মঙ্গলবার, ২৮শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আওয়ামীলীগ সরকার বার বার দরকার- ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৮
news-image

মো. দ্বীন ইসলাম, মতলব উত্তর ॥
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া (বীর বিক্রম) এমপি বলেছেন, আওয়ামী লীগ সজাগ আছে। আগামী নির্বাচন নিয়ে যে কোন ধরনের ষড়যন্ত্র, খোঁচাখুচি রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করা হবে। সংবিধানের বাইরে বাঁকা পথে ক্ষমতায় যাওয়ার ইচ্ছা কারো পূরণ হবে না।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে মতলব উত্তর উপজেলার ফরাজীকান্দি ইউনিয়নের হাজী মঈন উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সরকারের বাস্তবায়িত উন্নয়ন কর্মকান্ড নিয়ে ফরাযীকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন কর্তৃক আয়োজিত উন্নয়ন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার মানেই উন্নয়নের সরকার। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আওয়ামীলীগ সরকার বার বার দরকার। অনুন্নত প্রান্তিক চরাঞ্চল উপজেলা মতলব উত্তরে আইটি পার্ক, বিশেষায়িত অর্থনৈতিক জোন, প্রত্যেক ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, প্রত্যেক ইউনিয়নের পাকা রাস্তা অর্থনৈতিক ও সামাজিক অবস্থার যুগান্তকারী পরিবর্তন এনে দিবে। ত্রাণ মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সরকার প্রত্যেকটি দুর্যোগে জনগণের পাশে থেকেছে। দীর্ঘ মেয়াদী বন্যায় কোন লোক না খেয়ে থাকেনি। প্রধামন্ত্রীর সহানুভূতিশীল নির্দেশনায় ১১ লক্ষ রোহিঙ্গার সার্বিক ব্যবস্থাপনা করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব মানবতার মা হিসেবে পরিচিত হয়েছেন। যিনি শুধু রোহিঙ্গা ইস্যুই নয়, বাংলা অবহেলিত মানুষের জন্যও তিনি মাদার অব হিউম্যানিটি। ইতোমধ্যেই তিনি বিশ্ব নেতা হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি লাভ করেছেন। বাংলাদেশ উন্নয়নে জনদরদী নেত্রী শেখ হাসিনাকেই বার বার ক্ষমতায় প্রয়োজন। আগামী দিনে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনাকে নৌকায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে হবে। এ সময় আগামী নির্বাচনে নৌকার পক্ষে সমর্থন ও ভোট কামনা করেন তিনি। উন্নয়ন মেলায় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশ ও সকল নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী। সভা শুরু হওয়ার পূর্বে হাজী মঈন উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে উপকূলীয় ও বহুমূখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেরন্দ্রর ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচন করেন মন্ত্রী।

ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশ এর সভাপতিত্বে ও জেলা যুবলীগ নেতা গাজী সাখাওয়াত হোসেন এবং জাতীয় শ্রমিকলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিন এর সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন ফারুক আহমেদ (তিতাস) এর যৌথ সঞ্চালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী ওচমান গণি পাটোয়ারী, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতা সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক একেএম রিয়াজ উদ্দিন মানিক, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এম এ কুদ্দুস প্রমূখ।
সভায় উপস্থিত ছিলেন, মতলব উত্তর চেয়ারম্যান কল্যাণ সমিতির সভাপতি, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি ও স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত মোহনপুর ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হক চৌধুরী বাবুল, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম জেলা পরিষদের সদস্য মিনহাজ উদ্দিন খান, সংরক্ষিত সদস্য ইয়াসমিন আহমেদ, ছেঙ্গারচর পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম জজ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী ইলিয়াছুর রহমান, শাহজাহান প্রধান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিলুফা আক্তার, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজ্জাম্মেল হক, ইউপি চেয়ারম্যান একেএম শরীফ উল্লাহ সরকার, মুছাদ্দেক হোসেন মুরাদ, আলী আক্কাস বাদল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, সাধারন সম্পাদক কাজী শরীফ, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন মুকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক সলিমুল্লাহ চৌধুরী বারী সোহেল, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সহ-সভাপতি রাসেল মাহমুদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম ডাবলু, সদস্য সচিব এ্যাড. আক্তারুজ্জামান, ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ইঞ্জি. রেজাউল করিম, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক এডভোকেট. মুহাম্মদ হারুন অর রশিদ, আওয়ামীলীগ নেতা রোকনুজ্জামান খান, আল-আমিন সরকার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক আব্দুর রব প্রধান, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ, নোমান দেওয়ান, তাহসিন, আমিনুল ইসলাম, অলিউল্লাহ, যুবলীগ নেতা খোরশেদ আলম, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি কবির হোসেন, ইউপি সদস্য মাহবুব আলম মিস্টার, সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান সবুজ, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম দেওয়ান সহ-সভাপতি বেলাল হোসেন দেলোয়ার, সাধারণ সম্পাদক আ. মান্নান, ছাত্রলীগের সভাপতি রুবেল বাবু, সাধারণ সম্পাদক নাছিম রানা’সহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। অনুষ্ঠানে হাজার হাজার নারী-পুরুষের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

সভা শেষে বর্ণাঢ্য মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে দেশবরেণ্য কন্ঠশিল্পীরা গান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে হাজার হাজার দর্শক গান উপভোগ করেন।

আর পড়তে পারেন