শনিবার, ২রা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

দেবিদ্বারে শিক্ষকের কারনে বুকের পাঁজর ভেঙেছে শিক্ষার্থীর

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ৯, ২০১৯
news-image

ডেস্ক রিপোর্ট :
শ্রেণীকক্ষে পাঠদান বন্ধ রেখে ছাত্রদের দিয়ে বিদ্যালয়ের নির্মাণাধীন ভবনের ইট নামালেন ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. সিরাজুল ইসলাম। পরে ইট নামাতে গিয়ে নবম শ্রেণির এক ছাত্র ট্রাক্টরের চাপায় পড়ে আহত হয়ে বর্তমানে চিকিৎসাধীন।

আহত শিক্ষার্থীর নাম মাহমুদ হোসেন (১৬)। সে মাশিকাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র এবং পদ্মকোট বাজারের চা দোকানদার হুমায়ুন আহমেদের ছেলে। গত বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় এ ঘটনা ঘটলেও ওই ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. সিরাজুল ইসলাম আহত ছাত্রের পরিবারকে পাঁচ হাজার টাকা দিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে। পরে আহত মাহমুদের অবস্থা আশংকাজনক হলে এ ঘটনা জানাজানি হয়।

আহত মাহমুদের বড় ভাই মেহেদী হাসান জানান, ‘তার পাজরের হাড় ভেঙে গেছে এবং হাত ও পায়ে জখম রয়েছে।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ছাত্ররা ট্রাক্টর থেকে মাথায় করে ইট নামাতে গিয়ে সড়কের পাশ দিয়ে চলাচল করা অন্য একটি ট্রাক্টরে চাপা পড়ে মাহমুদ। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রধমে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে দ্রুত কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণের পরামর্শ দেন।

অভিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, ‘শিক্ষার্থীদের দিয়ে ইট নামানোটা আমাদের ভুল হয়ে গেছে। আহত মাহমুদের চিকিৎসার জন্য কিছু টাকা দেওয়া হয়েছে।’

এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আলী জিন্নাহ বলেন, ‘শ্রেণিকক্ষে পাঠদান বন্ধ রেখে ছাত্রদের দিয়ে ইট নামানো ঠিক হয়নি। ইট নামাতে গিয়ে যে ছাত্রটি আহত হয়েছে তার সুচিকিৎসার জন্য বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

আর পড়তে পারেন