শনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

অমিতাভ বচ্চন ও আমির খানকে মুম্বাই পুলিশের সতর্কতা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
অক্টোবর ২, ২০১৮
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

তাদের মুলুকে থাগদের কোন জায়গা নেই’ অমিতাভ বচ্চন ও আমির খানকে এমনই বার্তা দিলেন মুম্বাই পুলিশ। এমন কথায় শোরগোল পড়ে গিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে এতে কিছু যায়-আসে না আমিরের। বরং মুম্বাই পুলিশের এই নির্দেশ হাসি মুখে মেনে নিয়েছেন তারা।

এমনকি মুম্বাই পুলিশের এই টুইটের উত্তর দিয়েছেন দুই সুপারস্টার। যেমন আমির জানিয়েছেন, যে মুম্বাই পুলিশ নিজেদের কাজে যথেষ্টই তুখোড়। তাই তো সবার ভরসা তাদের উপর। অন্যদিকে অমিতাভ বচ্চন মুম্বাই পুলিশের কাজকে সম্মান জানিয়েছেন।

কলকাতা২৪ পত্রিকার খবরে বলা হয়, আসলে গোটা বিষয়টার কেন্দ্রে ‘থাগস অফ হিন্দুস্থান’। এই ছবির একটি ডায়ালগকে নিয়ে একটি টুইট পোস্ট করেছে মুম্বাই পুলিশের একটি শাখা।

তারা জানায় যে তাদের মুলুকে থাগদের কোনো জায়গা নেই । নিজেদের দায়িত্বে তারা সর্বদাই সজাগ। তাই তো এমন কোনো থাগবাজ বা জোচ্চরদের নিজেদের রাজ্যের বাইরেই রাখতে সক্ষম তারা।

একজনের স্বভাব প্রতারণা আরেকজনের সততা। সেই থেকেই তৈরি হয়েছে লড়াই ময়দান। খুদাবক্সের সঙ্গে ফিরাঙ্গির মুখোমুখি সংঘর্ষের সাক্ষী থাকবে গোটা দেশ। তবে খুদাবাক্সের তলোয়ারের এক কোপে হার মানবে ফিরাঙ্গি? এমনটাই বলছে ‘থাগস অফ হিন্দুস্তান’ এর ট্রেলার।

এরই মাঝে উত্তাল সমুদ্র। জ্বলছে জাহাজ। তার মাঝে দাঁড়িয়ে ছিল চার থাগেরা। মুখে হিংসা আর কঠোরতার ছাপ। কেউ দাঁড়িয়ে তীর-ধনুক নিয়ে, তো কেউ তলোয়ার। এমনই ছিল ‘থাগস অফ হিন্দুস্তান’ এর চিত্র। ভক্তদের অনুমান ছিল ছবির চার চরিত্র অমিতাভ, আমির, ক্যাটরিনা এবং ফাতিমা মিলে একসঙ্গে লড়বে শত্রুদের বিরুদ্ধে। এরই মাঝে পাশাবদল।

ইস্ট ইণ্ডিয়া কোম্পানির বিরুদ্ধে লড়তে দাঁড়িয়ে রইল খুদাবক্স এবং জাফিরা। শত্রুপক্ষের পাশে দাঁড়িয়ে ফিরাঙ্গি। অন্যদিকে ইস্ট ইণ্ডিয়া কোম্পানির মালিক জন ক্লাইভকে নিজের শরীরি আবেদনে ভোলাতে সুরাইয়া একাই একশো। বাইজির পরিচয় সেখানে থাকলেও সুরাইয়াও একজন থাগ।

আর পড়তে পারেন