শুক্রবার, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লার দেবিদ্বারের  ৮ গ্রাম করোনার হটস্পট:  আক্রান্ত বেড়ে ৩৭

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৮, ২০২০
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লার দেবিদ্বারে স্রোতের ন্যায় বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। শুক্রবার  দন্ত চিকিৎসক, নারী, শিশুসহ একই পরিবারের আরো ৬  জন আক্রান্তের মধ্যদিয়ে এ উপজেলার করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৭ জন। এর মধ্যে গতকাল রাতে এক ব্যবসায়ীসহ ২  জনের মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত উপজেলার ৮টি গ্রামে এ সংক্রামণ ছড়িয়ে পড়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত ১০ এপ্রিল দেবিদ্বার উপজেলায় প্রথম করোনায় আক্রান্ত নবীয়াবাদ গ্রামের জীবন কৃষ্ণ সাহা নামের এক ব্যবসায়ী নারায়ণগঞ্জে গিয়ে মৃত্যু হয়।  ওই ঘটনার ১০দিন পর উপজেলার বাগুর গ্রামের শাহজালাল মেম্বার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এই দুই ব্যাক্তির মৃত্যুর পর উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ তাদের আত্বীয়-স্বজন ও তাদের সংস্পর্শে আসা লোকজনের নুমনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করেন। এতে নবীয়াবাদ ও বাগুর গ্রামে পজেটিভ রোগী পাওয়া যায় ১৩ জন। গত সাপ্তাহে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠে দেবীদ্বার পৌর শহর, বাগুর গ্রামের শাহ জালাল মেম্বারের মৃত্যুর ১০দিন পর অর্থাৎ ৩০এপ্রিল প্রবীণ হোমিও চিকিৎসক সুকুমার চন্দ্র দে’র মৃত্যুর মধ্য দিয়ে পজেটিভ রোগী পাওয়া যায় ৭ জন। তাৎক্ষনিক স্থানীয় প্রশাসন দেবীদ্বার উপজেলাকে রেড জোন ঘোষণা করে কঠিন করা হয় লকডাউন। বন্ধ করে দেওয়া হয় নিউ মার্কেটের কাঁচা বাজার। তারপর থেকে বৃদ্ধি পেতে থাকে করোনা পজিটিভ রোগী। এরই মধ্যে করোনা পজিটিভে যুক্ত হন আরো দুইজন। এ দুইজন নিয়ে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ায় ২২ জনে।

এদিকে করে বৃহস্পতিবার আরো ৯ জনের করোনা পজেটিভ আসায় পুরো উপজেলা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আক্রান্তদের একজন দেবীদ্বার পৌর এলাকার ৭নম্বর ওয়ার্ডের চাপানগর গ্রামের হাজারী বাড়ির সিরাজুল ইসলাম হাজারীর পুত্র মুদি মাল ব্যবসায়ী জামাল হাজারী (৩৮) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। একই দিন রাতে নবীয়াদের আতিকুলের (৬০) মৃত্যু হয়। এ নিয়ে গত ২৭দিনে করোনায় আক্রারন্ত হয়ে ৫  জনের মৃত্যু হয়।

 

আর পড়তে পারেন