সোমবার, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

আপনার সন্তানকে তিরস্কার নয় অনুপ্রেরণা দিন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
নভেম্বর ২৫, ২০২২
news-image

 

ফাহিমা আক্তার:

মানুষ স্বপ্নপ্রেমী। প্রতিনিয়তই সে স্বপ্ন দেখে। স্বপ্ন দেখে বলেই মানুষ বেঁচে থাকার ইচ্ছা পোষণ করে।ক্ষেত্রবিশেষে একেক জনের স্বপ্ন একেক রকম হয়ে থাকে। কেউ হতে চায় ডাক্তার আবার কেউ বা হতে চায় শিক্ষক, ইঞ্জিনিয়ার কিংবা ব্যাংকার প্রভৃতি।

সন্তানদের স্বপ্ন পূরণে পিতামাতার অবদান অনস্বীকার্য। অনেক পিতামাতা তাঁদের সন্তানের ক্যারিয়ার গঠনের ব্যাপারে বেশ সচেতন। তাঁরা তাঁদের সন্তানকে ছোটবেলা থেকেই পড়াশুনার প্রতি বিভিন্নভাবে অনুপ্রেরণা প্রদানের মাধ্যমে আগ্রহী করে তোলেন। পিতামাতার দেওয়া এসব অনুপ্রেরণা তাঁদের সন্তানদের স্বপ্ন পূরণে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখা যায় এমনও অনেক পিতামাতা আছেন যারা মনে করেন ছেলেমেয়েদের কোনোরকম একটু পড়াশুনা করিয়ে বিয়ে দিতে পারলেই হয়ত দায়িত্ব শেষ। মেয়েদের ক্ষেত্রে দেখা যায়, অনেক বাবা-মা মনে করেন , মেয়েদের বিয়ের পর মেয়ের স্বামী চাইলে তাকে পড়াশুনা ও চাকরী করাবে। এমনকি ঐ স্বামী যদি তাকে পড়াশুনা ও চাকরী করার অনুমতি না দেয়, তাতেও তাঁদের কোনো আক্ষেপ নেই।

অনেক অভিভাবক আবার এমনও বলেন,” অমুক তো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, মেডিকেলে চান্স পেলো, তুই তো পেলি না।অমুক তো অ+ পেলো, তুই কেন পেলি না। অমুক মেয়েটা তো এম.এ. পাশ করলো; কত মেধাবী তাও চাকরি পাচ্ছে না, তুই পাবি কিভাবে?” এভাবে আরও কত কি শুনতে হয়।

পিতামাতা হিসেবে সন্তানকে এভাবে নিরুৎসাহী করা, ভর্ৎসনা করা কতটা যৌক্তিক তা আসলেই প্রশ্ন থেকে যায়।আপনার সন্তানকে তিরস্কার নয় অনুপ্রেরণা দিন। তাদের মতামতকে মূল্যায়ন করুন, তাদের স্বপ্ন পূরণে সাহায্য করুন।হয়ত আপনাদের অনুপ্রেরণায় বদলে যাবে জাতি,বদলে যাবে সমাজ।

লেখক:

ফাহিমা আক্তার
শিক্ষার্থী, বাংলা বিভাগ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

আর পড়তে পারেন