বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মাদকে ভাসছে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলা, নিরব প্রশাসন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
আগস্ট ২, ২০২২
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

মাদকে ভাসছে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলা। হাত বাড়ালেই যেখান সেখানে পাওয়া যায় ক্ষতিকারক নেশা মাদক। মাদক সেবন, বেচা কিনা এখানে অনেকটা ফ্রি স্টাইলে চলছে। পার্শ্ববর্তী উপজেলা চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় খুব সহজে নেশা জাতীয় খাদ্য মাদক দ্রব্য পাওয়া যায়। সহজে মাদক পাওয়া যাওয়ায় ব্যাপক হারে যুব সমাজ মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে। যুব সমাজের পাশাপাশি কিশোর ও ছাত্র সমাজ মাদকের সাথে জড়িয়ে (মাদকাসক্ত হয়ে) পড়ছে। অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের নিয়ে চরম ভোগান্তি পোহাচ্ছে। দিন দিন তাদের চিন্তা আরো বাড়িতেছে।

এ বিষয়ে এখানে প্রশাসনিক তেমন কোন তৎপর না থাকায় এর প্রভাব দিন দিন আরো বাড়ছে। অভিযোগ রয়েছে প্রশাসনের কিছু অসাধু কর্তা বাবুর সাথে গোপনীয় চুক্তি করে মাদক ব্যবসায়ীরা তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে এসব অপরাধীদের প্রভাব ( দাপট) আরো বেশি বেড়ে যায়। যার ফলে মান সন্মান ও ইজ্জতের ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পায়না। দু’এক জায়গায় মাদকের বিষয় নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অনেককে নাজেহাল হওয়াসহ মারধর খাবার ঘটনাও ঘটেছে।

এলাকাবাসীর দাবী জরুরী ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে সামনে আরো খারাপ অবস্হা বিরাজ করার আশংকা রয়েছে।

এদিকে এই উপজেলায় কিশোর গ্যাং এর তৎপরতা বেড়ে গেছে। তাদের উৎপাতে এখন দিশেহারা সাধারণ লোকজন। এসব উঠতি বয়সের ছেলেরা গ্যাং সৃষ্টি করে স্কুল কলেজে পড়ুয়া ছাত্রদের জড়িয়ে বিভিন্ন অপরাধজনিত কাজ করছে। জড়িয়ে পড়ছে মাধকের মত একটি নেশার সাথে। নেশার টাকার জন্য জড়িত হচ্ছে চুরি ডাকাতি ছিনতাই এর মত বিভিন্ন ধরণের অপরাধের সাথে। এসব কিশোর গ্যাং এর সদস্যগণ স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে যাওয়া ছাত্রীদের বিভিন্ন ভাবে উক্ত্যাক্ত করে থাকে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আশপাশে জড়ো হয়ে সিগারেট ও গাজা টানতে দেখা যায়। কেউ কিছু বললে তাদের নাজেহাল করে। বেশ কয়েক জায়গায় কয়েকটি অঘটনও ঘটেছে।

উপজেলার সাতবাড়ীয়া, ঢালুয়া, রায়কোট এবং বাংড্ডা ইউনিয়নের বিভিন্ন পথ দিয়ে নিয়মিত মাদকের চালান যায় বলিয়া লোকমুখে শুনা যায়। মাদক ব্যবসা অনেক লাভজনক হওয়ায় দিন দিন এ ব্যবসায় জয়াচ্ছে যুব সমাজ। প্রশাসনের কোন তৎপরতা না থাকায় নিরাপদ পথ হিসাবে নাঙ্গলকোট এর বিভিন্ন পত ব্যবহার করে মাদক ব্যবসায়ীরা। মাঝে মাঝে উতকোচ দিতে গাফলতি করলে ২/১ জনকে দরে। এতে আয়ের উতস নিয়মিত হয় এবং উপরস্থদের নিকট বাহবা পায়। এলাকার সচেতন সমাজের দাবী জরুরীভাবে উপরস্থ মহল অভিযান পরিচালনা করে মাদক পাচার ও সেবন করা বন্ধ করা না হলে এর পরিনতি ভয়াবহ হবে।

আর পড়তে পারেন