শুক্রবার, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ব্রাহ্মণপাড়ায় প্রবাস ফেরত যুবককে অপহরণ করে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী, ৭ দিন পর আহত অবস্থায় ঢাকা থেকে উদ্ধার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯
news-image

আনোয়ারুল ইসলাম ॥
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা থেকে প্রবাস ফেরত ইয়াছিন আহাম্মেদ সোহাগ (৩০) নামের এক যুবককে অপহরণ করা হয়। অপহরণের পর সোহাগকে শারীরিক ও মানষিক নির্যাতনের ভিডিও চিত্র এবং ছবি তার পরিবারের নিকট পাঠিয়ে ২০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে অপহরণকারী দল। এ ঘটনায় সোহাগের ভাই সুজন মিয়া ব্রাহ্মণপাড়া থানায় নজরুল ইসলাম সুমন নামের এক ব্যাক্তিকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ অপহরণের সাতদিন পর প্রবাস ফেরত যুবক মোঃ ইয়াছিন আহাম্মেদ সোহাগকে ঢাকার পোস্তগোলা ব্রীজের কাছ থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে।

শুক্রবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ।

ইয়াছিন আহাম্মেদ সোহাগ ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার শিদলাই ইউনিয়নের পোমকারা গ্রামের ছিদ্দিকুর রহমানে ছেলে। অভিযুক্ত নজরুল ইসলাম সুমন চাঁদপুর জেলার সদর থানার পশ্চিম হোসেনপুর গ্রামের মৃত আবিদ মাষ্টারের ছেলে। সম্পর্কে তারা উভয়ে বন্ধু।

এ ব্যাপারে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) সাখাওয়াত হোসেন জানান, ইয়াছিন আহাম্মেদ সোহাগ চলতি মাসের সাত তারিখ সৌদি আবর থেকে বাড়িতে আসেন। গত ১২ সেপ্টেম্বর তার বন্ধু নজরুল ইসলাম সুমন তাকে ইতালি নেয়ার কথা বলে ভিসা প্রসেসিংয়ের জন্য বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে সোহাগকে বিভিন্ন স্থানে আটকে রেখে তাকে নির্যাতনের বিভিন্ন ভিডিও চিত্র ও ছবি পাঠিয়ে তার পরিবারের কাছে মোবাইল ফোনে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে। পরিবারের লোকজন এ ব্যপারে ব্রাহ্মনপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ে করে। অভিযোগের ভিত্তিতে ব্রাহ্মণপাড়া থানা অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আবু মোহাম্মদ শাহজাহান কবির এর নেতৃত্বে অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) শামসউদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াস ও তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. বাবুল হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স সহ মোবাইল ফোন ট্রেকিংয়ের মাধ্যমে চাঁদপুর ও নারায়নগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। পুলিশের তৎপরতা জানতে পেরে অপহরণকারীরা গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে ঢাকার শ্যামপুর থানার পোস্তগোলা ব্রীজের কাছে হাত-পা বেঁধে আহত অবস্থায় ইয়াছিন আহাম্মেদ সোহাগকে ফেলে যায়। ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশ শ্যামপুর থানা পুলিশের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে থানা পুলিশ তাকে চিকিৎসাসেবা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে জবানবন্দী রেকর্ডের পর তাকে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে।

এব্যাপারে ব্রাহ্মণপাড়া থানা অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আবু মোহাম্মদ শাহজাহান কবির জানান, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার পোমকাড়া গ্রামের ছিদ্দিকুর রহমানে ছেলে ইয়াছিন আহাম্মেদ সোহাগ অপহরণের মামলা রুজুর পর কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইলাম বিপিএম (বার) পিপিএম এর দিক নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) সাখাওয়াত হোসেন ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার দেবিদ্বার সার্কেল মোহাম্মদ আমিরউল্লাহ এর প্রত্যক্ষ তদারকিতে এবং কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখার এলআইসি টিমের সহায়তায় অপহরিত ইয়াছিন আহাম্মেদ সোহগকে আমরা ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশ উদ্ধার করতে সক্ষম হই। এসময় তিনি আরো জানান, অপহরনকারীদের চিহ্নিত করা হয়েছে এবং তাদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

আর পড়তে পারেন