রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চাঁদপুরে মিলল প্লাস্টিকের ডিম, পাঠানো হলো পরীক্ষাগারে

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ২৩, ২০২১
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ বাজারে প্লাস্টিক সন্দেহে তিনটি ডিম জব্দ করেছেন উপজেলা নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক শামছুল ইসলাম রমিজ।

শনিবার (২২ মে) জব্দকৃত ডিমের মধ্যে একটি সিলগালা ও দুটি পরীক্ষাগারে পাঠিয়েছেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হাজীগঞ্জ বাজারের শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ম্যানেজার জসিম উদ্দিন তালুকদার ১৯ মে পৌর হকার্স মার্কেটের মাইশাস্টোর থেকে ২০টি ডিম কেনেন। পরে তিনি ডিমগুলো বাসায় নিয়ে চারটি ডিম সিদ্ধ করেন। কিন্তু ডিমগুলো রাবারের মতো হয়ে যেতে দেখেন তিনি। আরও কয়েকটি ডিম সিদ্ধ করেন। এগুলোও একইরকম দেখতে পেয়ে ডিমগুলো প্লাস্টিক বলে সন্দেহ হয় তার।

বাকি ১০টি ডিম তিনি মাইশাস্টোরে ফেরত দেন এবং স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন ও স্থানীয় সাংবাদিকদের অবহিত করেন। এ সময় উৎসুক জনতা যাচাই করার জন্য কয়েকটি ডিম ভেঙে ফেলেন বলেও জানা গেছে।

দোকানের মালিক ইব্রাহিম খলিল বলেন, ‘ডিমগুলো প্লাস্টিক কি-না জানি না। আমি ডিম বিক্রির জন্য ব্যাপারী ও খামারিদের কাছ থেকে ডিম সংগ্রহ করি। শাহরাস্তির একজন খামারি আমাকে এই ডিমগুলো দোকানে দিয়ে গেছে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে খামারি মো. ইমাম হোসেন বলেন, ‘আমি হাজীগঞ্জ বাজারের কাজী স্টোরে সবসময় ডিম দিয়ে থাকি। পরে মাইশাস্টোর আমার কাছে ডিম চাইলে এক মাস আগে আমি উনাকে প্রথম ১২০ পিস ডিম দেই। পরে গত ৭ মে দ্বিতীয় বারের মতো ১৭০ পিস ডিম দেই। এছাড়া উনাকে শুধু আমি ডিম দেই না। যখন তিনি ডিম বিক্রি করেছেন তখন ডিমের বয়স চৌদ্দ থেকে পনের দিন। এতদিনে ডিমগুলো নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক শামছুল ইসলাম রমিজ বলেন, ‘ঘটনাস্থলে পৌঁছে আমি তিনটি অক্ষত ও একটি ভাঙা ডিম জব্দ করি। যার মধ্যে দুটি ডিম মহাখালী জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। বাকি একটি ডিম সিলগালা করে বিক্রেতার কাছে রাখা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডিমগুলো প্লাস্টিকের কি-না তার রিপোর্ট আসতে আনুমানিক এক থেকে দুই মাস সময় লেগে যেতে পারে।’
সূত্র-জা:নি

আর পড়তে পারেন