। জাতীয় দলের কোচ-অধিনায়ক নিজ দলের খেলোয়াড়কে ভোট দেওয়ার চেষ্টা করেন। জাতীয় দলের খেলোয়াড়কে ভোট দেওয়ার সুযোগ না থাকলে ক্লাবের খেলোয়াড়কে ভোট দেন। নেইমার যেমন ২০২১ সালে বলার মতো কিছু না করেও ব্রাজিলের থিয়াগো সিলভা ও ক্লাব সতীর্থ মেসির চোখে বছরের সেরা হয়েছেন।

তবু অধিকাংশ কোচ, অধিনায়ক ও সাংবাদিক তিনজনকে ভোট দেন বলে বছরের সেরারাই শেষ পর্যন্ত এগিয়ে যান। পছন্দের তালিকায় যিনি একে থাকেন, তিনি ৫ পয়েন্ট পান। দুই ও তিনে থাকলে জোটে ৩ ও ১ পয়েন্ট।

এভাবে পয়েন্ট যোগ করে দেখা গেছে, কোচ, অধিনায়ক ও সমর্থক—সবার চোখেই এবার লেভানডফস্কি সেরা।

তবু কিছু কিছু ক্ষেত্রে একটু ব্যতিক্রম দেখা গেছে। যেমন তিন ক্ষেত্রেই লেভানডফস্কি এগিয়ে আছেন। তবে মেসিকে যাঁরা সবার সেরা বলছেন, তাঁদের মধ্যে সাংবাদিকদের সংখ্যা বেশি। ওদিকে সালাহকে সেরা বেশি বলেছেন কোচরা। লেভানডফস্কির ক্ষেত্রে কোচরা তাঁকে একটু কম পছন্দ করেছেন। তাঁদের মধ্যে ৮২ জন অধিনায়ক, ৮৪ জন সাংবাদিক তাঁকে শীর্ষে রেখেছেন। ওদিকে কোচের সংখ্যা ১০ বেশি হলেও কোচদের মধ্যে তাঁকে সেরা বলেছেন ৭৬ জন।

সব মিলিয়ে ৫৯৩ জন ভোট দিয়েছেন ফিফা বেস্টে। তাঁদের মধ্যে ২৪২ জন সেরা হিসেবে বেছে নিয়েছেন লেভানডফস্কিকে। আর মাত্র একজন সেরা হিসেবে বেছে নিয়েছেন হরলান্ডকে। এ বছর করিম বেনজেমা ও জর্জিনিওকে যথাক্রমে ৪২ ও ৪১ জন বছরের সেরা বলেছেন। অথচ ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে বেছে নিয়েছেন মাত্র ২৬ জন।

সূত্র: প্রথম আলো।

আর পড়তে পারেন